এবার মঙ্গলগ্রহ অভিযানে যাবে বাংলাদেশে তৈরি রোবট!

টিবিটি টিবিটি

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ৭:৪০ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ১৩, ২০১৯ | আপডেট: ৭:৪০:অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ১৩, ২০১৯

ফর্মুলা ওয়ানের ট্র্যাকে ম্যাকলারিন কিংবা ফেরারির সাথে টেক্কা দিচ্ছে বাংলাদেশের তৈরি রেসিং কার কিংবা মঙ্গলগ্রহের অচেনা পরিবেশের খবর জানাচ্ছে বাংলাদেশের তৈরি রোবট সে স্বপ্ন কতদূর তা হয়ত সময়ই স্বাক্ষ্য দিবে। তবে সেই স্বপ্নটা দেখারই সাহস যোগাচ্ছে রাজশাহী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের দুটি দল। যার ১টির নাম টিম ক্র্যাক প্লাটুন।

তাদের তৈরি একটি রেসিং কার অংশ নেয় জাপানের স্টুডেন্ট ফর্মুলা রেসিং এ। আর আরেকটি দল, যাদের নাম অগ্রদূত তারা মাত্র ৫ লাখ টাকায় সম্পূর্ণ দেশীয় প্রযুক্তিতে এমন একটি রোবট তৈরি করেছে, যা মঙ্গলগ্রহের ছবি ও তথ্য পাঠিয়ে সফলভাবে অভিযান চালাতে সক্ষম।

টেলিভিশনের কল্যানে এই রকম রেসিং কম্পিটিশন দেখা আমাদের জন্য অচেনা নয়। কিন্তু একবার ভাবুন তো এমন একটা কম্পিটিশনে যদি অংশ নেয় বাংলাদেশে তৈরি গাড়ি, বাংলাদেশের তরুণরা।

এমনটাই হয়েছে রাজশাহী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের টিম ক্র্যাক প্লাটুনের উদ্যোগে। তাদের তৈরি রেসিং কারটি তৈরি হয়েছিলো জাপানে অনুষ্ঠিত স্টুডেন্ট ফর্মূলা কার রেসিং প্রতিযোগীতার জন্য।

এ প্রজেক্টের তত্ত্বাবধায়ক শিক্ষকরা বলছেন, দেশের অটোমোবাইল খাতে বিশাল পরিবর্তন আনা সম্ভব এরকম ছোট ছোট উদ্যোগেই।

রুয়েটের টিম ক্র্যাক প্লাটুনের সাথে আলোচনায় এসেছে ১৯ সদস্যের টিম অগ্রদূত। মঙ্গলগ্রহে অভিযানের উপযোগী রোবট তৈরি করে বেশ সাড়া ফেলেছে দলটি। সদস্যরা বলছেন, তাদের তৈরি রোবটটি সফলভাবে মঙ্গলগ্রহে অভিযান চালাতে সক্ষম। ছবিসহ তথ্য পাঠানো ও আবহাওয়া পরিবেশ সম্পর্কেও ধারণা দিতে পারবে এটি।

শতভাগ দেশিয় প্রযুক্তিতে তৈরি এ রোবটটি তৈরিতে খরচ হয়েছে ৫ লাখ টাকা। বিশ্বের অন্যান্য দেশের রোবটের সাথে কোনো অংশেই কম নয় রুয়েটের এ রোবটটি।

আগামী বছর মঙ্গলগ্রহে অভিযানের জন্য বিশেষ রোবট পাঠানো হবে। ইউনিভার্সিটি রোভার চ্যালেঞ্জের আয়োজনে মার্কস সোসাইটি আমেরিকায় অনুষ্ঠিত প্রতিযোগীতায় অংশ নেয় এ রোবটটি।

Add Image