একটি গান দিয়েই প্রধানমন্ত্রীর মন জয়

প্রকাশিত: ৫:৩০ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ৯, ২০১৯ | আপডেট: ৫:৩০:অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ৯, ২০১৯
ছবি: সংগৃহীত

গানটি ইউটিউবে প্রকাশের পর থেকেই ভাইরাল হয়েছিলো। দেশের সব অঞ্চলেই বেজেছে এই গান। বিশেষ করে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মী ও সমর্থকেরা গানটিকে গ্রহণ করেছেন দারুণভাবে। অনেকের ফোনের রিংটোন ও ওয়েলকাম টিউন হিসেবেও শোনা গেছে এই গান।

দেশের গণ্ডি পেরিয়ে বিভিন্ন দেশে থাকা বাংলাদেশি প্রবাসীরাও গানটি লুফে নিয়েছেন। তারা গানটির ভিডিও শেয়ার করেছেন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে।

‘শেখ হাসিনার সালাম নিন/ নৌকা মার্কায় ভোট দিন/ জয় বাংলা/ জিতবে এবার নৌকা’- ডিসেম্বর মাসজুড়েই এই গান বেজেছে হাট-ঘাট-মাঠে বন্দরে। একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন উপলক্ষে আওয়ামী লীগের প্রচারণার জন্য এই গানটি তৈরি করেছিলেন একদল শিল্পী। এই গানের মাধ্যমে মুক্তিযুদ্ধের স্বপক্ষের শক্তি আওয়ামী লীগের বিভিন্ন সাফল্য তুলে ধরা হয়েছিল।

এ গানটি দিয়েই প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নজরে পড়েছেন গানটির পুরো টিম। গানটির কথা লিখেছেন তৌহিদ হোসেন। গানটিতে কণ্ঠ দিয়েছেন যৌথভাবে সরোয়ার ও জিএম আশরাফ। এর সঙ্গীতায়োজন করেছেন ডিজে তনু ও এলএমজি বিটস। সম্পাদনা ও কালার সমন্বয়ে ছিলেন মোহাম্মাদ হৃদয়। গানটির ভিডিওচিত্র প্রযোজনায়ও ছিলেন তৌহিদ হোসেন।

গত ২ ডিসেম্বর শুক্রবার গণভবনে পিঠা উৎসবে প্রধানমন্ত্রীর সাথে সাক্ষাত করেন আলোচিত ‘জয়বাংলা’ গানের সদস্যরা। এ সময় প্রধানমন্ত্রীর তাদের এ কাজকে প্রশংসাও করেন বলে জানিয়েছেন জয় বাংলা গানের টিম।

গানটি নিয়ে বেশ কিছু বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা গানটির সঙ্গে নেচে ফ্লাশমব তৈরি করেছেন। প্রথম গানটির সাড়া পাওয়ার পর এর সিক্যুয়াল ‘জিতলো আবার নৌকা’ গানটি প্রকাশ করা হয়। এই গানটিও রীতিমত আলোড়ন তুলেছে।

প্রধানমন্ত্রীর সাক্ষাৎ পেয়ে গানটির গীতিকার তৌহিদ হোসেন জানান, ‘প্রধানমন্ত্রীর সাক্ষাৎ পেয়ে আমরা সত্যিই অনেক আনন্দিত এবং গর্বিত। এর জন্য আমার পুরো টিম বিশেষ করে প্রধানমন্ত্রীর উপ-প্রেসসচিব আশরাফুল আলম খোকনের প্রতি কৃতজ্ঞ। একটি গান পুরো দেশের জনগণকে আনন্দিত করতে পারে। এটা সত্যিই প্রশংসনীয়-এমনই মন্তব্যে পেয়েছি প্রধানমন্ত্রীর কাছ থেকে। বাংলাদেশকে এগিয়ে নিতে আগামীতেও আমরা নতুন নতুন গান উপহার দিতে পারবো, ইনশাহাল্লাহ।’