আইয়ুব বাচ্চুকে ছাড়াই জন্মশহরের মঞ্চে এলআরবি, বাবার গিটার হাতে ছেলে

টিবিটি টিবিটি

বিনোদন ডেস্ক

প্রকাশিত: ২:১২ পূর্বাহ্ণ, নভেম্বর ১, ২০১৮ | আপডেট: ২:১২:পূর্বাহ্ণ, নভেম্বর ১, ২০১৮

গিটারের জাদুকর খ্যাত আইয়ুব বাচ্চু জন্মশহরের মাটিতে মায়ের পাশে ঘুমিয়ে আছেন। যে শহরের মাটি থেকে গিটার বাজিয়ে রকস্টার হয়েছিলেন বাচ্চু, সেই শহরের মাটিতে তাকে ছাড়াই প্রথম মঞ্চে গাইলো তার দল এলআরবি। বাচ্চুর ছেলে আহনাফ তাজোয়ার আইয়ুবের হাতে ছিল তার গিটার। মঞ্চে উঠেই বাচ্চু জন্য কাঁদলেন তার সতীর্থরা। কাঁদলেন ছেলে-মেয়ে। চোখের পানি ফেলে হাজার হাজার ভক্ত স্মরণ করেছেন আইয়ূব বাচ্চুকে।





বুধবার (৩১ অক্টোবর) রাতে চট্টগ্রাম নগরীর এম এ আজিজ স্টেডিয়ামে সংস্কৃতি মন্ত্রণালয় আয়োজিত উন্নয়ন কনসার্টে শেষ পরিবেশনা ছিল এলআরবি’র। মাত্র ১৩ দিন আগে যে বাচ্চুকে চোখের জলে বিদায় দিয়েছেন তার ভক্তরা, তার জন্য আরেকবার কাঁদলেন তারা। উন্নয়ন কনসার্টের আনন্দ অনুষ্ঠান শেষ হয়েছে আইয়ূব বাচ্চুর জন্য চোখের পানি ফেলে। মঞ্চে যারা ছিলেন তাদের চোখেও ছিল পানি। হাজার হাজার দর্শক-শ্রোতা অন্ধকারে মোবাইলের আলো জ্বেলে স্মরণ করেন বাংলা ব্যান্ডের গানের কিংবদন্তীকে।

কনসার্টের শেষপর্যায়ে আয়োজক চ্যানেল গান বাংলা’র ব্যবস্থাপনা পরিচালক কৌশিক হোসেন তাপস আইয়ুব বাচ্চুর দলকে মঞ্চে ডেকে নেন। পারফর্মারদের পর যখন তিনি বাচ্চুর ছেলেকে ডাকেন, গিটার কাঁধে নিয়ে হাজির হন আহনাফ। এরপর ডাকেন বাচ্চু’র মেয়ে ও জামাতাকে।





বাচ্চুর ছেলে আহনাফ বলেন, ‘আমার বাবা আপনাদের অনেক পছন্দের একজন। আমার বাবা আজ মঞ্চে নেই। আমরা এমন জোরে বাজাব, এমন জোরে গাইব, যেন আমার বাবা উপর থেকে শুনতে পান।’

মেয়ে বলেন, ‘আমার খুব ইমোশনাল লাগছে। আপনারা সবাই এমন জোরে গাইবেন, যেন বাবা উপর থেকে শুনে বলেন- আমি তোমাদের সাথে আছি।’

এলআরবি ব্যান্ডের ম্যানেজার শামীম আহমেদ বলেন, ‘বাচ্চু ভাই উপর থেকে দেখুক, তার রকল্যান্ডকে। এই চট্টগ্রামের মাটিকে বাচ্চু ভাই বলতেন রকল্যান্ড।’

বেস গিটারিস্ট স্বপন বলেন, ‘৩৬ বছর পর বাচ্চু ভাইকে ছাড়া কোনো মঞ্চে গান গাইছি।’ এসময় তিনি কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন।

ড্রামসের রোমেল বলেন, ‘বাচ্চু ভাই আপনাদের সন্তান। আপনারা বাচ্চু ভাইয়ের জন্য মন থেকে দোয়া করবেন।’





এরপর শুরু হয় গান। ‘উড়াল দেব আকাশে’ গানটি পরিবেশন করে এলআরবি। মাইলসের মানাম আহমেদও তাদের সঙ্গে যোগ দেন।
গান শেষে গিটারে বাচ্চুর ‘সেই তুমি’ গানটি বাজিয়ে তাকে স্মরণ করা হয়। এসময় বাচ্চুর ছেলেমেয়েসহ শিল্পী এবং মাঠের ভক্তরা কান্না করতে থাকেন। ‘বিদায় চট্টগ্রাম, আইয়ূব বাচ্চুর চট্টগ্রাম’ বলে কনসার্টের সমাপ্তি টানেন তাপস।

গত ১৯ অক্টোবর সকালে রাজধানীতে আকস্মিক হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মারা যান আইয়ুব বাচ্চু। চট্টগ্রামে মায়ের কবরের পাশে সমাহিত করা হয়েছে এই গিটার গুরুকে।