অশ্লীল সিনেমার নামে আমাকে ব্ল্যাকমেইল করেছে : মুনমুন

প্রকাশিত: ৩:৩২ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১০, ২০১৮ | আপডেট: ৩:৩২:অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১০, ২০১৮

যারা বলে আমার জন্য সিনেমা ইন্ডাস্ট্রি ধ্বংস হয়েছে, তারাই আসলে সিনেমা ইন্ডাস্ট্রি ধ্বংস করেছে। বললেন ঢাকাই সিনেমার এক সময়ের দাপুটে নায়িকা মুনমুন। বাংলা চলচ্চিত্রে অশ্লীলতার সূচনা করেছিলেন মুনমুন, এমন একটি অভিযোগ রয়েছে তার বিরুদ্ধে। অনেকের ভাষ্য, একের পর এক অশ্লীল সিনেমা করে পুরো ইন্ডাস্ট্রিকে ধ্বংসের দিকে নিয়ে যান তিনি।

এমন অভিযোগের জবাবে মুনমুন বলেন, আমি অ্যাকশন হিরোইন হিসেবে বেশি ছবি করেছি। অশ্লীল যুগে খুব বেশি সিনেমা আমি করিনি। অ্যাকশন নির্ভর ছবিতে প্রচুর মারপিটের দৃশ্য থাকতো, যেহেতু অ্যাশকন ছবি, এগুলোতে একটু খোলামেলা দৃশ্য অ্যাড করা হত, কিন্তু আমার কোনো খোলামেলা দৃশ্য ছিল না সেসব সিনেমায়। বাস্তবতা হলো অন্য নায়িকারা যে ড্রেস পরেছে আমিও সেই ড্রেস পরেছি। আমি সিনেমা ইন্ডাস্ট্রিকে অনেক ভালোবাসি। আমার বিরুদ্ধে এসব অভিযোগ মিথ্যা।

একটি টিভি অনুষ্ঠানে এসে এসব কথা বলেন নায়িকা মুনমুন।

অনুষ্ঠানে মুনমুন আরও বলেন, সিনেমার পরিচালকরা আমাকে ব্ল্যাকমেইল করেছে। এখন আর সেই পরিচালকদের নাম বলে লাভ নেই। তাদের নাম বললে আমার সম্মান ফিরে আসবে না! তারা এখন নেই। তাদের হাতে কাজও নেই। যারা বলে আমার জন্য সিনেমা ইন্ডাস্ট্রি ধ্বংস হয়েছে তারাই আসলে সিনেমা ইন্ডাস্ট্রি ধ্বংস করেছে। কারণ যারা সেলেবল আর্টিস্টের বিরুদ্ধে মিথ্যে কলঙ্ক দেয় তারা ফিল্মের কোনো ভালো করতে পারে না। কোন সিনেমায় আমি অশ্লীল ছিলাম তার প্রমাণ দিতে পারবেন না। অশ্লীল সিনেমায় তখন সবাই অভিনয় করেছে। কিন্তু অশ্লীল দৃশ্যে তো তারা অভিনয় করেনি।’

নায়ক শাকিব খান সম্পর্কে মুনমুন বলেন, ‘শাকিব খান বাংলাদেশের একজন অন্যতম নায়ক। তার সঙ্গে আমি ১৪টি সিনেমা করেছি। এদেশের চলচ্চিত্রের ইতিহাসে শত বছর পরেও যদি কোনো তারকার নাম উঠে আসে, তবে শাকিব খানের নামই উঠে আসবে।`

মুনমুন বর্তমানে আবারও সিনেমায় সক্রিয় হয়েছেন। ‘দুই রাজ কন্যা’, ‘রাগি’, ‘তোলপাড়’, ‘পাগল প্রেমি ‘, ‘পদ্মার প্রেম’সহ বেশ কিছু চলচ্চিত্রে অভিনয় করছেন। এর বাইরে স্বামী ও দু’ছেলেকে নিয়েই তার সময় কাটে।