১৪ বছরের সুমাইয়ার বিয়ের প্রতিবাদে মানববন্ধন

প্রকাশিত: ৬:২৭ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ১৩, ২০১৯ | আপডেট: ৬:৫১:অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ১৩, ২০১৯
ছবি:টিবিটি

কামরুল হাসান, রাঙ্গাবালী (পটুয়াখালী) প্রতিনিধি: অপ্রাপ্ত বয়সে স্কুল ছাত্রী সুমাইয়া আক্তারকে (১৪) বিয়ে দেয়ার প্রস্তুতি চলছিল। সেই খবর শুনে একটি সমাজ সেবা মূলক সংগঠন সুমাইয়ার বাল্য বিয়ে বন্ধ করার পরামর্শ দিয়ে লেখাপড়ার খরচ বহনের আশ্বাস দেন পরিবারকে। এই প্রস্তাবে পরিবারও রাজি হন। কিন্তু সুমাইয়ার শেষ রক্ষা হয়নি।

সকলের অগোচরে সুমাইয়াকে বিয়ে দেওয়া হয়। পটুয়াখালীর রাঙ্গাবালী উপজেলার বড়বাইশদিয়া ইউনিয়নের ভূইয়াকান্দা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। এর প্রতিবাদে রোববার দুপুর ২ টায় ভূইয়াকান্দা অটোস্ট্র্যান্ড এলাকায় একটি মানববন্ধন করা হয়। ভূইয়াকান্দা যুব উন্নয়ন তহবিলের উদ্যোগে আয়োজিত এই মানববন্ধনে সংগঠনের সভাপতি মো. মান্নান ভূইয়া বলেন, ‘ভূইয়াকান্দা গ্রামে অপ্রাপ্ত বয়সে একের পর এক বাল্য বিয়ে হচ্ছে।

কিন্তু এর কোন প্রতিকার হচ্ছে না। তাই আমাদের সংগঠনের মাধ্যমে বাল্যবিয়ে বন্ধের উদ্যোগ নেই। সর্বশেষ প্রায় দুই সপ্তাহ আগে এই গ্রামের আইয়ুব তালুকদারের ১৪ বছর বয়সের মেয়ে মৌডুবি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণীর ছাত্রী সুমাইয়াকে অপ্রাপ্ত বয়সে বাল্য বিয়ে দেওয়া হবে বলে জানতে পারি। খবরটি শুনেই আমাদের সংগঠনের লোকজন সুমাইয়ার বাবা আইয়ুবের সঙ্গে কথা বলেন।

বাল্যবিয়ে আইনত দ-ণীয় অপরাধে এ সম্পর্কে সুমাইয়ার বাবা আইয়ুবকে অবহিত করা হয়। পাশাপাশি তার মেয়েকে বাল্য বিয়ে না দিলে আমাদের সংগঠনের পক্ষ থেকে তার (সুমাইয়া) লেখাপড়ার খরচ বহন করা হবে। এই প্রস্তাবে সুমাইয়ার বাবা রাজি হন এবং মেয়েকে বাল্য বিয়ে দিবে না বলে আশ্বাস দিয়েছিলেন।

কিন্তু ৯ জানুয়ারি সকলের অগোচরে আইয়ুব তার মেয়ে সুমাইয়াকে পার্শ্ববর্তী বাইলাবুনিয়া গ্রামের মোকলেছ গাজীর ছেলে ইছা গাজীর সঙ্গে বিয়ে দিয়ে দেয়। এখন তাকে শ্বশুর বাড়ি তুলে দেয়ার প্রস্তুতি চলছে। শুধুু সুমাইয়া নয়, এভাবে একের পর এক এই গ্রামে অপ্রাপ্ত বয়সে মেয়েদেরকে বাল্য বিয়ে হচ্ছে। কিন্তু প্রশাসনিক সহায়তার অভাবে আমরা এর প্রতিকার করতে পারছি না।

এই গ্রামে বাল্য বিয়ে বন্ধে প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করছি। যাতে আর কোন মেয়েকে অল্প বয়সে বিয়ের পিঁড়িতে বসতে না হয়।’ এ মানববন্ধন কর্মসূচিতে উপস্থিত ছিলেন, আলহাজ্ব আব্দুর জব্বার মাস্টার, বাদল হাওলাদার, ইব্রাহিম মুন্সি, আবু সাঈদ, মাহমুদ, হাফিজুর, তহসিন, তরিকুল, ওহিদ ভূইয়া, বনি আমিন, খোকা, দাইয়ান মুন্সি, রায়হান ও মোস্তাফিজ প্রমুখ।