জাকির নায়েককে ফেরত দিতে অস্বীকার মালয়েশিয়ার

টিবিটি টিবিটি

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ১০:৩৪ পূর্বাহ্ণ, জানুয়ারি ১৩, ২০১৯ | আপডেট: ১০:৩৫:পূর্বাহ্ণ, জানুয়ারি ১৩, ২০১৯
ফাইল ছবি

প্রখ্যাত ধর্মীয় আলোচক জাকির নায়েককে ভারতের হাতে তুলে দিতে রাজি হচ্ছে মালয়েশিয়া। এর মাধ্যমে ভারতকে কুটনৈতিক মঞ্চে ফের বড়সড় ধাক্কা দিলো মালয়েশিয়া। দেশটির পক্ষ থেকে জানিয়ে দেয়া হয়েছে, ওই দেশে বসবাসকারী জাকির নায়েককে ভারত ফেরত পেতে হলে আরো নথি ও প্রমাণ দিতে হবে।

বছরখানেক ভারতের নয়াদিল্লি থেকে জাকির নায়েককে ফেরত পাঠানোর জন্য মালয়েশিয়া সরকারের কাছে অনুরোধ করা হয়। । কিন্তু মালয়েশিয়ার ভবিষ্যৎ প্রধানমন্ত্রী আনোয়ার ইব্রাহিম সম্প্রতি ভারত সফরে এসে বলেন, ‘‘বিষয়টি দেখা হচ্ছে। তবে ভারতের কাছ থেকে আরো তথ্যপ্রমাণ চাই।’’

২০১৬ সালে জাকির নায়েকের বিরুদ্ধে কথিত সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডের সঙ্গে সম্পৃক্ততা ও ধর্মীয় অনুষ্ঠানের মাধ্যমে জাতিগত হিংসা ছড়াচ্ছেন বলে অভিযোগ তোলা হয়। ওই বছর মুসলিম অধ্যুষিত মালয়েশিয়ায় চলে যান তিনি। সেখানে তাঁকে নাগরিকত্ব দেওয়া হয়। তার বিরুদ্ধে তদন্ত করছে এনআইএ ও ইডি।

এর আগে গতবছরের জুলাইতে মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী মাহাথির মহম্মদ বলেছিলেন, যতদিন পর্যন্ত জাকির নায়েক মালয়েশিয়ায় সমস্যা সৃষ্টি না করছেন ততদিন তাকে ভারতে ফেরানোর কথা ভাবছে না সরকার। কারণ জাকির নায়েককে ইতিমধ্যেই স্থায়ী নাগরিকত্ব দিয়ে ফেলেছে মালয়েশিয়া।

২০১৭ সালে জাকিরের বিরুদ্ধে ‘রেড কর্নার নোটিস’ জারির আবেদন জানায় ভারত। কিন্তু সেই প্রচেষ্টাকেও ধাক্কা দিয়ে ইন্টারপোল জানিয়ে দেয়, জাকির নায়েকের বিরুদ্ধে সন্ত্রাসবাদী কার্যকলাপে যুক্ত থাকার প্রমাণ দিতে পারেনি দিল্লি। আইনি প্রক্রিয়াও ঠিক ভাবে অনুসরণ করা হয়নি।

এবার আনোয়ার ইব্রাহিমের বক্তব্যও হতাশ করল দিল্লিকে। তিনি স্পষ্ট বলেছেন, আপনারা নিশ্চয়ই বুঝতে পারছেন, মালয়েশিয়া সরকারের গোটা বিষয়টি আরো ভালো করে বোঝার প্রয়োজন রয়েছে। ভারতের অনুরোধের দিকটিকে আমরা সম্মান করছি। কিন্তু আমাদেরও আইন-কানুন রয়েছে।