ইনফিনিক্স হট ১০ এস: বাজারে শীর্ষে থাকা এন্টারটেইনমেন্ট ও গেমিং ফোন

টিবিটি টিবিটি

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ৭:৪৫ অপরাহ্ণ, জুলাই ১৬, ২০২১ | আপডেট: ৭:৪৫:অপরাহ্ণ, জুলাই ১৬, ২০২১

বৈশ্বিক স্মার্টফোনের বাজারে নিজেদের উপস্থিতি বাড়াতে মিডরেঞ্জ এবং স্বল্প বাজেটের বেশ কিছু স্মার্টফোন নিয়ে ২০২১ সালের ক্যাম্পেইন শুরু করেছিল ইনফিনিক্স। এরপর বহুল প্রত্যাশিত গেমিং ও এন্টারটেইনমেন্ট বান্ধব স্মার্টফোন হিসেবে এবং ইনফিনিক্সের হট সিরিজের পোর্টফোলিওতে যুক্ত হয়েছে নতুন হট ১০ এস। ফোনটিতে যুক্ত হওয়া নতুন বিশেষ ফিচারগুলো হট ১০ এস স্মার্টফোনটিকে অন্য সব ডিভাইসগুলো থেকে আলাদা করে তুলেছে। নতুন প্রজন্মের স্মার্টফোন ব্যবহারকারীদের লক্ষ্য করে ফোনটি এমনভাবে তৈরি করা হয়েছে যাতে নতুন কোনো ডিভাইস বাজারের নিয়ে আসার ক্ষেত্রে অন্যান্য প্রতিযোগী ব্র্যান্ডগুলোকে এখন বার বার ভাবতে হবে।

প্রধান ফিচারসমূহ
ইনফিনিক্স হট ১০ এস এর বিশেষ ফিচারগুলো বিশ্লেষণ শেষে বলা যায়, সাশ্রয়ী বাজেটের মধ্যে যারা ভালো মানের ক্যামেরা এবং পারফরম্যান্সের ফোন খুঁজছেন তাদের জন্য এটি সর্বাপেক্ষা সেরা পছন্দ হতে পারে। ইনফিনিক্স হট ১০ এস এর অনেকগুলো উন্নত ফিচার যুক্ত করা হয়েছে। আসুন সেসব ফিচারগুলো সম্পর্কে জেনে নেওয়া যাক।

দুর্দান্ত প্রসেসর
অসাধারণ গেমিং অভিজ্ঞতার দিতে হট ১০ এস ফোনটিতে মিডিয়াটেকের হেলিও জি৮৫ গেমিং চিপসেটটি সাথে একটি ৬৪-বিট অক্টা-কোর প্রসেসর রয়েছে। পাশাপাশি এতে ২.০ গিগাহার্টজের দুটি পারফরম্যান্স কোর এআরএম কর্টেক্স-এ৭৫ এবং ১.৮ গিগাহার্টজ ক্ষমতার ছয়টি পাওয়ার-ইফিসেন্ট কোর কর্টেক্স-এ৫৫ সিপিইউ রয়েছে। সেই সাথে এতে ১ গিগাহার্টজের দ্রুততম জিপিইউগুলোর একটি এআরএম মালি-জি৫ এমসি২ জিপিইউ একীভূত করা হয়েছে।

সেরা ভিজ্যুয়াল ইফেক্ট এবং সিকিউরিটি
ইনফিনিক্স হট ১০ এস স্মার্টফোনটিতে ৬.৮২ ইঞ্চির এইচডি+ আল্ট্রা-স্মুথ ডিসপ্লে সাথে ৯০ হার্টজের রিফ্রেস রেট সুবিধা থাকছে। এতে থাকা বিশাল বড় ডিসপ্লে ব্যবহারকারীকে স্ক্রিন সোয়াইপ এর ক্ষেত্রে দারুণ সুবিধা দিবে এবং হাই-স্পিড মুভিং ফুটেজ চালানোর ক্ষেত্রে আলটিমেট ভিজ্যুয়াল অভিজ্ঞতা দিবে। দ্রুত চলাচলের সময়েও ফোনটিতে থাকা ১৮০ হার্টজ সুবিধা ডিসপ্লেতে ফিঙ্গারের টাচ ও সঠিকভাবে ফিঙ্গারপ্রিন্ট শনাক্ত করতে পারবে।

