খাদের কিনারায় দাঁড়িয়ে ইমরুলের দুর্দান্ত শতক

টিবিটি টিবিটি

স্পোর্টস ডেস্ক

প্রকাশিত: ৫:৫৫ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ২১, ২০১৮ | আপডেট: ৫:৫৫:অপরাহ্ণ, অক্টোবর ২১, ২০১৮

শুরু থেকেই যাওয়া-আসার মধ্যে আছেন বাংলাদেশ ব্যাটসম্যানরা। একপর্যায়ে ১৩৯ রানে ৬ উইকেট হারিয়ে ধ্বংসস্তূপে পরিণত হয় স্বাগতিকরা। সেখানে অবিচল ইমরুল কায়েস। ধ্বংসস্তূপের ওপর দাঁড়িয়ে লড়ে যাচ্ছেন তিনি।

ইনিংস ওপেন করতে নেমে যখন তিন অংকে পৌঁছলেন, তখন উইকেটে তার সঙ্গী ৮ নম্বর ব্যাটসম্যান সাইফউদ্দিন। দীর্ঘদিন পর ওপেনিং পজিশনে ব্যাটিং করতে নেমেছেন ইমরুল। তার সঙ্গী ব্যাটসম্যানরা আসা যাওয়ার প্রতিযোগিতায় নেমেছিলেন। এমন বিরূপ পরিস্থিতিতে দাঁড়িয়ে ১১৮ বলে ৮ চার এবং ৩ ছক্কায় ক্যারিয়ারের তৃতীয় সেঞ্চুরি তুলে নেন ইমরুল কায়েস।

আজ রোববার মিরপুর শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে টস জিতে প্রথমে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেন টাইগার দলনায়ক। ম্যাচের গোড়াপত্তন করতে নামেন লিটন দাস ও ইমরুল কায়েস। তবে শুভসূচনা এনে দিতে পারেননি তারা। শুরুতেই টেন্ডাই চাতারার শিকারে পরিণত হন লিটন।

পরে ক্রিজে আসেন ফজলে মাহমুদ রাব্বি। তবে অভিষেকটা রাঙাতে পারেননি তিনি। একই বোলারের তোপে শূণ্যরানে সাজঘরে ফেরেন এই বাঁহাতি ব্যাটসম্যান। ফলে বেশ চাপে পড়ে যায় বাংলাদেশ। মুশফিকুর রহিমকে নিয়ে সেই ধাক্কা কাটিয়ে উঠার চেষ্টা করলেও শেষপর্যন্ত আর পেরে ওঠেননি মুশফিক। দলীয় ৬৬ রানে ব্রেন্ডন মাভুতার বলে হার মানেন তিনি। ফলে চাপ বাড়তেই থাকে বাংলাদেশের।

সেখান থেকে মোহাম্মদ মিথুনকে নিয়ে নিয়ে চাপ কাটিয়ে উঠেন ইমরুল। যোগ্য সহযোদ্ধার সমর্থন দিচ্ছেলেন মিথুন। ৬৪ বলে ৫ চার ১ ছক্কায় ক্যারিয়ারের ১৬তম হাফ সেঞ্চুরি তুলে নেন অনেকদিন পর ওপেন করতে নামা ইমরুল। তার সঙ্গী হয়ে হাত খুলে মারতে থাকেন মোহাম্মদ মিঠুন। কিন্তু ১ চার ৩ ছক্কায় ৩৭ রানেই থামতে হয় তাকে। এরপর উইকেটে এসেই জার্ভিসের বলে ‘ডাক’ মেরে ফিরেন মাহমুদউল্লাহ।

১৩৭ রানে ৫ উইকেট হারানোর পর দলকে ভরসা দিতে পারেননি মেহেদী হাসান মিরাজও। ২ রান স্কোরবোর্ডে যোগ হতেই ১ রান করে জার্ভিসের তৃতীয় শিকার হন তিনি। সঙ্গীহীন হয়ে পড়া ইমরুলকে সঙ্গ দিয়ে যান সাইফউদ্দিন। দুজনের জুটি অর্ধশত রান অতিক্রম করে। ৪৫.৪ ওভারে বাংলাদেশের সংগ্রহ ৬ উইকেটে ২৩১ রান।

বাংলাদেশ একাদশ:
লিটন দাস, ফজলে মাহমুদ রাব্বি, ইমরুল কায়েস, মুশফিকুর রহিম, মাহমুদউল্লাহ, মোহাম্মদ মিঠুন, নাজমুল ইসলাম অপু, মেহেদী হাসান মিরাজ, মাশরাফি বিন মুর্তজা, মোহাম্মদ সাইফ উদ্দিন, মুস্তাফিজুর রহমান।