একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনী প্রতীকে যা নিষিদ্ধ করল ইসি

টিবিটি টিবিটি

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ১২:৩৪ পূর্বাহ্ণ, অক্টোবর ২২, ২০১৮ | আপডেট: ১২:৩৪:পূর্বাহ্ণ, অক্টোবর ২২, ২০১৮
ফাইল ছবি

টিবিটি জাতীয়ঃএকাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে প্রার্থীর প্রচারণায় জীবন্ত প্রাণী ও কাপড়ের পোস্টার ব্যবহারে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়েছে । রোববার ইসির ৩৭তম কমিশন সভা শেষে ইসি সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ পরিবর্তনগুলো সম্পর্কে জানান।

ইসি সচিব জানান, নির্বাচনে অংশগ্রহণকারী রাজনৈতিক দলগুলো নির্বাচনী প্রতীক হিসেবে জীবন্ত প্রাণী ব্যবহার করতে পারবেন না। এ ছাড়া প্রচারণায় কাপড়ের পোস্টার ব্যবহারও নিষিদ্ধ করা হয়েছে।

হেলালুদ্দীন আহমদ বলেন, ‘আচরণ বিধিমালা সংশোধনের বিষয়ে দুটি প্রস্তাব অনুমোদন করা হয়েছে। এগুলো হলো, ৯-এর ‘ক’তে প্রতীক হিসেবে জীবন্ত প্রাণী ব্যবহার করা যাবে না। ওয়ার্ল্ড লাইফ রিজার্ভেশন অ্যাক্ট ১৯১২ এবং যারা পরিবেশবাদী তাদের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে এবং আইনের প্রতি শ্রদ্ধা রেখে এই নতুন ধারাটি সংযোজন করা হয়েছে।’

দ্বিতীয় সংযোজনের বিষয়ে ইসি সচিব বলেন, ‘পোস্টারের সংজ্ঞায় ছিল কাগজ, কাপড়, রেক্সিন ডিজিটাল ডিসপ্লে বা ইলেকট্রনিক মাধ্যমসহ অন্য যেকোনো মাধ্যমে প্রস্তুত করা কোনো প্রচারপত্র, প্রচারচিত্র, বিজ্ঞাপনচিত্র, বিজ্ঞাপনপত্র বা যেকোনো ধরনের ব্যানার ও বিলবোর্ড ব্যবহার করা যাবে। এখন থেকে শুধু কাপড় শব্দটি বাদ দেওয়া হয়েছে। কারণ কাপড় এখন আর ব্যবহার করা হয় না এবং আরপিওর সঙ্গে সংগতি রেখেই এটা করা হয়েছে।’

এদিকে রাষ্ট্রপতির সাক্ষাৎ চেয়ে নির্বাচন কমিশন চিঠি দিয়েছে। তার অগ্রগতি জানতে চাইলে হেলালুদ্দীন আহমদ বলেন, ‘রাষ্ট্রপতির কাছে সাক্ষাৎ চেয়ে নির্বাচন কমিশন (আমরা) আবেদন করেছি। লিখিতভাবে এখনো সময়সূচি জানানো হয়নি রাষ্ট্রপতির দপ্তর থেকে।

আমরা জানলে আপনাদের জানানো হবে। মহামান্য রাষ্ট্রপতির সাথে আমরা উনার অনুমতি নিয়েই তফসিল ঘোষণা করব। বর্তমানে যে আচরণ বিধিমালা আছে, ওই আচরণ বিধিমালা ওই দুটির সংযোজনসহ বাকি আচরণ বিধিমালাগুলো বলবৎ থাকবে। ’

হেলালুদ্দীন আহমদ আরো বলেন, ‘রাষ্ট্রপতির সঙ্গে সাক্ষাতের পর আরেকটি কমিশন সভা হবে। ওই সভাতেই তফসিলের বিষয়ে আলোচনা হবে।’