চেক চুরি করলো যুবলীগ নেতা, ধরা পড়লো সিসি ক্যামেরায়

প্রকাশিত: ৬:১৭ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ৩০, ২০১৮ | আপডেট: ৭:৪৬:অপরাহ্ণ, অক্টোবর ৩০, ২০১৮

অগ্রণী ব্যাংক লিমিটেড বগুড়ার ধুনট শাখা কার্যালয় থেকে চেক চুরির অভিযোগে শরিফুল ইসলাম (২৮) নামে এক যুবলীগ নেতাকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

মঙ্গলবার দুপুর ১২টার দিকে আদালতের মাধ্যমে তাকে বগুড়া কারাগারে পাঠানো হয়েছে। শরিফুল ইসলাম উপজেলার গজিয়া বাড়ি গ্রামের আলীমুদ্দিনের ছেলে এবং গোপালনগর ইউনিয়ন যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক।

অগ্রণী ব্যাংক ধুনট শাখার উপ মহা-ব্যবস্থাপক শামীম আহম্মেদ বলেন, এর আগেও ব্যাংক থেকে অনেক গ্রাহকের মোবাইল ও টাকা চুরি হয়েছে। চেক চুরির এ ঘটনা এবারই প্রথম। আমরা অনেক চেষ্টায় সিসি ক্যামেরায় ধারণকৃত চিত্র দেখে তাকে শনাক্ত করতে পেরেছি। ঘটনাটি ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের জানানো হয়েছে।

এ ব্যাপারে গোপালনগর ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি বকুল হোসেন জানান, শরিফুল ইসলাম জালিয়াতি করেছেন। তার বিরুদ্ধে সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেয়া হবে।

ধুনট থানা পুলিশের উপ-পরিদর্শক (তদন্ত) ফারুকুল ইসলাম বলেন, শরিফুল ইসলামকে থানা থেকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় মামলা হয়েছে।

পুলিশ জানায়, সোমবার দুপুরে ব্র্যাকের এক কর্মকর্তা ২ লাখ ৭৬ হাজার ৫০৬ টাকার চেক অগ্রণী ব্যাংক লিমিটেড ধুনট শাখা কার্যালয়ে জমা দেন। ওই ব্যাংক কর্মকর্তা চেকটির তথ্য রেজিস্ট্রারভুক্ত করে খাতার ভেতর রেখে জরুরি কাজে অন্য কর্মকর্তার টেবিলে যান। এ সময় সেখানে আগে থেকে অবস্থান নেয়া যুবলীগ নেতা শরিফুল ইসলাম খাতার ভেতর থেকে কৌশলে চেকটি নিয়ে ব্যাংক থেকে পালিয়ে যান।

পরে ব্যাংক র্কমকর্তা ওই চেক খাতার ভেতর না পেয়ে খুঁজতে থাকেন। একপর্যায়ে ব্যাংকের ভেতর লাগানো সিসি ক্যামেরায় ধারণকৃত ফুটেজ দেখে চেক চোরকে শনাক্ত করতে পারেন তারা।

মঙ্গলবার দুপুরে চুরি হওয়া সেই চেকের আগের নাম মুছে নিজের নাম লিখে ব্যাংকে এসে টাকা উত্তোলনের চেষ্টা করেন যুবলীগ নেতা শরিফুল ইসলাম। এ সময় ব্যাংক কর্মকর্তারা সিসি ক্যামেরায় ধারণ করা ছবি দেখে শরিফুল ইসলামকে ধরে পুলিশে সোপর্দ করেন।

এ ঘটনা অগ্রণী ব্যাংক ধুনট শাখার উপ-মহাব্যবস্থাপক শামীম আহম্মেদ বাদী হয়ে যুবলীগ নেতার বিরুদ্ধে ধুনট থানায় একটি মামলা করেছেন।