চট্টগ্রামে বেসরকারি ভাবে জয়লাভ করেন যারা—-

টিবিটি টিবিটি

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ১১:০০ পূর্বাহ্ণ, ডিসেম্বর ৩১, ২০১৮ | আপডেট: ১১:০০:পূর্বাহ্ণ, ডিসেম্বর ৩১, ২০১৮
ছবি: টিবিটি

এস এম আকাশ, বিভাগীয় ব্যুরো চীফ চট্টগ্রাম: চট্টগ্রাম-১ (মিরসরাই) আসনের ১০৪টি কেন্দ্রের মধ্যে ১০১টির ফলাফলে আওয়ামী লীগের ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন ১ লাখ ৬৭ হাজার১৮১, গণফোরামের নুর উদ্দীন আহমদ ২০৫, বিএনপির নুরুল আমিন ৩ হাজার ৩২৯, ইসলামিক ফ্রন্টের আবদুল মান্নান ১ হাজার ৮১২, ইসলামী আন্দোলনের শামছুদ্দীন ৭৮৩ ও মুসলীম লীগের শেখ জুলফিকার চৌধুরী বুলবুল পেয়েছেন ১১২ ভোট। সর্বশেষ আপডেট ফলাফলে নৌকা প্রতিকই বেসরকারি ভাবে ইঞ্জিনিয়র মোশাররফ হোসেন জয়লাভ করেন ।

চট্টগ্রাম-২ (ফটিকছড়ি) আসনের ১৩৬টি কেন্দ্রের মধ্যে ১৩১টির ফলাফলে আওয়ামী লীগ তথা মহাজোটের সৈয়দ নজিবুল বশর মাইজভান্ডারী ১ লাখ ৭৮ হাজার ৫০১, বিএনপির আজিম উল্লাহ বাহার ১২ হাজার ৯৪৭, ইসলামী ফ্রন্টের সাইফুদ্দীন মাইজভান্ডারী ২ হাজার ২১০, ইসলামী আন্দোলনের আতিক ১১২, ইসলামিক ফ্রন্টের ফেরদৌস আলম ৭০, জাতীয় পার্টির জহিরুল ইসলাম রেজা ৯১ ও স্বতন্ত্র এটিএম পেয়ারুল ইসলাম পেয়েছেন ৭৩ ভোট। সর্বশেষ আপডেট ফলাফলে নৌকা প্রতীকে জনগণের রায় বেসরকারি ভাবে সৈয়দ নজিবুল বশর মাইজভাণ্ডারি বেসরকারি ভাবে জয়লাভ করেন ।

চট্টগ্রাম-৩ (সন্দ্বীপ) আসনের ৭৯টি কেন্দ্রের ৭৫ টির ফলাফলে আওয়ামী লীগের মাহফুজুর রহমান মিতা ১ লাখ ৩৫ হাজার ৩৭৩, বিএনপির মোস্তাফা কামাল পাশা ৫ হাজার ৬১১, ইসলামী আন্দোলনের মনসুরুল হক ২ হাজার ৬৯১, এনপিপির মুকতাদের আজাদ খান ১ হাজার ১৯৮ ও কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের সেলিম উদ্দীন হায়দার ১৯৩ ভোট পেয়েছেন। সর্বশেষ আপডেট ফলাফলে নৌকা প্রতীকেই বর্তমান সাংসদ মাহফুজুর রহমান মিতা বেসরকারি ভাবে জয়লাভ করেন ।

চট্টগ্রাম-৪ (সীতাকুণ্ড) আসনে সর্বমোট ১০৮ টি কেন্দ্রের মধ্যে ১০৫ টির ফলাফলে দেখা যায় নৌকা প্রতীকের বর্তমান সাংসদ দিদারুল আলম ১ লাখ ৭৭ হাজার ৪৪৫। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির আসলাম চৌধুরী ধানের শীষে ৪৫ হাজার ৩৩২ ভোট । লাঙ্গলের প্রতিকে জাতীয় পার্টির দিদারুল কবির ১২৫০ ,এবং মোমবাতি, চেয়ার ও হাতপাখা প্রতিকে সর্ব মোট ৫৬৭৮ ভোট। সর্বশেষ আপডেট ফলাফলে নৌকা প্রতীকেই বর্তমান সাংসদ দিদারুল আলম বেসরকারি ভাবে জয়লাভ করেন

