আম্পায়ারের ভুলে শিরোপা হারাল বাংলাদেশ, ৫ রানে জিতে চ্যাম্পিয়ন ভারত

টিবিটি টিবিটি

স্পোর্টস ডেস্ক

প্রকাশিত: ৬:৫২ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১৪, ২০১৯ | আপডেট: ৬:৫২:অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১৪, ২০১৯

ভারতের মতো শক্তিশালী দলকে ১০৬ রানে গুটিয়ে দিয়ে বোলাররা ফাইনাল জেতার উপলক্ষ্য তৈরি করে। কিন্তু বোলারদের সাজানো সেই বাগান যে পায়ে ঢলে নষ্ট করে এলো দলের সব ব্যাটসম্যান।

কলম্বোর প্রেমাদাসার উইকেট এমন কোন মাইনফিল্ড হয়ে উঠেনি যে এখানে ব্যাটিংই করা যাবে না। আসলে যে কায়দায় বাংলাদেশের ব্যাটসম্যানরা আউট হয়েছে তাকে বলে উইকেট ছুঁড়ে দিয়ে আসা।

১০৭ রানের সামান্য টার্গেট টপকাতে প্রয়োজন কেবল একটা ছোট খাটো জুটি। ম্যাচ জেতানোর মতো সেই জুটিই যে গড়তে পারলো না বাংলাদেশ।

রান তাড়ায় নেমে বাংলাদেশ প্রথম উইকেট হারায় ইনিংসের চতুর্থ বলে। তানজিদ হাসান ফিরলেন শূন্য রানে, এলবিডবøু হয়ে। তবে আম্পায়ারের পুরো ভুল সিদ্ধান্তের শিকার তানজিদ। পেসার আকাশ সিংয়ের বলটা নিশ্চিতভাবে লেগস্ট্যাম্প মিস করছিলো। কিন্তু আম্পায়ার আপিলে সাড়া দিলেন।

বাংলাদেশ ইনিংসে ভুলের শুরু ওভাবেই। বাকি সময়ে অবশ্য আম্পায়াররা ভুলচুক করেননি। যা ভুল করার তার সব দায় ব্যাটসম্যানদের। অফস্ট্যাম্পের অনেক বাইরে পড়া বলে ছক্কা হাঁকাতে গিয়ে ফিরলেন আরেক ওপেনার পারভেজ হোসেন ইমন। মাহমুদুল হাসান, তৈাহিদ হৃদয় ও শাহাদাত হোসেন-মিডলঅর্ডারের এই তিন ব্যাটসম্যানের সম্মিলিত সংগ্রহ ৪ রান!

দেখতে না দেখতে বাংলাদেশের স্কোরবোর্ডের হতশ্রী চেহারা ; ১৬ রানে নেই ৪ উইকেট!

অধিনায়ক আকবর আলী একপাশ আঁকড়ে রেখে লড়াই চালান। কিন্তু অন্যপ্রান্ত থেকে সহায়তা পেলেই কই? আট নম্বরে ব্যাট করতে নামা মৃত্যুঞ্জয়ী চৌধুরী তাকে কিছুটা সঙ্গ দিলেন। মাঝে বৃষ্টির কারণে কয়েক মিনিট খেলা বন্ধ ছিলো। বৃষ্টি থামতেই বাংলাদেশের উইকেট পতনের ধারাবাহিকতা ফের শুরু। ভালো খেলতে থামা আকবর আলী ফিরলেন ২৩ রানে। স্পিনার আনকোলেকারের বলে কট এন্ড বোল্ড হন আকবর। দুই বল পরে মৃত্যুঞ্জয়ীও আউট! ২১.১ ওভারে ৭৮ রানে হাওয়া ৮ উইকেট!

নবম উইকেটে রকিবুল হাসান ও তানজিদ হাসান সাকিব যতক্ষণ খেলছিলেন মনে হচ্ছিলো বাংলাদেশ ঠিকই ম্যাচ জিতে নিবে। কিন্তু ২৩ রান যোগ করে এই জুটি ভাঙ্গতেই শেষবারের মতো ভেঙ্গে পড়ে বাংলাদেশ। ১০১ রানে শেষ দলের ইনিংস! ভারতের বাঁহাতি স্পিনার আনকোলেকার ২৮ রানে ৫ উইকেট নিয়ে লো স্কোরিং ফাইনাল জয়ের নায়ক।