চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে যাচ্ছে আইয়ুব বাচ্চুর ধ্যান-জ্ঞানের ৬০টি গিটার

টিবিটি টিবিটি

বিনোদন ডেস্ক

প্রকাশিত: ১০:২৭ পূর্বাহ্ণ, অক্টোবর ২১, ২০১৮ | আপডেট: ১০:২৭:পূর্বাহ্ণ, অক্টোবর ২১, ২০১৮
ছবি: আহনাফের ফেসবুক থেকে নেওয়া

তিনি গিটারের যাদুকর। ছয় তারের এই বাদ্যযন্ত্রে তিনি যেই যাদু সৃষ্টি করতেন, সেটা ছড়িয়ে যেতো কোটি প্রাণে। হাজারো তরুণ গিটারের প্রতি উদ্বুদ্ধ হয়েছে তাকে দেখে। গানেও ছিলেন তিনি অনন্য। দরাজ কণ্ঠে উপহার দিয়েছেন অসংখ্য শ্রোতাপ্রিয় কালজয়ী গান। যেগুলো এখনো সমানভাবে মানুষের মুখে মুখে ঘোরে।

গতকাল মায়ের পাশে ঘুমিয়ে গেলেন তিনি। তবে সঙ্গিতাঙ্গনে এই কিংবদন্তি বেঁচে থাকবেন আজীবন। নিজের শিল্প নৈপুণ্য আর জনপ্রিয়তায় তিনি অমর হয়ে থাকবেন ভক্তদের মাঝে।

আইয়ুব বাচ্চু কতটা জনপ্রিয় ছিলেন, তা জানাজা ও শ্রদ্ধা নিবেদনে ঠের পেয়েছেন দেশের মানুষ। এদিকে, শিল্পীর এই জনপ্রিয়তাকে সম্মান জানিয়েছেন চট্টগ্রামের সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন।

বললেন, আইয়ুব বাচ্চুর নামে তার জন্মস্থান চট্টগ্রামে হবে সড়ক ও মুসলিম হলের নামকরণ। এছাড়াও চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের জাদুঘরে হবে আইয়ুব বাচ্চু কর্নার। সেখানে থাকবে শিল্পীর ব্যবহৃত ৬০টি গিটার ও তার জীবনের গুরুত্বপূর্ণ স্মৃতি সম্ভার।

গতকাল আইয়ুব বাচ্চুর মরদেহ তার মামার হাতে হস্তান্তর করে সাংবাদিকদের কাছে দেয়া সাক্ষাৎকারে মেয়র আরো বলেন, প্রয়াত ব্যান্ড শিল্পী আইয়ুব বাচ্চুর জন্য একটি সড়কের ও মুসলিম হলের নামকরণসহ যা যা করার দরকার সব নিজ উদ্যোগে করবো। আইয়ুব বাচ্চুর সংগ্রহে ছিল ৬৭টি গিটার। এর মধ্যে ৬০টি চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে (চবি) দেয়ার ইচ্ছা ছিল বাচ্চুর।

দেড় বছর আগে ছোট মামা আবদুল আলীমকে এ ইচ্ছের কথা জানিয়েছিলেন তিনি নিজেই। জীবন চলার পথে গিটারই ছিল আইয়ুব বাচ্চুর ধ্যান-জ্ঞান। যখনই তিনি দেশের বাইরে যেতেন গিটার কিনতেন। এসব গিটার মাঝে তিনি একবার নিলামেও তুলেছিলেন। কিন্তু আবার সে সিদ্ধান্ত থেকে সরে আসেন।

পরে বছর দেড়েক আগে তিনি তার ছোট মামা আবদুল আলীমকে বলেছিলেন তার ৬০টি গিটার চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসিকে দিয়ে দেবেন। যাতে সেগুলো গিটারপ্রেমী শিক্ষার্থীরা পেয়ে অনুপ্রাণিত হয়।

এদিকে, এ কর্নারের মাধ্যমে বাচ্চুকে তরুণ প্রজন্মের কাছে সুন্দর ও নান্দনিকভাবে উপস্থাপনার কথা জানিয়েছেন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি প্রফেসর ড. ইফতেখার উদ্দিন চৌধুরী।