চট্টগ্রামে-৫ (হাটহাজারী) আসনে ১৪০ টি ভোট কেন্দ্রের মধ্যে ১৩৮ টির ফলাফলে দেখা যায় লাঙ্গল প্রতীকে বর্তমান সাংসদ আওয়ামী লীগ তথা মহাজোট মনোনীত প্রার্থী ব্যারিস্টার আনিসুল ইসলাম মাহমুদ ২ লাখ ৭৭ হাজার ৯০৯ ভোট ।

তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির তথা ঐক্যফ্রন্টের মনোনীত প্রার্থী কল্যান পার্টির চেয়ারম্যান সৈয়দ মুহম্মদ ইব্রাহিম ধানের শীষের প্রতিকে ৪৪ হাজার ৩৮১ ভোট । মোমবাতি প্রতিকে নাঈমুল ইসলাম ৮৭৪১ , হাতপাখা প্রতিকে মোহাম্মদ রফিক ১৪১৯ ভোট । চেয়ার প্রতিকে সৈয়দ হাফিজ আহাম্মদ ১৭৪৫ ভোট । সর্বশেষ আপডেট ফলাফলে নাঙ্গল প্রতীকেই বর্তমান সাংসদ ব্যারিস্টার আনিসুল ইসলাম মাহমুদ বেসরকারি ভাবে জয়লাভ করেন ।

চট্টগ্রাম-৬ (রাউজান) আসনের ৮৪ কেন্দ্রের মধ্যে ৭৯টির ফলাফলে দেখা যায়, আওয়ামী লীগের এবিএম ফজলে করিম ১ লাখ ২৭ হাজার ৫০৪, বিএনপির জসিম সিকদার ১৩৩৪ ও ইসলামী আন্দোলনের আব্দুল আলী পেয়েছেন ৬৫ ভোট, সর্বশেষ আপডেট ফলাফলে নৌকা প্রতীকেই বর্তমান সাংসদ এ বি এম ফজলে করিম চৌধুরী বেসরকারি ভাবে জয়লাভ করেন।

চট্টগ্রাম-৭(রাঙ্গুনিয়া) আসনে ৯৬টি ভোট কেন্দ্রে জেএসডির মাহবুবুর রহমান ১৫, ইসলামী ফ্রন্টের আবু নিষাদ ৪৫৭, এনপিপির জিয়াউর ১৪৬, ইসলামী আন্দোলনের নেয়ামত উল্লাহ ১০৩, আওয়ামী লীগের হাসান মাহমুদ ৯৭ হাজার ৭৫২ ও বিএনপির নুরুল আলম পেয়েছেন ১২ হাজার ২১০। সর্বশেষ আপডেট ফলাফলে নৌকা প্রতীকে জনগণের রায় বেসরকারি ভাবে ড়, হাসান মাহমুদ জয়লাভ করেন ।

চট্টগ্রাম-৮(বোয়ালখালী-চান্দগাওঁ) আসনে ৯৬ টি ভোট কেন্দ্রের মধ্যে ৯৬ টির ফলাফলে দেখা যায় ধানের শীষের প্রতিকে বিএনপির মনোনীত প্রার্থী আবু সুফিয়ান ৫৯ হাজার ১৩৫ ভোট । আওয়ামী লীগ তথা মহাজোট মনোনীত প্রার্থী জাসদের মইনুদ্দিন খান বাদল পেয়েছেন ২ লাখ ৭২ হাজার ৮৩৮ ভোট ।

মোমবাতি প্রতিকে আব্দুস সামাদ ৫৭৭০ ভোট ।হাতপাখা প্রতিকে ড়া ফরিদ খান ১০১৮ ভোট পেয়েছেন । সর্বশেষ আপডেট ফলাফলে নৌকা প্রতীকের বর্তমান সাংসদ মইনুদ্দিন খান বাদল বেসরকারি ভাবে জয়লাভ করেন ।

