‘আল্লাহর পথে যাচ্ছি’ চিঠি লিখে ঘরছাড়া কিশোর

টিবিটি টিবিটি

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ৭:৫৯ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১৪, ২০১৯ | আপডেট: ৭:৫৯:অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১৪, ২০১৯

‘আল্লাহর পথে যাচ্ছি’ চিঠি লিখে বাড়ি ছেড়েছে সাতক্ষীরা শহরের এক মেধাবী কিশোর। পরিবার ও প্রশাসন মনে করছে জঙ্গিবাদে জড়িয়ে কাজটি করছে সাতক্ষীরা সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের ৮ম শ্রেণির এই ছাত্র।

তার নাম মোহায়মিনুল ইসলাম। লেখাপড়া ও বিতর্কে বরাবর ভালো করে আসা মোহায়মিনুল সাতক্ষীরা সদর থানার কনস্টেবল মোস্তাফিজুর রহমানের এক মেয়ে ও তিন ছেলের মধ্যে দ্বিতীয়। তারা থাকে থানা সংলগ্ন মুনজিতপুরের ভাড়া বাড়িতে।

শুক্রবার বাড়ির পড়ার টেবিলে চিঠি লিখে বাড়ি ছাড়ে সে। বাড়ির লোকজন ও পুলিশ খোঁজাখুজি করলেও কোনো সন্ধান বের করতে পারেনি।

স্কুলের প্রধান শিক্ষক সমরেশ কুমার দাশ এ ঘটনায় উদ্বেগ প্রকাশ করে বলেন, মোহায়মিনুল ইসলাম মেধাবী ও ভদ্র হিসেবে পরিচিত ছিল। শনিবার সকালে স্কুলে এসে মোহায়মিনুলের বিষয়টি বাবা জানানোর পর সবাই চিন্তিত।

মোহায়মিনুলের শ্রেণীশিক্ষক মোস্তাফিজুর রহমান ও স্কুলের বন্ধুরা জানায়, সে কিছুদিন যাবত বন্ধুদের বলছিল ‘আল্লাহর পথে চলো। জঙ্গি বলে কিছু নেই, আমি ব্যাপারটা নিয়ে বোঝার চেষ্টা করছি, তোমাদেরও বোঝাব’। শিক্ষকরা বলছে সে সর্বদা ভাল ছাত্র ও গম্ভীর প্রকৃতির ছিল।

এ ঘটনায় স্কুল পরিদর্শন করেছেন জেলা প্রশাসক ও পুলিশ প্রশাসন।

জেলা প্রশাসক এস এম মোস্তফা কামাল বললেন, সাতক্ষীরায় জঙ্গি প্রবণতা পুরাতন খবর। একটি মেধাবী ছাত্র ‘আল্লাহর পথে যাচ্ছি’ চিঠি লিখে বাড়ি ছাড়ার ঘটনাটি উদ্বেগজনক।

তিনি স্কুলে জঙ্গিবাদবিরোধী ক্যাম্পেইন করবেন জানিয়ে তিনি বলেন, তবে তার আগে ছেলেটিকে উদ্ধার করা যায় কি না তার জন্য পুলিশ প্রশাসনকে বলেছি।

পুলিশ প্রশাসনের পক্ষে সাতক্ষীরা সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোস্তাফিজুর রহমান জানিয়েছেন, শুক্রবার সন্ধ্যা থেকে বাড়ি ছাড়ার বিষয়টি জানার পর পুলিশ মাঠে নেমেছে।

তিনি বলন, দেশের প্রায় প্রত্যেক জঙ্গিবাদী ঘটনায় সাতক্ষীরার ছাত্র-যুবকদের সম্পৃক্ত থাকার কারণে এলাকার মানুষ শংকিত। মোহায়মিনুল ইসলামকে উদ্ধার করা না গেলে সেও বড় ধরনের নাশকতামূলক কাজে নিজেকে জড়িয়ে ফেলতে পারে।