কুয়াকাটায় ছাত্রলীগের পদবঞ্চিতদের বিক্ষোভ মিছিল, সড়ক অবরোধ

টিবিটি টিবিটি

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ৫:৫৪ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ৭, ২০১৮ | আপডেট: ৫:৫৪:অপরাহ্ণ, অক্টোবর ৭, ২০১৮

কুয়াকাটার মহিপুর থানা ও কুয়াকাটা পৌর ছাত্রলীগের কমিটি বাতিল চেয়ে পদবঞ্চিত ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা আবারও রাস্তায় নেমেছে। বিক্ষোভ মিছিল, সড়ক অবরোধ ও প্রতিবাদ সভা করেছে তারা। ব্যানার ও বিভিন্ন স্লোগান সংবলিত ফেস্টুন নিয়ে জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের বিরুদ্ধে অর্থ বাণিজ্যের অভিযোগ এনে সদ্যঘোষিত মহিপুর থানা কমিটি বাতিল করে পুনরায় কমিটি গঠনের আহ্বান জানায় তারা।

রোববার দুপুরে পটুয়াখালীর মৎস্যবন্দর আলীপুর বাজারে বিক্ষোভ মিছিল ও সড়ক অবরোধ করে এ সভা করা হয়। এ সময় প্রায় ঘণ্টাব্যাপী মহাসড়ক অবরোধ করে আলীপুর থ্রি-পয়েন্টে প্রতিবাদ সভা করা হয়।

প্রতিবাদ সভায় বক্তব্য রাখেন- ছাত্রলীগ নেতা সাদ্দাম হোসেন, মহিপুর মুক্তিযোদ্ধা মেমোরিয়াল কলেজ শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি সোহেল খান, ধুলাসার ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদ পারভেজ মাহমুদ, আলীপুর বাজার ইউনিট কমিটির সভাপতি মনিরুজ্জামান ও সাধারণ সম্পাদক অলি আহম্মেদ জিয়া প্রমুখ।

এ সময় বক্তারা বলেন, পটুয়াখালী জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক ওমর ফারুক মো. ইকবাল হোসেন ভুইয়া মোটা অংকের টাকার বিনিময়ে সোয়াইব খানকে সভাপতি ও সাইদুর রহমান সবুজ ভুইয়াকে সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত করে মহিপুর থানা ছাত্রলীগ কমিটি দিয়েছেন। তৃণমূল নেতাকর্মীদের কোনো মতামত অথবা কাউন্সিল ছাড়াই জেলায় বসে কমিটি ঘোষণা করার মাধ্যমে ছাত্রলীগের নীতি-আদর্শ বহির্ভূত কাজ করেছেন।

তাই এ কমিটিকে ভুয়া বলে আখ্যায়িত করে স্লোগান দেন স্থানীয় নেতাকর্মীরা। ছাত্রলীগ নেতাকর্মীরা এ সময় দাবি করেন, জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক ওমর ফারুক কুয়াকাটা পৌর ছাত্রলীগের সভাপতি মজিবুর রহমানকে মহিপুর থানা সভাপতি দেয়ার কথা বলে সাড়ে ৯ লাখ টাকা নিয়েও কমিটি অন্যত্র বিক্রয় করেছেন।

ছাত্রলীগ নেতাকর্মীরা কেন্দ্রীয় কমিটির নেতৃবৃন্দের কাছে সদ্যঘোষিত মহিপুর থানা কমিটি ও কুয়াকাটা পৌর ছাত্রলীগের কমিটি ভেঙে কাউন্সিলের মাধ্যমে পুনরায় কমিটি গঠনের দাবি জানান।

উল্লেখ্য, মহিপুর থানা ছাত্রলীগের কমিটি নিয়ে পদবঞ্চিত নেতাকর্মীরা সদ্যঘোষিত কমিটি প্রত্যাখান করে প্রায় এক মাস ধরে বিভিন্ন কর্মসূচি পালন করে আসছেন। তাদের দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত আন্দেলন চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণা দেন বিক্ষুব্ধ ছাত্রলীগ কর্মীরা।