আসল পরীক্ষার সামনে দাঁড়িয়ে শামীম

টিবিটি টিবিটি

স্পোর্টস ডেস্ক

প্রকাশিত: ৯:০০ অপরাহ্ণ, জুলাই ২৭, ২০২১ | আপডেট: ৯:০০:অপরাহ্ণ, জুলাই ২৭, ২০২১
ছবি: সংগৃহীত

২০২০ সালে অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপে চ্যাম্পিয়ন হয় বাংলাদেশ। বিশ্বজয়ী সেই দলটিতে দারুণ প্রতিভাবান কিছু ক্রিকেটারও আছেন- এটা ক্রিকেট সংশ্লিষ্ট সবাই-ই বিশ্বাস করেন। সেই দলেরই সদস্য শামীম হোসেন পাটোয়ারির আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অভিষেক হয়েছে সদ্য সমাপ্ত জিম্বাবুয়ের সাথে টি-টোয়েন্টি সিরিজে, একেবারে তাক লাগানো অভিষেকই হয়েছে শামীমের।

টি-টোয়েন্টি সিরিজের তিন ম্যাচের শেষ দুইটিতে খেলার সুযোগ পেয়েছিলেন শামীম। প্রথম ম্যাচে খেলার সু্যোগ না পেলেও দারুণ টা ক্যাচ ধরে সবার নজর কেড়েছেন। পরের দুই ম্যাচেই একাদশে ছিলেন। দ্বিতীয় ম্যাচে ব্যাট করার সুযোগও পেয়েছেন। তবে প্রচন্ড রকম চাপে থাকা দলকে জিতিয়ে মাঠ ছাড়তে পারেননি। তারপরও ১৩ বলে ২৯ রানের ইনিংস অবশ্যই প্রশংসার দাবিদার।

তবে বাংলাদেশ জাতীয় দলের সাবেক অধিনায়ক মোহাম্মদ আশরাফুল মনে করেন, অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ঘরের মাঠে আসন্ন টি-টোয়েন্টি সিরিজে আসল পরীক্ষা অপেক্ষা করছে শামীমের জন্য।

অভিষেক ম্যাচে ১৩ বলে ২৯ রানের পর সিরিজ নির্ধারণী ম্যাচে ১৫ বলে ৩১ রানের গুরুত্বপূর্ণ ইনিংস খেলেন শামীম। এরপর থেকেই প্রশংসায় ভাসছেন চাঁদপুরের এই মারকুটে ব্যাটিং অলরাউন্ডার। আশরাফুল অবশ্য এখনই শামীমকে ফুল মার্কস দিতে রাজি নন।

জস হ্যাজেলউড, মিচেল মার্শ, মিচেল স্টার্ক, অ্যান্ড্রু টাইদের মতো দারুণ সব পেসার আছে অস্ট্রেলিয়া দলে। যারা টানা ১৪০ কিলোমিটার গতিতে বল করে যেতে পারেন। সর্বকনিষ্ঠ সেঞ্চুরিয়ানের মতে, এসব বোলারদের বিপক্ষে শামীম নিজেকে প্রমাণ করতে পারলে লাভটা হবে বাংলাদেশ ক্রিকেটেরই।

গণমাধ্যমকে আশরাফুল বলেন, ‘শামীমের ব্যাটিং আমার কাছে খুবই ভালো লেগেছে। ও ঘরোয়া ক্রিকেটে যেভাবে ব্যাটিং করে, আন্তর্জাতিক ক্রিকেটেও সেভাবেই করেছে। এটা দেখে খুবই ভালো লাগছে। এখন দেখার বিষয় অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে কীভাবে সামাল দেয়।’

‘আমাদের ঘরোয়া ক্রিকেটে যে খেলাগুলো হয়, সেখানে সর্বোচ্চ ১২৫, ১৩০, ১৩৫ গতির বল খেলে অভ্যস্ত শামীম। জিম্বাবুয়েতেও তাকে খুব বেশি পরীক্ষা দিতে হয়নি। ওখানেও ১৩০-১৩৫ গতির বল খেলছে।’

‘সামনে আমাদের দল অনেকগুলো টি-টোয়েন্টি সিরিজ খেলবে। অস্ট্রেলিয়া, ইংল্যান্ড, নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে খেলা আছে। ওখানে দেখার বিষয় ১৪০ কিলোমিটারের বেশি গতির বলের চ্যালেঞ্জগুলো শামীম কীভাবে নিচ্ছে, পাওয়ার হিটিংয়ে কতটা সফল হচ্ছে। এই জায়গায় যদি সফল হতে পারে, সেটা ওর জন্য যেমন ভালো, বাংলাদেশ ক্রিকেটেরও উন্নতি হবে।’ যোগ করেন আশরাফুল।