নির্বিঘ্নে হাই-পাওয়ার্ড গেমিং
দুর্দান্ত ও নির্বিঘ্ন পারফরম্যান্স দিতে ইনফিনিক্স হট ১০ এস ফোনটিতে একসাথে বেশ কিছু প্রযুক্তি সংযুক্ত করা হয়েছে। এসব ফিচারগুলো বিশেষত গেমারদের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ যারা গ্রাফিকালি ইনটেনসিভ গেম খেলার জন্য হাই-পারফরম্যান্সের ডিভাইস খোঁজ করছেন। ফোনটিতে বেশ কিছু দুর্দান্ত হার্ডওয়্যার এবং সফ্টওয়্যার যেমন- মিডিয়াটেক হেলিও জি৮৫ এবং ডার-লিংক আলটিমেট গেম বুস্টার সুবিধা সংযুক্ত রয়েছে।

প্রতি বিষয় ধারণ করতে বিশেষ ক্যামেরা
ইনফিনিক্স হট ১০ এস স্মার্টফোনের সামনে এবং পিছনে হাই-পারফরম্যান্স ক্যামেরা যুক্ত করা হয়েছে। যাতে ব্যবহারকারীরা স্বল্প আলোতেও সেরা নাইটস্কেপ ইমেজিং এবং সামগ্রিক পিকচার পারফরম্যান্স সুবিধা পেতে পারেন। এতে থাকা সবশেষ নাইটস্কেপ প্রযুক্তি ছবি তুলার ক্ষেত্রে আগের প্রজন্মের ক্যামেরা থেকে দ্বিগুণ আলোর সুবিধা দিবে। উচ্চমানের ছবি তুলার জন্য এর প্রধান ক্যামেরাটিতে ৪৮-এমপি, ০.৮ মাইক্রোমিটার, এফ/১.৭৯, একটি ৬পি লেন্স এবং একটি রিয়ার ফ্ল্যাশ সুবিধা রয়েছে। হট ১০ এস এর ৮ মেগাপিক্সেলের ফ্রন্ট ক্যামেরা দিয়ে ব্যবহারকারীরা আকর্ষণীয় সব সেলফি তুলতে পারবেন। এর ইন্টিগ্রেটেড এআই পোর্ট্রেট ফিচার ক্যামেরার সক্ষমতা আরও বাড়িয়ে ব্যবহারকারীদের দুর্দান্ত ফটোগ্রাফি করার সুযোগ দিবে। পিনহোলটির জন্য ন্যূনতম জায়গা দিয়ে হট ১০ এস ফোনটির দক্ষতা এবং নান্দনিকতার মধ্যেও ভারসাম্য রাখা হয়েছে।

ভিডিও ধারণের সেরা অভিজ্ঞতা
ফোনটির ২কে রেজ্যুলিউশনের ভিডিও ধারণ সুবিধাকে কাজে লাগিয়ে ব্যবহারকারীরা হট ১০ এস দিয়ে ক্লিয়ার ও অথেনটিক ভিডিও তৈরি করতে পারবেন। সেইসাথে বোনাস হিসেবে এতে থাকা ২৪০ এফপিএস স্লো-মোশন ভিডিও ধারণের সুবিধার ফলে সহজেই দ্রুত চলাচলের ভিডিও ক্যাপচার করা যাবে এবং সেগুলো প্রয়োজনে স্লো করে নিতে পারবে, যা ব্যবহারকারীদের আলটিমেট একশন শট নিতে সক্ষম করবে।

৬০০০ এমএএইচ এর দীর্ঘস্থায়ী ব্যাটারি
হট ১০ এস ফোনটি দিয়ে সারাদিন গেম খেলা ও ব্যবহারে জন্য ৬০০০ এমএএইচ (মিলি অ্যাম্পিয়ার আওয়ার) ক্ষমতার শক্তিশালী ব্যাটারি যুক্ত করা হয়েছে। এতে সেফ-চার্জিং প্রযুক্তি থাকায় চার্জিংয়ের সময় ফোনটি একবার পুরোপুরি চার্জ হয়ে গেলে স্বয়ংক্রিয়ভাবে চার্জ নেওয়া বন্ধ হয়ে যাবে। আর বিশাল ব্যাটারিটি একবার পুরো চার্জ করে নিলে স্ট্যান্ডবাই অবস্থায় ৬২ দিন, মিউজিক প্লেব্যাকে ১৮২ ঘণ্টা, গেমিংয়ে ১৭.৩ ঘণ্টা বা টানা ৭৬ ঘণ্টা ফোন কল করা যাবে।

