করোনায় দিশেহারা যুক্তরাষ্ট্র, ভারতকে অস্ত্র বিক্রি করতে ব্যতিব্যস্ত ট্রাম্প

টিবিটি টিবিটি

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

প্রকাশিত: ৭:৪৭ অপরাহ্ণ, এপ্রিল ১৪, ২০২০ | আপডেট: ৭:৪৭:অপরাহ্ণ, এপ্রিল ১৪, ২০২০

করোনার প্রকোপে সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত এই মূহূর্তে যুক্তরাষ্ট্র। মৃত্যুর সংখ্যা ২৩ হাজার ছাড়িয়েছে। আক্রান্তের সংখ্যা ৬ লক্ষ ছুঁইছুঁই। দিশাহারা অবস্থা বিশ্বের সর্বশক্তিধর দেশের স্বাস্থ্য ব্যবস্থার। কিন্তু এই পরিস্থিতিতেও সমরাস্ত্রের ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছে মার্কিন মুলুক। ট্রাম্প  প্রশাসন সোমবারই ভারতকে বড়সড় অংকের অস্ত্র বিক্রির বিষয়ে সম্মতি দিয়েছে।

মার্কিন কংগ্রেসকে সরকার জানিয়েছে, তারা হারপুন ব্লক ২ মিসাইল এবং হালকা ওজনের টর্পিডো ভারতকে বিক্রি করতে বদ্ধপরিকর। এই সমরাস্ত্রগুলির আনুমানিক মূল্য ১৫৫ মিলিয়ন মার্কিন ডলার। ভারতীয় মুদ্রায় যা প্রায় ১১৮০ কোটি টাকা। করোনা আবহে ভারতকে অস্ত্র বিক্রির কথা প্রকাশ্যে আসতেই বিতর্কের সৃষ্টি হয়েছে মার্কিন কংগ্রেসে।

যে অস্ত্র ও সামরিক সরঞ্জাম আমেরিকা ভারতকে বিক্রি করবে সেগুলি হল ১০টি হারপুন ব্লক ২ মিসাইল, ১৬টি হালকা ওজনের এমকে-৫৪ টর্পিডো। সংশ্লিষ্ট অস্ত্রগুলি নিয়ে বিস্তারিত রিপোর্ট মার্কিন কংগ্রেসে পেশ করেছে ট্রাম্প প্রশাসন।

পেন্টাগন এও জানিয়েছে, ভারতের আবেদনেই এই সমরাস্ত্রগুলি বিক্রির সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। আমেরিকা তার বন্ধু দেশগুলিকে এই হারপুন মিসাইল বিক্রির সিদ্ধান্ত আগেই নিয়েছিল। এই মিসাইলগুলি পি-৮১ এয়ারক্রাফট থেকে মাটিতে যে কোনও লক্ষ্যবস্তুতে আঘাত হানতে সক্ষম। যৌথ মহড়ায় এই মিসাইলগুলি পরীক্ষাও করা হয়েছিল।

পেন্টাগন জানিয়েছে, অন্তর্দেশীয় সুরক্ষা ব্যবস্থা আরও মজবুত করতে এই মিসাইলগুলি ভারতের অনেক কাজে দেবে। এগুলি ব্যবহার করতে ভারতের সশস্ত্র বাহিনীর কোনও সমস্যা হবে না।

এমকে-৫৪ টর্পিডোগুলি জলপথে সাবমেরিন ধ্বংসের কাজে ব্যবহার করতে পারবে ভারত। এই মুহূর্তে এবং ভবিষ্যতে ভারত শত্রু মোকাবিলা দক্ষতরা সঙ্গে এই সমরাস্ত্রগুলির সাহায্যে করতে পারবে বলে আশাবাদী পেন্টাগন।

ভারত সফরে এসে সম্প্রতি যে অস্ত্রচুক্তি করেছিলেন আমেরিকার প্রেসিডেন্ট, তারই প্রথম ধাপ হিসাবে এই অস্ত্রগুলি বিক্রির সিদ্ধান্ত। তবে এই মূহূর্তে আমেরিকা করোনার মতো মারণ জীবাণুর সঙ্গে লড়াই করছে বাকি দেশগুলির মতো। যেখানে সবচেয়ে বেশি মৃত্যু হয়েছে আমেরিকায়, সেই দেশের প্রতিরক্ষা দপ্তর কীভাবে এই সংকটের মুহূর্তে ভারতকে অস্ত্র বিক্রি নিয়ে ব্যতিব্যস্ত হতে পারে তা নিয়ে সমালোচনা তীব্র হচ্ছে।