‘আমার বন্ধুত্বটা গাঢ় হয় ওর বিয়ের সময়’

টিবিটি টিবিটি

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ১২:২৮ অপরাহ্ণ, জুলাই ২৪, ২০২১ | আপডেট: ১২:২৮:অপরাহ্ণ, জুলাই ২৪, ২০২১

প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসের সঙ্গে লড়াইয়ে হেরে অবশেষে না ফেরার দেশে পাড়ি জমালেন গণসংগীত শিল্পী ফকির আলমগীর।

শুক্রবার রাত ১০টা ৫৬ মিনিটে ঢাকার ইউনাইটেড হাসপাতালে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন এই কিংবদন্তি।

একুশে পদক পাওয়া এই সঙ্গীতজ্ঞের মৃত্যুতে দেশের সাংস্কৃতিক অঙ্গনে শোকের ছায়া নেমে এসেছে। এ শিল্পীকে হারিয়ে শোকে কাতর কণ্ঠশিল্পী ফেরদৌস ওয়াহিদ।

ফকির আলমগীর খুব কাছের বন্ধু ছিলেন তার। এক-দুই বছর নয়, দীর্ঘ ৪৮ বছরের বন্ধুত্ব ছিল এ দুই শিল্পীর মাঝে। ব্যক্তিগত জীবনের বহু স্মৃতি জড়িয়ে আছে দুজনার।

তাই অন্যদের চেয়ে তার কষ্ট, হাহাকার একটু বেশিই।

সেই স্মৃতি হাতড়ে ফেরদৌস ওয়াহিদ বলেছেন, ‘ফকির আলমগীরের সঙ্গে আমার বন্ধুত্বটা গাঢ় হয় ওর বিয়ের সময়। ওর মাথায় বিয়ের পাগড়িটা কিন্তু আমিই পরিয়েছিলাম। তার সঙ্গে ৪৮ বছরে এমন হাজার হাজার গল্প রয়েছে আমার। যা কখনও ভোলার নয়।’

পপ ও গণসংগীতে ফকির আলমগীরের অবদান প্রসঙ্গে ফেরদৌস বলেন, ‘ফকির আলমগীরই বাংলাদেশে একমাত্র মানুষ, যিনি গণসংগীতকে আমৃত্যু ধরে রেখেছিলেন। তার মৃত্যুতে সংগীতের এই ক্ষেত্রটিতে অপূরণীয় ক্ষতি হয়ে গেল।

আমি দ্যর্থহীন কণ্ঠে বলে রাখলাম, আজ থেকে বাংলাদেশ গণসংগীতহীন হয়ে গেল। আজ থেকে সংগীতের এই অসাধারণ ধারাটিতে শূন্যতা তৈরি হলো। এই ঘাটতি কবে কে পূরণ করবে, জানি না। আদৌ হবে কি না, তাও জানি না।’