চট্টগ্রাম-৯(কোতোয়ালি-বাকলিয়া) আসনে সর্বমোট কেন্দ্র ১৪৪ টি ভোট কেন্দ্রের মধ্যে ১৩৮ টির ফলাফলে দেখা যায় বিএনপির মনোনীত প্রার্থী ও নগর বিএনপির সভাপতি ডাঃ শাহাদাত হোসেন ধানের শীষের প্রতিকে ৫৬ হাজার ৫৬৫ ভোট এবং আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক ব্যারিস্টার মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল নৌকা প্রতীকে ১ লাখ ৩৪ হাজার ২৪৫ ভোট ।

এবং মোমবাতি, হাতপাখা, চেয়ার, বটগাছ প্রতিকে ৪৫৬৭ ভোট পেয়েছেন । সর্বশেষ আপডেট ফলাফলে নৌকা প্রতীকে প্রথমবারের মতো সাংসদ নির্বাচিত হয়েছেন তরুণ এই রাজনৈতিক ।

চট্টগ্রাম-১০ (ডবলমুরিং-হালিশহর) আসনে ১৪৩ টি ভোট কেন্দ্রের মধ্যে ১৪১ টির ফলাফলে দেখা যায় নৌকা প্রতীকেই বর্তমান সাংসদ ও সাবেক মন্ত্রী ড়া আফছারুল আমিন ২ লাখ ৮৭ হাজার ৪৭ ভোট ।

তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির প্রার্থী ও কেন্দ্রীয় নেতা আব্দুল্লাহ আল নোমান ৪১ হাজার ৩৯০ ভোট । সিংহ প্রতিকে ইনসানিয়ত বিপ্লব বাংলাদেশেরমনোনীত প্রার্থী সাবিনা খাতুন ৪৫৩ ভোট এছাড়া হাতপাখা, মই , টেলিভিশন,কোদাল, আম প্রতিকে ৭৮০ ভোট। সর্বশেষ আপডেট ফলাফলে নৌকা প্রতীকেই বর্তমান সাংসদ ড়া আফছারুল আমিন বেসরকারি ভাবে জয়লাভ করেন

চট্টগ্রাম-১১ ( বন্দর-পতেঙ্গা) আসনে ১৪৩ টি ভোট কেন্দ্রের মধ্যে ১৪০ টির ফলাফলে দেখা যায় নৌকা প্রতীকের বর্তমান সাংসদ ২ লাখ ৮৩ হাজার ১৬৯ ভোট, তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ধানের শীষের প্রতিকে আমির খসরু মাহমুদ চৌধুরী পেয়েছেন ৫২ হাজার ৮৯৮ ভোট।এছাড়া হাতপাখা,মোমবাতি,কোদাল,চেয়ার প্রতিকে সর্ব মোট ১১ হাজার ৮০ ভোট । সর্বশেষ আপডেট ফলাফলে নৌকা প্রতীকের বর্তমান সাংসদ এম আবদুল লতিফ বেসরকারি ভাবে জয়লাভ করেন ।

চট্টগ্রাম-১২ (পটিয়া) আসনের ১১১ কেন্দ্রের ১০৩টির ফলাফলে ইসলামী ফ্রন্টের এম এ মতিন ৭ হাজার ৩১২, বিএনএফের দীপক কুমার পালিত ৪, ইসলামী আন্দোলনের দেলোয়ার হোসেন সাকী ৫৭, স্বতন্ত্র আবু তালেব হেলালী ২২৮, জাতীয় পার্টির নুরুচ্ছফা সরকার ১৩, ইসলামিক ফ্রন্টের মঈন উদ্দীন চৌধুরী ২৮, বিএনপির এনামুল হক এনাম ২৩ হাজার ৮৩৭, বাসদের সাইফুদ্দীন ইউনুচ ৩০ ও আওয়ামী লীগের শামসুল হক পেয়েছেন ১ লাখ ৪ হাজার ৫৬৯ ভোট। সর্বশেষ আপডেট ফলাফলে নৌকা প্রতীকেই বর্তমান সাংসদ শামসুল হক চৌধুরী বেসরকারি ভাবে জয়লাভ করেন ।

