কলেজ অধ্যক্ষকে লাঞ্চিত করে ছাত্রলীগের সভাপতি ও তার সহযোগিরা

প্রকাশিত: ৯:০১ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১১, ২০১৯ | আপডেট: ৯:০১:অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১১, ২০১৯
ছবি: টিবিটি

জি এম মুজিবুর রহমান, আশাশুনি (সাতক্ষীরা) প্রতিনিধি: আশাশুনি সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ মিজানুর রহমানকে লাঞ্চিত ও তার অফিস কক্ষ ভাংচুরের ঘটনায় কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি আশরাফুজ্জামান তাজসহ ২ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

অধ্যক্ষ মিজানুর রহমান জানান, গত শনিবার (৮ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যায় তিনি কলেজে নিজ কক্ষে বসে কয়েকজন সহকর্মীর সাথে অফিসিয়াল কাজ করছিলেন। এসময় এক যুবক সেখানে গিয়ে তাকে সালাম দিয়ে একটু কক্ষের বাইরে আসতে বলে।

তিনি বাইরে যাবার সাথে সাথে তার সামনে তাজ, আল মামুনসহ প্রায় ৭/৮ জন অন্য একটি ছেলেকে বেদম মারপিট করতে থাকে। কারন জানতে চাইলে তারা ঐ যুবক সাতক্ষীরা থেকে একটি মেয়েকে কলেজ ক্যাম্পাসের মধ্যে এনে অনৈতিক আচরণ করেছে বলে অভিযোগ করে।

তিনি ছেলেটিকে আর মারপিট না করে তার কাছে হেফাজতে নিয়ে তাদের অভিভাবকদের ডেকে আনিয়ে ছেলেটিকে পুলিশের হাতে তুলে দেন। কিন্তু ছেলেটিকে তাদের হাতে না দিয়ে পুলিশে দেওয়ায় কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি আশরাফুজ্জামান তাজ, তার সহযোগী শাওন, আল মামুন ও সাইফুল্লাহসহ ৭/৮ জন ছাত্র তার (অধ্যক্ষ) কক্ষ ভাংচুর করে এবং তাকে লঞ্চিত করে।

সহকর্মীরা ঠেকাতে গেলে তাদেরকেও লাঞ্চিত করা হয়। অধ্যক্ষ আরও বলেন, তিনি বিষয়টি উপজেলা নির্বাহী অফিসারকে করেছেন এবং তাদের নাম উল্লেখ করে থানায় অভিযোগ দায়ের করলে পুলিশ ১০(৯)১৯ নং মামলা রুজু করেন।

আশাশুনি থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ আব্দুস সালাম জানান, অধ্যক্ষ মিজানুর রহমান বাদি হয়ে থানায় মামলা দিলে কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি অভিযুক্ত আশরাফুজ্জামান তাজ ও তার সহযোগি আল মামুনকে সোমবার রাতেই গ্রেফতার করা হয়েছে।

মঙ্গলবার তাদেরকে আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে। বর্তমানে পরিস্থিতি শান্ত রয়েছে। জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ সাদিকুর রহমান জানান, তাজ ও অন্যদের বিরদ্ধে অভিযোগের সত্যতা নিশ্চিত হলে তাদের বিরুদ্ধে সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেওয়া হবে।