‘কালো’ বলায় খাবারে বিষ, তারপর…

টিবিটি টিবিটি

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

প্রকাশিত: ৭:১০ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ২৬, ২০১৮ | আপডেট: ৭:১০:অপরাহ্ণ, অক্টোবর ২৬, ২০১৮
প্রতীকী ছবি

২৮ বছর বয়সী গৃহবধূর গায়ের রঙ কালো। রান্না করতে গিয়ে হয়তো কখনও এদিক সেদিক হয়ে যায়। আর এ নিয়েই ঠাট্টা উপহাস করে কয়েকজন স্বজন। রাগে খাবারেই বিষ মিশিয়ে দেন ওই গৃহবধূ। এতে চার শিশুসহ পাঁচ জন মারা গেছে।

চাঞ্চল্যকর এই ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের মহারাষ্ট্রের রাইগাদ জেলায়। সেখানকার মাহাদ জেলায় বিষ প্রয়োগে হতাহতের এই ঘটনা ঘটে। একই ঘটনায় ১২০ জন অসুস্থ অবস্থায় হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন। ওই গৃহবধূর নাম প্রজ্ঞা সুরভাসে।

স্থানীয়দের বরাত দিয়ে রাইগাদ জেলার পুলিশ জানায়, দুই বছর আগে বিয়ে হয় প্রজ্ঞা সুরভাসের। আর শারীরিক বর্ণ কালো হওয়ায় অনেকদিন থেকেই আত্মীয়স্বজনদের কটু কথা শুনে আসছিলেন এই গৃহবধূ। এমনকি তার রান্না করা খাবার নিয়েও করা হতো ঠাট্টা উপহাস। আর এসব কারণে ক্ষোভের বশবর্তী হয়ে শেষ পর্যন্ত খাবারে কীটনাশক মিশিয়ে নিজের রাগ উগড়ে দেন প্রজ্ঞা।

পুলিশ আরও জানায়, অনেকদিন থেকেই প্রজ্ঞা তার স্বজনদের ‘উচিত জবাব’ দেওয়ার সুযোগ খুঁজছিলেন। গত রবিবার পারিবারিক এক অনুষ্ঠানে রান্নার দায়িত্ব পেয়ে সেই সুযোগ পেয়েও যান তিনি। তার আত্মীয় সুভাস মানে’র বাড়িতে অনুষ্ঠিত ঐ আয়োজনে অতিথিদের খাবারে কীটনাশক মিশিয়ে দেন প্রজ্ঞা।

জেলার পুলিশ সুপার অনিল পরস্কার গণমাধ্যমকে জানান, “তিনি (প্রজ্ঞা) খাবারে বিষ মেশানোর কথা স্বীকার করেছেন। তার স্বজনদের কটূক্তির কারণেই তিনি এমনটা করেছেন বলে জানিয়েছেন। ওনার স্বজনের বাসা থেকে কীটনাশকও উদ্ধার করেছি আমরা। পরবর্তী অনুসন্ধান চলছে”।

ইতোমধ্যে প্রজ্ঞার বিরুদ্ধে হত্যা মামলা দায়ের করেছে পুলিশ।

সূত্রঃ এনডিটিভি