ক্ষেপণাস্ত্র শক্তি কারো সঙ্গে আলোচনার জন্য নয় : ইরান

প্রকাশিত: ৪:০৮ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১০, ২০১৮ | আপডেট: ৪:০৮:অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১০, ২০১৮

ইরানের সাবেক প্রতিরক্ষামন্ত্রী ও সর্বোচ্চ নেতার অন্যতম সামরিক উপদেষ্টা ব্রিগেডিয়ার জেনারেল হোসেইন দেহকান বলেছেন, তার দেশের ক্ষেপণাস্ত্র শক্তি নিয়ে কারো সঙ্গে আলোচনা করা হবে না; এটা কারো সঙ্গে আলোচনার বিষয়বস্তু নয়।

তিনি বলেন, ইরানের ক্ষেপণাস্ত্র সক্ষমতা সম্মান, স্বাধীনতা ও জাতীয় আস্থার বিষয়। তিনি আরো বলেন, “যদি মর্কিন কর্মকর্তারা মনে করে থাকেন যে, তারা আমাদের সঙ্গে ইরানের ক্ষেপণাস্ত্র শক্তি নিয়ে আলোচনা করবেন তাহলে সেটা তাদের স্বপ্নচারিতা এবং সেটা তাদের ভুল হিসাব।”

ইরানের ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র

রাশিয়া টুডে-কে দেয়া সাক্ষাৎকারে জেনারেল দেহকান এসব কথা বলেছেন। গতকাল (রোববার) তার এ সক্ষাৎকার প্রকাশিত হয়। তিনি সুস্পষ্ট করে বলেন, “আমরা কখনো কোনো অবস্থায়ই আমাদের ক্ষেপণাস্ত্র ব্যবস্থা নিয়ে আলোচনা করব না।”

এ সময় তিনি আমেরিকা, ইসরাইল ও সৌদি আরবের নেতৃত্বে মধ্যপ্রাচ্যের বিভিন্ন দেশের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র সম্পর্কে হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করেন। তিনি জানান, ইরানের বিরুদ্ধে সরাসরি যুদ্ধে জড়ানোর সিদ্ধান্ত নেই ইসরাইল ও আমেরিকার।

রাশিয়াকে টপকে গেল ইরান
ইরানের এস-৩০০ ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা রাশিয়ার একই ধরনের ব্যবস্থার চেয়ে বেশি নিখুঁত বলে জানিয়েছে তেহরান। ইরানের সুপ্রিম ন্যাশনাল ডিফেন্স ইউনিভার্সিটির চ্যান্সেলর ও সাবেক প্রতিরক্ষামন্ত্রী ব্রিগেডিয়ার জেনারেল আহমাদ ওয়াহিদি এ তথ্য জানিয়েছেন।

তিনি রোববার তেহরানে প্রতিরক্ষা বিষয়ক এক সম্মেলনে বলেন, তার দেশের এস-৩০০ প্রতিরক্ষা ব্যবস্থার ক্ষেপণাস্ত্র, রাডার, লাঞ্চার ও এটি বহনকারী সামরিক যান সম্পূর্ণ ইরানের নিজস্ব প্রযুক্তিতে দেশের ভেতরেই তৈরি হয়।

তুলনা করলে ইরানের এ ব্যবস্থা রাশিয়ার একই ব্যবস্থার চেয়ে বেশি নিখুঁত ও কার্যকর বলে তিনি উল্লেখ করেন।

ব্রিগেডিয়ার জেনারেল আহমাদ ওয়াহিদি

জেনারেল আহমাদ ওয়াহিদি বলেন, ইরানের প্রতিরক্ষা শিল্পের গবেষক ও কর্মীরা গত ছয় বছর ধরে অক্লান্ত পরিশ্রমের পর এস-৩০০ ব্যবস্থা তৈরি করতে সক্ষম হয়েছেন এবং এটি তেহরানের জন্য একটি বিশাল সাফল্য।

বিজ্ঞান, শিল্প ও প্রযুক্তির দিক দিয়ে ইরান একটি ব্যাপক পরিবর্তনের দ্বারপ্রান্তে রয়েছে বলে উল্লেখ করে ইরানের সুপ্রিম ন্যাশনাল ডিফেন্স ইউনিভার্সিটির চ্যান্সেলর তার দেশের প্রতিরক্ষা শিল্প খাতে জড়িত গবেষক ও কর্মীদের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানান।