এখন বাসে চড়েই পাকিস্তান থেকে যাওয়া যাবে চীন

টিবিটি টিবিটি

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ১১:১৫ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ৪, ২০১৮ | আপডেট: ১১:১৫:অপরাহ্ণ, নভেম্বর ৪, ২০১৮
ছবিঃ সংগৃহীত

আগামীকাল সোমবার চালু হচ্ছে চীন-পাকিস্তান বাস সার্ভিস। এর মধ্য দিয়ে দু’দেশের মধ্যে বিনিয়োগ ও সহযোগিতার আরেক নতুন দিগন্ত উন্মোচিত হল।

জানা গেছে, পাকিস্তান-চীন বাস সার্ভিস নামে এ উদ্যোগের প্রথম বাস সোমবার রাত ১২টায় লাহোর থেকে ছাড়বে। তা যাবে চীনের জিনজিয়াং-এর কাশগড়ে। নিয়মিতভাবে চলবে এ বাস সার্ভিস। পথে সময় লাগবে দু’দিন। তার মধ্যে ভ্রমণ সময় হবে প্রায় ৩০ ঘন্টা। এর বাইরে রাত ৮টা থেকে রাত ২টা পর্যন্ত বিশ্রামের সময় থাকবে। রাত ১২টায় লাহোর থেকে বাস ছাড়ার পর ইসলামাবাদ পৌঁছে যাত্রীদের নাস্তা, উত্তরাঞ্চলীয় মানসেহরা শহরে চা পান, বিশামে দুপুরের খাবার, চিলাসে সন্ধ্যার চা পান ও গিলগিটে ডিনারের জন্য বাস যাত্রা বিরতি করবে। চেকিং-এর জন্য বাসটি খুনজেরাব পাস-এ থামবে।





বেসরকারী কোম্পানি শুজা গ্রুপের শুজা এক্সপ্রেস নামের এ বাস লাহোর থেকে সোম, মঙ্গল, শনি ও রোববার চীনের কাশগড়ের উদ্দেশে ছেড়ে যাবে। অন্যদিকে কাশগড় থেকে লাহোরের উদ্দেশে বাস ছাড়বে মঙ্গল, বুধ, বৃহস্পতি ও শুক্রবার। ভ্রমণের জন্য লাগবে বৈধ ভিসা, পাসপোর্ট, সিএনআইসি ও রিটার্ন টিকেট।

বাসে একমুখী টিকেটের মূল্য ১৩ হাজার রুপি (প্রায় ১০৫ ডলার) ও রিটার্ন টিকেটের মূল্য ২৩ হাজার রুপি (প্রায় ১৯০ ডলার)। লাহোর, রাওয়ালপিন্ডি ও ইসলামাবাদ থেকে বাসের টিকেট বুক করা যাবে। অনলাইনেও বুকিং চলবে। যাত্রীরা ১৫ কেজি পর্যন্ত মালামাল নিতে পারবেন। তার বেশি হলে তাদের অতিরিক্ত মাশুল দিতে হবে।





অন্যদিকে খায়বার ও গিলগিটে বিশ্রামাগারের ব্যয় টিকেটের মধ্যে থাকায় এ জন্য আলাদা টাকা দিতে হবে না। সম্পূর্ণ নতুন ও বিলাসবহুল একেকটি বাসে ১৫টি আসন থাকবে। তার অর্থ দীর্ঘ ভ্রমণে যাত্রীদের জন্য বাসে পর্যাপ্ত জায়গা রাখা হয়েছে। বাস কর্তৃপক্ষের আশা যে, দু’দিনের বাসযাত্রায় কোনো যাত্রী ক্লান্তি বোধ করবেন না। সে সাথে এটি হবে তাদের জন্য স্মরণীয় ভ্রমণ। সূত্র: এক্সপ্রেস ট্রিবিউন ও আইএনপি।