টুইটারে শীর্ষে দরাজ কণ্ঠের অধিকারী আইয়ুব বাচ্চু

টিবিটি টিবিটি

বিনোদন ডেস্ক

প্রকাশিত: ১:১২ পূর্বাহ্ণ, অক্টোবর ২১, ২০১৮ | আপডেট: ১:১২:পূর্বাহ্ণ, অক্টোবর ২১, ২০১৮
সংগৃহীত

টিবিটি বিনোদনঃবাংলা রক সংগীতের কিংবদন্তি আইয়ুব বাচ্চুকে স্মরণ করে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম অসংখ্য বার্তা ও ছবি শেয়ার দিচ্ছে তাঁর ভক্তরা। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম টুইটারেও তাঁকে নিয়ে অসংখ্য পোস্ট দিচ্ছেন সাধারণ মানুষ। বর্তমানে এশিয়া অঞ্চলে টুইটার ট্রেন্ডিংয়ে শীর্ষে আছেন আইয়ুব বাচ্চু।

তিনি গিটারের যাদুকর। ছয় তারের এই বাদ্যযন্ত্রে তিনি যেই যাদু সৃষ্টি করতেন, সেটা ছড়িয়ে যেতো কোটি প্রাণে। হাজারো তরুণ গিটারের প্রতি উদ্বুদ্ধ হয়েছে তাকে দেখে। গানেও ছিলেন তিনি অনন্য। দরাজ কণ্ঠে উপহার দিয়েছেন অসংখ্য শ্রোতাপ্রিয় কালজয়ী গান। যেগুলো এখনো সমানভাবে মানুষের মুখে মুখে ঘোরে।

হ্যাঁ বলছি সদ্য প্রয়াত কিংবদন্তি ব্যান্ড তারকা আইয়ুব বাচ্চুর কথা। গত বৃহস্পতিবার (১৮ অক্টোবর) হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে না ফেরার দেশে পাড়ি জমান উপমহাদেশের বরেণ্য এই শিল্পী। তার মৃত্যুতে শোকের ছায়া নেমে এসেছে গোটা দেশে।

আইয়ুব বাচ্চুর মৃত্যুর পর থেকে টুইটারে তার ভক্তরা একের পর এক টুইট করে যাচ্ছেন। হ্যাশট্যাগে জুড়ে দিচ্ছেন প্রিয় তারকার নাম কিংবা তার কোনো গান। টুইটার ট্রেন্ডিংয়ে আইয়ুব বাচ্চুর পরে দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে ভারতের ‘অমতৃসার ট্রেন ট্র্যাজেডি’ হ্যাশট্যাগ।

জানা গেছে, গত দুই দিনে টুইটারে সবচেয়ে বেশি টুইট হয়েছে ‘রেস্ট ইন পিস (শান্তিতে থাকুন)’ হ্যাশট্যাগ দিয়ে। এরপরে বেশিবার পোস্ট হয়েছে বাচ্চুর ‘এই রূপালি গিটার ফেলে একদিন চলে যাবো দূরে বহুদূরে, সেদিন চোখে অশ্রু তুমি রেখো গোপন করে’ গানের লাইনটি।

শুধু সাধারণ মানুষই নয়, আইয়ুব বাচ্চুর মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করে টুইট করেছে ঢাকাস্থ মার্কিন দূতাবাসও। তাদের টুইটে বলা হয়েছে, ‘কিংবদন্তি বাংলাদেশি পপ শিল্পী আইয়ুব বাচ্চুর অকাল প্রয়াণে আমরা গভীরভাবে শোকাহত। তিনি ছিলেন রক সংগীতশিল্পী ও বাংলাদেশের শীর্ষস্থানীয় গিটারিস্ট। রক ব্যান্ড এলআরবি তারই হাতে গড়া।’

এছাড়া বাংলাদেশের বাইরে ভারত থেকেও অনেক টুইট হয়েছে আইয়ুব বাচ্চুকে নিয়ে। কেননা সে দেশেও আইয়ুব বাচ্চুর জনপ্রিয়তা রয়েছে। বিশেষ করে কলকাতায়। কারণ সেখানে বাংলা ব্যান্ড গড়ে ওঠার পেছনে আইয়ুব বাচ্চুর মতো তারকাদের গান ব্যাপক প্রভাব ফেলেছিলো। তাই এই কিংবদন্তির মৃত্যুতে তারাও স্থির থাকতে পারছেন না।