এছাড়া ব্যবহারকারীরা ব্যাটারির সম্পূর্ণ ক্ষমতার প্রায় ৫ ভাগ চার্জ থাকা অবস্থায় আল্ট্রা পাওয়ার মোডে স্যুইচ করলে তারা অতিরিক্ত আরও সাড়ে তিন ঘণ্টা কল করার সুবিধা পাবেন। এর পাওয়ার ম্যারাথন প্রযুক্তির ফলে এর ২৫ ভাগ ব্যাটারি ব্যাকআপ পাওয়া যাবে যা দিয়ে ব্যবহারকারীরা সত্যিকার অর্থেই পুরো দিনজুড়ে নন-স্টপ গেমিং উপভোগের সুযোগ পাবেন।

মনোমুগ্ধকর ডিজাইন
হট ১০ এস সিরিজের কারুশিল্পকে পুরোপুরি আপগ্রেড করে ইনফিনিক্স হট পোর্টফোলিওটিকে পরবর্তী ধাপে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। ২৪০টি পৃথক দৃশ্যের তুলনামূলক পরীক্ষার মধ্যদিয়ে ফোনটিকে একটি সুন্দর মনোমুগ্ধকর টেক্সচার দেওয়ার জন্য এতে লেজার মাইক্রন লিথোগ্রাফি প্রযুক্তি প্রয়োগ করা হয়েছে। স্টাইলের সাথে মিলিয়ে গ্রাহকরা যাতে তাদের পছন্দের রঙের ডিভাইস কিনতে পারেন সেজন্য ইনফিনিক্স হট ১০ এস ফোনটি চারটি ভিন্ন আকর্ষণীয় রঙে – ৯৫ শতাংশ ব্ল্যাক, মোরান্ডি গ্রিন, হার্ট অব ওশেন এবং ৭ শতাংশ পার্পল- পাওয়া যাচ্ছে।

অ্যান্ড্রয়েড ১১ সাথে এক্সওএস ৭.৬ প্রযুক্তি
হট ১০ এস ফোনটিতে সাড়া জাগানিয়া ভিজ্যুয়াল ইন্টারফেস এবং স্মার্টার ইন্টারঅ্যাকশন ফিচারযুক্ত এক্সওএস ৭.৬ সিস্টেম সংযুক্ত করা হয়েছে। আইসল্যান্ডের গ্রিন অরোরা দ্বারা অনুপ্রাণিত হয়ে আগের ফোনটির তুলনায় নতুন এবং স্মার্ট ইন্টারফেস সহ অ্যান্ড্রয়েড ১১ এর উপর ভিত্তি করে সিস্টেমটি তৈরি করা হয়েছে। এক্সওএস ৭.৬ সিস্টেমটিকেও সাড়া জাগানিয়া ভিজ্যুয়াল ইন্টারফেস দেওয়া হয়েছে। উচ্চ-মানের অভিজ্ঞতা দিতে এতে নতুন করে সমন্বিত রিফ্রেশ আইকন, লাইভ ওয়ালপেপার এবং কালারফুল থিম ফিচার যুক্ত করা হয়েছে।

পরিশেষে, নির্ধারিত বাজেটের মধ্যে অন্যান্য স্মার্টফোনের সাথে ইনফিনিক্স হট ১০ এস এর প্রধান প্রধান দিক এবং ফিচারগুলোর তুলনা করলে বিনোদন এবং গেমিং স্মার্টফোনগুলোর মধ্যে একে অবশ্যই একটি শীর্ষস্থানীয় ডিভাইস হিসেবে বিবেচনা করতে হবে। আর এটি স্পষ্টতই বলা যায়, বর্তমানে বাজারের হার মানানো ‘১৫ হাজার টাকার বাজেটের সেরা গেমিং স্মার্টফোন’ হিসেবে গেমিংপ্রেমীরা নিঃসন্দেহে ইনফিনিক্স হট ১০ এস ফোনটিকেই বেছে নিবেন।