অবিরাম বৃষ্টিতে বিপর্যপ্ত মির্জাগঞ্জের জনজীবন

উত্তম গোলদার উত্তম গোলদার

মির্জাগঞ্জ(পটুয়াখালী)প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ৬:১৭ অপরাহ্ণ, জুলাই ২৮, ২০২১ | আপডেট: ৬:১৭:অপরাহ্ণ, জুলাই ২৮, ২০২১

মঙ্গলবার দুপুর থেকে অবিরাম বৃষ্টিতে থমকে গেছে পটুয়াখালীর মির্জাগঞ্জের জনজীবন। বৃষ্টির পানিতে ডুবে গেছে নিম্নাঞ্চল, গ্রামীন রাস্তা-ঘাট, ফসলের ক্ষেত ও মাছ চাষের পুকুর। গো-খাদ্যের চরম সংকট দেখা দিযেছে। কখনো ভারি আবার কখনো গুঁড়িগুঁড়ি বৃষ্টি হচ্ছে।

বৃষ্টির পানিতে প্লাবিত হয়েছে উপজেলার পূর্ব সুবিদখালী গ্রামের হিন্দু পাড়াটিসহ জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হয়েছে অনেক এলাকায়। এতে অনেক পরিবার পানিবন্দি হয়ে পড়ে। ঝড়ো বাতাসে বিদ্যুতের লাইনে গাছ পড়ে বিদ্যুৎ ব্যবস্থা বন্ধ রয়েছে। উপজেলা শহরে বিদ্যুৎ ব্যবস্থা থাকলেও প্রত্যন্ত গ্রামে বিদ্যুৎ নেই প্রায় দু’দিন ধরে বলে জানান অনেকেই। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত বিদ্যুৎ ব্যবস্থা বন্ধ রয়েছে।

জানা যায়,একটানা বৃষ্টি ও ঝড়ো বাতাসে উপজেলার বিভিন্ন স্থানের গাছপালা উপড়ে পড়েছে। কয়েকটি গাছ পড়ে বসতঘর ভাঙ্গার খবর পাওয়া গেছে। উপজেলা সদরের সুবিদখালী ভূমি অফিসের সামনে মঙ্গলবার রাতে লঞ্চঘাট মাজার সড়কে একটি রেন্ট্রিগাছ পড়ে গতকাল বুধবার সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত যোগাযোগ ব্যবস্থা বন্ধ থাকে। পরে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা এসে গাছ কেটে সড়ক যোগাযোগ পরিক্ষার করে চলাচল স্বাভাবিক হয়। ভূমি অফিসের সামনে একটি বিশাল আকারের চাম্মল গাছ পরেও চলাচলে বিঘœ ঘটে। বৃষ্টির কারনে আউশের ক্ষেত ও আমনের বীজতলা পানিতে তলিয়ে যাওয়ায় কিছুটা ক্ষতির আশংকা করছেন কৃষকরা।

মির্জাগঞ্জ উপজেলা কৃষি অফিসার কৃষিবিদ মো. আরাফাত হোসেন বলেন, উপজেলায় চলতি আউশ মৌসুমে ক্ষেতে ধান তলিয়ে যাওয়ার খবর নেই। তবে নদীর পানি ও বৃষ্টির পরিমান বাড়লে সমস্যা হবে বলে তিনি জানান।