ক্লাস নিতে শিক্ষকদের অনীহা, শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ

টিবিটি টিবিটি

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

প্রকাশিত: ৮:১৬ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ১০, ২০১৮ | আপডেট: ৮:১৬:অপরাহ্ণ, অক্টোবর ১০, ২০১৮
শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ। প্রতিকী ছবি

শিক্ষকরা নিয়মিত কলেজে আসছেন না। আসলেও অনেকেই ক্লাস না নিয়ে সময় কাটিয়ে চলে যাচ্ছেন। শিক্ষকদের গড়িমসিতে ক্ষতি হচ্ছে পঠন-পাঠনে। মঙ্গলবার এ ধরনের অভিযোগে বিক্ষোভ করেছেন ভারতের বর্ধমানের কালনা কলেজের ছাত্রছাত্রীরা।

মঙ্গলবার বেলা সাড়ে ১১টা নাগাদ কলেজের ছাত্রছাত্রীরা নিজেদের ক্লাস থেকে বেরিয়ে শিক্ষকদের কক্ষের সামনে জমায়েত হন। কয়েকজন শিক্ষকের নাম করে তারা অভিযোগ করেন, ওই শিক্ষকরা নিয়মিত সংস্কৃত, বাংলা এবং দর্শনের ক্লাস নিচ্ছেন না।

ক্ষুব্ধ ছাত্রছাত্রীদের দাবি, বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের নিয়ম অনুযায়ী কলেজ খোলা থাকলে একজন শিক্ষককে সপ্তাহে পাঁচ দিন পাঁচ ঘণ্টা হাজির থাকতে হয়। অথচ দেখা যাচ্ছে অনেকে কলেজে আসছেন দেরি করে, কেউ কেউ কলেজ ছুটির অনেকে আগেই চলে যাচ্ছেন।

ধারাবাহিকভাবে এমন ঘটনা ঘটার ফলে সেমিস্টারের আগে ক্ষতি হচ্ছে বলেও ছাত্রছাত্রীদের অভিযোগ। দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্রী দিশারি চক্রবর্তী বলেন, সামনেই পরীক্ষা। শিক্ষকরা ঠিক মতো ক্লাসে না আসায় সমস্যা হচ্ছে।

বাপ্পা বিশ্বাস, অর্পিতা পাল, দীপঙ্কর বিশ্বাসদের দাবি, শিক্ষকদের গড়িমসিতে টানা ক্লাস হয় না। এভাবে চলতে থাকলে অনেকেরই কলেজে আসার মানসিকতা নষ্ট হয়ে যাবে।

বিষয়টি নিয়ে কলেজ অধ্যক্ষ তাপস কুমার সামন্তর সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, ইউজিসির নিয়ম অনুযায়ী কলেজ শিক্ষককে সপ্তাহে পাঁচ দিন পাঁচ ঘণ্টা কলেজে থাকতে হয়। নোটিস টাঙিয়ে এই নিয়মটি জানিয়ে দেওয়া হচ্ছে।

কলেজ সূত্রে জানা গেছে, আগেও ওই কলেজ অধ্যক্ষ এই ধরনের নোটিস টাঙিয়ে দিয়েছিলেন। তাতে সাময়িক কাজ হলেও কিছু দিন পরে অনিয়ম শুরু করে দেন একদল শিক্ষক।

কলেজের এক ছাত্র নেতার কথায়, ছাত্রছাত্রীরা এই অভিযোগ নিয়ে আমাদের কাছে মাঝেমধ্যেই আসে। অধ্যক্ষও এর আগে চেষ্টা করেছিলেন। তবে সফল হননি। এবার কী হয় দেখা যাক।