আল্লাহ ও ইসলামকে নিয়ে ফেসবুকে কটুক্তি করে প্রভাষক

প্রকাশিত: ১০:২০ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ২১, ২০১৯ | আপডেট: ১০:২১:অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ২১, ২০১৯
ছবি: টিবিটি

মোঃ সাদিকউর রহমান শাহ্ (স্কলার), নীলফামারী প্রতিনিধি: নীলফামারীর ডিমলা উপজেলা তিস্তা ডিগ্রি কলেজের মুসলিম ছাত্র-ছাত্রীদের আয়োজনে “ভুল করেছে আল্লায়, শুধরে দিচ্ছে মোল্লায়, আল্লাহ যদি সর্বশক্তিমান হতো, ইসলাম যদি সত্যি হতো, তাহলে মুসলিম বাচ্চারা খাৎনা সহ জন্ম গ্রহণ করতো” এমন ভাষায় “ÒAngni Binar Biddhrahi” নামক ফেসবুক আইডিতে আল্লাহ্ ও ইসলাম ধর্মকে কুটক্তি করে সোসাল মিডিয়া ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়ে ছড়িয়ে দেয়ার প্রতিবাদে কুটক্তিকারী উক্ত কলেজের বাংলা বিষয়ের প্রভাষক ভূগু রামকে বিচারের মাধ্যমে দ্রুত দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তীর দাবীতে মানববন্ধন কর্মসূচি ও বিক্ষোভ র‌্যালী অনুষ্ঠিত হয়েছে।

শনিবার সকাল ১১ টায় তিস্তা ডিগ্রি কলেজ চত্বরে থেকে একটি বিক্ষোভ র‌্যালী বের করে ডালিয়া ১ নাম্বার নামক জলঢাকা মহা-সড়ক ঘুরে এসে কলেজ গেটে ঘন্টাব্যাপী মানববন্ধন ও বিক্ষোভ কর্মসূচি পালন করে।

তিস্তা ডিগ্রি কলেজের এইচ এস সি দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী জাহাঙ্গীর কবীরের সভাপতিত্বে মানববন্ধন কর্মসূচিতে শিক্ষার্থীরা তাদের বক্তেব্যে বলেন, ধর্ম নিয়ে কুটক্তি করার কারো ব্যক্তিগত অধিকার নেই। আমরা এই কলেজের শিক্ষার্থী আর তিনি শিক্ষক তথা (প্রভাষক) সে যদি এমন ভাষায় বর্তমান যুগে সামাজিক যোগাযোগ এর মাধ্যম ফেসবুকে ধর্ম নিয়ে কুটক্তি করেন তাহলে তাঁর কাছে কি শিখব আমরা ?।

এসময় নুরুজ্জামান সরকার, লিখন ইসলাম, মোকলেছুর রহমান বক্তব্য দেন। তারা ইসলাম ধর্মকে নিয়ে কুটক্তিকারী এমন প্রভাষককে চাকরী চুত্য করে তার বিরুদ্ধে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি আইন প্রয়োগের মাধ্যমে দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তী দাবী করেন। সেই সাথে বক্তারা কঠোর হুশিয়ারী দিয়ে বলেন, কুটক্তিকারী ওই প্রভাষকের বিরুদ্ধে যদি প্রোয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা না হয়, তাহলে ক্লাস বর্জনসহ সারা বাংলাদেশে কঠোর থেকে কঠোরতর আন্দোলন গড়ে তোলা হবে।