ডলার ছাড়া লেনদেন করবে রাশিয়া-ইউরোপ

টিবিটি টিবিটি

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

প্রকাশিত: ১১:২৪ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ৬, ২০১৮ | আপডেট: ১১:২৪:অপরাহ্ণ, অক্টোবর ৬, ২০১৮

ইউরোপীয় কোম্পানিগুলো রাশিয়ার সঙ্গে বাণিজ্যিক লেনদেন থেকে ডলার বাদ দেয়ার বিষয়টি পর্যালোচনা করে দেখছে বলে জানিয়েছেন রাশিয়ার অর্থমন্ত্রী অ্যান্তোন সিলুয়ানোভ। রাশিয়ার নিউজ চ্যানেল রাশা-২৪’কে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে অ্যান্তোন সিলুয়ানোভ এ তথ্য জানান।

সিলুয়ানোভ বলেছেন, বিভিন্ন দেশের ওপর আরোপিত আমেরিকার অর্থনৈতিক নিষেধাজ্ঞা ভাঙার যেকোনো প্রচেষ্টায় রাশিয়া যোগ দিতে পূর্ণ প্রস্তুত রয়েছে।

অর্থনৈতিক লেনদেনের জন্য ইউরোপের ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলো ডলার-ভিত্তিক সুইফট ব্যবস্থার বদলে ইউরো-ভিত্তিক লেনদেন ব্যবস্থা প্রতিষ্ঠার চেষ্টা করছে বলে খবর বের হওয়ার প্রেক্ষিতে রাশিয়ার অর্থমন্ত্রী এ মন্তব্য করলেন।

সম্প্রতি ইউরোপীয় দেশগুলো ইরানের তেল কেনাসহ তেহরানের সাথে অর্থনৈতিক লেনদেনের জন্য এ পৃথক লেনদেন ব্যবস্থা প্রতিষ্ঠা করতে সম্মত হয়েছে।

রুশ অর্থমন্ত্রী বলেন, অবরোধের ফলে সৃষ্ট অর্থনৈতিক চাপের কারণে বৈদেশিক মুদ্রার দামে অস্থিতিশীলতা সৃষ্টি হয়েছে। তবে এ পরিস্থিতি থেকে উত্তরণের পথ রাশিয়ার সরকার ও কেন্দ্রীয় ব্যাংকের ভালোভাবে জানা আছে।

ইতিপূর্বে এক বক্তৃতায় রুশ অর্থমন্ত্রী বলেছিলেন, আন্তর্জাতিক লেনদেনে মার্কিন ডলার এখন আর নির্ভরযোগ্য কোনো মুদ্রা নয়।

এর আগে ইরানের সাথে আর্থিক লেনদেন করতে সাত ইউরোপীয় দেশের কেন্দ্রীয় ব্যাংক রাজি হয়েছে বলে জানিয়েছিলেন দেশটির পররাষ্ট্রমন্ত্রী মোহাম্মাদ জাওয়াদ জারিফ।

জাওয়াদ জারিফ বলেন, ইরান যাতে আমেরিকার নিষেধাজ্ঞা উপেক্ষা করে বহির্বিশ্বের সাথে আর্থিক ও বাণিজ্যিক লেনদেন চালিয়ে যেতে পারে সে লক্ষ্যে ইউরোপীয় দেশগুলো এ পদক্ষেপ নিচ্ছে।

আমেরিকা ছাড়া ইরানের সঙ্গে পরমাণু সমঝোতা স্বাক্ষরকারী বাকি পাঁচ দেশ ও ইউরোপীয় ইউনিয়ন সম্প্রতি ইরানের সঙ্গে ব্যাংকিং চ্যানেলে আর্থিক লেনদেনের জন্য একটি বিশেষ ব্যবস্থা প্রতিষ্ঠা করতে সম্মত হয়।

ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, এই অর্থনৈতিক ব্যবস্থার মাধ্যমে শুধু ইউরোপীয় দেশগুলো নয় বরং বিশ্বের যেকোনো দেশ ইরানের সঙ্গে লেনদেন করতে পারবে।

‘ইরানের তেল আমদানিকারকরা এই ব্যবস্থার মাধ্যমে তেহরানকে অর্থ সরবরাহ করতে পারবেন। পাশাপাশি ইরানে পণ্য রপ্তানিকারকরাও এই ব্যবস্থা ব্যবহার করে তেহরানের কাছ থেকে অর্থ গ্রহণ করতে সক্ষম হবেন।’

জারিফ আরো জানান, যেসব দেশ ও প্রতিষ্ঠান ডলারের মাধ্যমে লেনদেন করতে চায় তারা আমেরিকার নিষেধাজ্ঞা থেকে মুক্ত হয়ে এই ব্যবস্থার মাধ্যমে ইরানের সঙ্গে আদান-প্রদান করতে পারবেন।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প চলতি বছর ৮ মে ইরানের পরমাণু সমঝোতা থেকে তার দেশকে বের করে নিয়ে তেহরানের ওপর নিষেধাজ্ঞা পুনর্বহালের ঘোষণা দেন।

তবে আমেরিকা ছাড়া বাকি পাঁচ জাতিগোষ্ঠী এ সমঝোতা বহাল রাখার প্রত্যয় ব্যক্ত করে।

উল্লেখ্য, ২০১৫ সালের জুলাই মাসে আমেরিকা, ব্রিটেন, ফ্রান্স, জার্মানি, চীন, রাশিয়া ও ইউরোপীয় ইউনিয়নের সঙ্গে পরমাণু সমঝোতা সই করে ইরান।