কেন শপথ অনুষ্ঠানে যাননি জাপার শীর্ষ নেতারা?

টিবিটি টিবিটি

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ১:০৭ পূর্বাহ্ণ, জানুয়ারি ৮, ২০১৯ | আপডেট: ১:০৭:পূর্বাহ্ণ, জানুয়ারি ৮, ২০১৯

একাদশ জাতীয় সংসদের মন্ত্রিসভার শপথ উপলক্ষে বঙ্গভবনে ঢোকার জন্য দুপুরের পর থেকেই ভিড় জমছিল। প্রায় হাজার খানেক অতিথি আমন্ত্রণ পেয়েছিলেন। শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠান শুরু হওয়ার বেশ আগেই দরবার হল পরিপূর্ণ।

তাদের মধ্যে আওয়ামী লীগ এবং তাদের সমর্থক বিভিন্ন পেশাজীবী এবং অঙ্গ সংগঠনের নেতাদের সংখ্যাই বেশি। আওয়ামী লীগের যে সিনিয়র নেতারা এবার মন্ত্রিসভায় ডাক পাননি, তাদের অনেককেই দেখা গেছে শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠানে।

তবে শপথ অনুষ্ঠানে যাননি জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান এইচএম এরশাদ, দশম জাতীয় সংসদের বিরোধী দলীয় নেতা রওশন এরশাদ এবং দলটির কো-চেয়ারম্যান জিএম কাদের।

সোমবার (৭ জানুয়ারি) বিকেলে বঙ্গভবনে প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শেখ হাসিনাসহ মন্ত্রিসভার ৪৭ জন সদস্য শপথ নেন।

জাপা’র কো-চেয়ারম্যান জিএম কাদের এ বিষয়ে বলেন, ‘‘অসুস্থ থাকার কারণে এরশাদ বঙ্গভবনের অনুষ্ঠানে যোগ দিতে পারেননি। আমাদের চেয়ারম্যান শনিবার রাত থেকে ঢাকার সিএমএইচে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। তবে ম্যাডাম (রওশন) কি কারণে অনুষ্ঠানে যাননি, তা আমি জানি না।’’

কিন্তু জিএম কাদেরের যাওয়ার ইচ্ছা থাকলেও আমন্ত্রণপত্র না পাওয়ায় যেতে পারেননি বলি জানান তিনি।

তিনি জানান, সিঙ্গাপুরে দীর্ঘদিন চিকিৎসা শেষে নির্বাচনের মাত্র কয়েকদিন আগে দেশে ফেরা জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান এরশাদ আগামী ১৮ জানুয়ারি চিকিৎসার জন্য আবারও সিঙ্গাপুর যেতে পারেন।

জাতীয় পার্টির শীর্ষ নেতারা নতুন মন্ত্রিসভায় শপথ না নিলেও দলটির সংসদ সদস্য ফখরুল ইমাম জানান, তিনিসহ দলের পাঁচজন সহকর্মী শপথগ্রহণ অনুষ্ঠানে যোগ দিয়েছেন।

এর আগে ২০১৪ সালের ১২ জানুয়ারি ১০ম জাতীয় সংসদের মন্ত্রিসভার শপথগ্রহণ অনুষ্ঠানে এরশাদ ও রওশন উভয়ই যোগ দিয়েছিলেন। ওই মন্ত্রিসভায় তাদের পার্টির তিনজন সদস্য ছিল। তবে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের পরে পার্টির চেয়ারম্যান এরশাদ জানান, তার দল জাতীয় পার্টি এবার বিরোধী দলের ভূমিকা পালন করবে। তার এ সিদ্ধান্ত বিজ্ঞপ্তি আকারে গত ৪ জানুয়ারি গণমধ্যমেও পাঠান তিনি।