ইত্যাদির ‘নাতি’ বললেন, জীবিত আছি

টিবিটি টিবিটি

বিনোদন ডেস্ক

প্রকাশিত: ৬:০৪ অপরাহ্ণ, জুন ১২, ২০২১ | আপডেট: ৬:০৪:অপরাহ্ণ, জুন ১২, ২০২১

আজকাল যে কারও মৃত্যুর গুজব রটে যায় সোশ্যাল সাইটে। তারকা হলে তো কথাই নেই। কিছু বোকা সোশ্যাল সাইট ব্যবহারকারীর সৌজন্যে এবার জনপ্রিয় ম্যাগাজিন অনুষ্ঠান ‘ইত্যাদি’র নাতি হিসেবে দেশবাসীর কাছে সুপরিচিত শওকত আলী তালুকদারের মৃত্যুর গুজব ছড়ানো হয়েছে। তবে তুমুল জনপ্রিয় এই অভিনেতা সুস্থ আছেন।

গুজবের কারখানা বলে পরিচিত সোশ্যাল মিডিয়ায় হাজার হাজার পোস্টে বলা হচ্ছে যে, ইত্যাদির নাতি চরিত্রে অভিনয় করা ‘মোস্তাফিজুর রহমান’ মারা গেছেন। কিন্তু এটি পুরোপুরি মিথ্যা।

এর পরিপ্রেক্ষিতে এক ভিডিওবার্তায় জীবিত আছেন বলে নিজেই জানিয়েছেন এই তারকা।

‘ইত্যাদি’র নাট্যাংশে নানা ও নানির সঙ্গে নাতি হিসেবে অভিনয় করে ব্যাপক জনপ্রিয় শওকত। ফেসবুকে তার একটি ভিডিও ঘুরছে, যা এরই মধ্যে ভাইরাল হয়ে গেছে।

সে ভিডিওবার্তায় শওকত আলী তালুকদার নিপু বলেন, ‘দর্শক আমি নিপু, আপনাদের প্রিয় নাতি। আমার ছোট ভাই পলাশের ফেসবুক আইডি থেকে ভিডিওটি পোস্ট করছি। গতকাল কোনো একটি অনলাইন সংবাদপত্রে খবর প্রকাশ পেয়েছে, বাংলাদেশ চলচ্চিত্রের এক নাতি মারা গেছেন। তবে আমি ইত্যাদির নাতি, আপনাদের প্রিয় নাতি এখনো জীবিত আছি। সবাই দোয়া করবেন, যেন দীর্ঘদিন আপনাদের মাঝে থাকতে পারি। ’

ভিডিওবার্তাটি দেখতে ক্লিক করুন এখানে

এদিকে শুক্রবার (১১ জুন) থেকে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে নিপুর মৃত্যুর গুজব ছড়িয়ে পড়ে। অনেকে তার ছবি পোস্ট করে মৃত্যুর গুজব ছাড়ায়, যা মুহূর্তেই ভাইরাল হয়ে যায়।

অবশ্য এটা নতুন কিছু না, প্রায়ই প্রবীণ অভিনেতা ও অভিনেত্রীদের মৃত্যুর গুজব সামাজিক মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়তে দেখা যায়।

১৯৮১ সালে ঢাকায় জন্মেছেন শওকত আলী তালুকদার নিপু। তার গ্রামের বাড়ি জামালপুর। পরিবারের সঙ্গে থাকেন ঢাকার উত্তরায়।

টানা গত ২৮ বছর ধরে ‘ইত্যাদি’র নানা-নাতি নাট্যাংশে দেখা যাচ্ছে নিপুকে। প্রথম পর্ব প্রচারের পর থেকেই দর্শকেরা সাদরে গ্রহণ করে নেন তাকে। বর্তমানে ‘ইত্যাদি’ ছাড়া অন্য কোনো অনুষ্ঠানে কাজ করেন না তিনি।

এদিকে, মোস্তাফিজুর রহমান নামের এক কৌতুক অভিনেতা মারা গেছেন। তাকে দেখা গেছে হারুণ কিসিঞ্জার, চিকন আলীদের সঙ্গে অভিনয় করতে। কিছু সিনেমাতেও কাজ করেছেন মোস্তাফিজ। তার বাড়ি জয়পুরহাটে। শ্বাসকষ্টে ভুগে তার মৃত্যু হয়েছে বলে নিশ্চিত করেছেন অভিনেতা চিকন আলী। মূলত মোস্তাফিজের মৃত্যুর পরই নিপুর মৃত্যুর গুজব ছড়িয়ে পড়ে।