চট্টগ্রাম-১৩ (আনোয়ারা-কর্ণফুলী) আসনে সর্বমোট কেন্দ্র ১০৬ টি ভোট কেন্দ্রের মধ্যে ১০৩ টির ফলাফলে দেখা যায় নৌকা প্রতীকের বর্তমান সাংসদ ও ভূমি প্রতিমন্ত্রী সাইফুজ্জামান চৌধুরী জাবেদ ১ লাখ ৬৭ হাজার ৪৫ ভোট পেয়েছেন ।

তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির ধানের শীষের প্রতিকে সরওয়ার জামাল নিজাম ৪৫ লাখ ৪০৯ ভোট পেয়েছেন । এছাড়া হাতপাখা, মোমবাতি, চেয়ার, টেলিভিশন,সূর্য প্রতীকে ২৩০৬ ভোট পেয়েছেন । সর্বশেষ আপডেট ফলাফলে নৌকা প্রতীকের বর্তমান সাংসদ ও ভূমি প্রতিমন্ত্রী সাইফুজ্জামান চৌধুরী জাবেদ বেসরকারি ভাবে জয়লাভ করেন ।

চট্টগ্রাম-১৪ (চন্দনাইশ) আসনের ১০৪টি কেন্দ্রের ৮৮টির ফলাফলে জাতীয় পার্টির আবু জাফর ওয়ালী উল্লাহ ২৩৪৫, ব্যাপার আলী নেওয়াজ খান ৩৩৩, এলডিপির অলি আহমদ ১৮৮, ইসলামাক ফ্রন্টের জানে আলম নিজামী ১০০৯ ইসলামী আন্দোলনের দেলোয়ার হোসেন সাকী ২, তরিকত ফেডারেশনের ৫০৭, আওয়ামী লীগের নজরুল ইসলাম চৌধুরী ৯৭ হাজার ৮৭০ ভোট পেয়েছেন। সর্বশেষ আপডেট ফলাফলে নৌকা প্রতীকের বর্তমান সাংসদ নজরুল ইসলাম চৌধুরী বেসরকারি ভাবে জয়লাভ করেন ।

চট্টগ্রাম-১৫ সাতকানিয়া আসনের ১৪৭ কেন্দ্রের ১৪০টির ফলাফলে বিএনপির শামসুল ইসলাম ৫৬ হাজার ২৩৬, আওয়ামী লীগের আবু রেজা মো. নেজামুদ্দীন নদভীর ১ লাখ ৭৯ হাজার ৭২২, ইসলামী আন্দোলনের নুরুল আলম ৫২৫, গণফোরামের আবদুল মোমেন ১৮২ ও এনপিপির ফজলুল হক ৩০ ভোট পেয়েছেন। সর্বশেষ আপডেট ফলাফলে নৌকা প্রতীকের বর্তমান সাংসদ প্রফেসর ড় আবু রেজা মোহাম্মদ নিজামুদ্দিন নদভী বেসরকারি ভাবে জয়লাভ করেন ।

চট্টগ্রাম-১৬ (বাঁশখালী) আসনের ১১০ টি কেন্দ্রের ১০৩টির ফলাফলে ন্যাপের আশীষ কুমার শীল ৫২, ইসলামী আন্দোলনের ফরিদ আহম্মদ ৮৩, বিএনপির জাফরুল ইসলাম চৌধুরী ৫৮ হাজার ৯৫৯, জাতীয় পার্টির মাহমুদুল ইসলাম চৌধুরী ৪৯১৩, ইসলামী ফ্রন্টের মনিরুল ইসলাম ১৪৩, আওয়ামী লীগের মোস্তাফিজুর রহমান চৌধুরী ৯৯ হাজার ৯৭৫, ইসলামিক ফ্রন্টের মহিউল আলম ৭ ও স্বতন্ত্র জামায়াতের জহিরুল ইসলাম ২ হাজার ৪৩৬ ভোট পেয়েছেন। সর্বশেষ আপডেট ফলাফলে নৌকা প্রতীকেই বর্তমান সাংসদ মোস্তাফিজুর রহমান চৌধুরী বেসরকারি ভাবে জয়লাভ করেন ।