ঐক্যফ্রন্টকে যে আহ্বান জানালেন মাহি

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন

প্রকাশিত: ৭:২৯ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ৩, ২০১৯ | আপডেট: ৭:২৯:অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ৩, ২০১৯
বিকল্পধারার সিনিয়র যুগ্ম-মহাসচিব মাহি বি চৌধুরী। ফাইল ছবি

ঐক্যফ্রন্ট থেকে যারা একাদশ জাতীয় সংসদে সংসদ সদস্য হিসেবে নির্বাচিত হয়েছেন গণতন্ত্রের প্রাতিষ্ঠানিক রূপ দেওয়ার স্বার্থে তাদের শপথ বাক্য পাঠ করার আহ্বান জানিয়েছেন মুন্সীগঞ্জ-১ আসন থেকে নির্বাচিত বিকল্পধারার সিনিয়র যুগ্ম-মহাসচিব মাহি বি চৌধুরী।

তিনি বলেছেন, ঐক্যফ্রন্টের কাছে আমাদের একটি অনুরোধ থাকবে, মানুষের জন্য কাজ করার স্বার্থে তাদের সংসদে আসা উচিত। একটি অংশগ্রহণমূলক নির্বাচন অনুষ্ঠানে তাদের যথেষ্ট ভূমিকা ছিল। তারা নির্বাচনে না আসলে অংশগ্রহণমূলক নির্বাচন হতো না। গণতন্ত্রকে এগিয়ে নেয়ার জন্য তারা এখন পর্যন্ত যে কাজগুলো করেছে, আমি প্রত্যাশা করি গণতন্ত্রের প্রতিষ্ঠানিক রূপ দিতেও তারা কাজ করবে।

জনগণের সঙ্গে প্রতারণা না করার আহ্বান জানিয়ে বিএনপির সাবেক এ সংসদ সদস্য বলেন: জনগণ যেহেতু তাদের ভোট দিয়েছে তাদের সংসদে আসা উচিত। তারা যদি এখন শপথ গ্রহণ না করেন তাহলে জনগণের সঙ্গে প্রতারণা করা হবে। আমি বিশ্বাস করি তারা এ প্রতারণা করবেন না।

বৃহস্পতিবার জাতীয় সংসদে এগারোতম সংসদের সদস্যদের শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন।

মানুষ উন্নয়নের পক্ষে দাবি করে মাহি বলেন: মহাজোটের যে ম্যান্ডেট সেটা অনেক বড়, তাই দায়িত্বটা অনেক বেশি। মানুষের প্রত্যাশাও আমাদের প্রতি অনেক বেশি। আমরা যতটুকু ভাবছি তার চেয়েও অনেক বড় দায়িত্ব আমাদের পালন করতে হবে। যেহেতু পাঁচ ভাগের ভোটও বিরোধীদলের ব্যালটবাক্সে পড়েনি তার মানে সকলেই উন্নয়নের পক্ষে। দেশের সব মানুষই আমাদের সঙ্গে রয়েছে।

ইতিপূর্বে বিভিন্ন সময়ে রাজনীতিতে তার নানা পরিবর্তনের আহ্বান সাড়া ফেলেছিলো। এখন তার ভূমিকা কি হবে? জানতে চাইলে তিনি বলেন: আমাদের চিন্তা করতে হবে বিশেষ করে প্রজন্ম ভাবনা নিয়ে। আমরা যে কাজগুলো করেছি সেই চিন্তা ধারাকে আমাদের আইন প্রণয়নের ক্ষেত্রে প্রয়োগ করতে হবে। কিভাবে নতুন নতুন আইন তৈরি করতে পারি। যেগুলো প্রজন্মের মাথার ভেতর রয়েছে। সে বিষয়গুলো নিয়ে আমরা কাজ করব।

একাদশ জাতীয় সংসদে যারা মহাজোট থেকে নির্বাচিত হয়েছেন সময়টা তাদের জন্য চ্যালেঞ্জিং হবে দাবি করে মাহি বলেন: আমি মনে করি আগামী পাঁচ বছর একটি চ্যালেঞ্জিং সময় যাবে। সেম টাইম আমরা একটি নতুন দিগন্ত উন্মোচন করতে পারবো। চ্যালেঞ্জটা হচ্ছে ম্যান্ডেটটা আমাদের অনেক বড়। অনেক বড় মানুষের প্রত্যাশাটাও অনেক বেশি।

জাতীয় পার্টি যদি বিরোধী দলে যায় তাহলে তারা সংসদে শক্ত ভূমিকা রাখবে বলে প্রত্যাশা রাখেন তিনি।