তিনি ভেবেছিলেন ভিডিও প্রকাশ করলে সুনাম হবে: ডিএমপি কমিশনার

টিবিটি টিবিটি

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ১২:৪১ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ২৫, ২০১৮ | আপডেট: ৭:২৯:অপরাহ্ণ, অক্টোবর ২৫, ২০১৮
সাংবাদিকদের সাথে ডিএমপি কমিশনার

বৃহস্পতিবার বেলা ১১টায় ঢাকা মহানগর পুলিশের মিডিয়া অ্যান্ড পাবলিক রিলেশন্স বিভাগের সম্মেলন কক্ষে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে একথা বলেন তিনি।

ঢাকা মহানগর পুলিশ (ডিএমপি) কমিশনার মো. আসাদুজ্জামান মিয়া বলেছেন, ‘গভীর রাতে চেকপোস্টে এক নারী সিএনজি যাত্রীকে পুলিশের তল্লাশির সময় খারাপ আচরণের ভিডিওটি আমাদের দৃষ্টিগোচর হয়েছে।

যে এই ভিডিওটি আপলোড করেছেন তিনি পুলিশেরেই সদস্য। তিনি ভেবেছিলেন ওই ভিডিওটা প্রকাশ করলে তার হয়তো সুনাম হবে। কিন্তু তিনি যে অপেশাদার আচরণ করেছেন তা বোঝার ক্ষমতাও তার নেই।’

তিনি বলেন, ‘আমরা ধারাবাহিকভাবে চেষ্টা করে (পুলিশের খারাপ আচরণ) কমিয়ে এনেছি। আমরা শুধু মটিভেশন কিংবা প্রশিক্ষণই দেই না, এই ধরণের অপেশাদার আচরণ যেসব পুলিশ সদস্য করে তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করি।’

সম্প্রতি চেকপোস্টে তল্লাশি না করে এক নারীর সঙ্গে বিরূপ ও খারাপ আচরণের ভিডিও ভাইরাল হবার পর পুলিশের আচরণগত উন্নতিতে কেনো ওরিয়েন্টশন আছে কিনা জানতে চাইলে ডিএমপি কমিশনার ‘পুলিশ সদস্যদের আচরণ কেমন হবে, সে ব্যাপারে আমরা সচেতন।

আগে যেভাবে ব্যাপক হারে খারাপ আচরণের অভিযোগ আসতো, তা এখন কমেছে। আমি দায়িত্ব নিয়ে বলছি- এখন শতকরা ৫ ভাগও খারাপ আচরণের অভিযোগ আসে না।’
ডিএমপি কমিশনার বলেন, ‘ঘটনার সুষ্ঠু তদন্তে ৪৮ ঘণ্টার সময় দিয়ে মতিঝিল বিভাগের উপ-কমিশনারের নের্তৃত্বে তিন সদস্যের কমিটি গঠন করা হয়েছে। এর দায়-দায়িত্ব নির্ধারণ করে, যারা ওই নারীর সঙ্গে বিরূপ আচরণ করেছে তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

শুধু এই ক্ষেত্রে নয়, আগামীতেও কোনো পুলিশ সদস্য কোনো নাগরিকের সঙ্গে পেশাদার আচরণের বাইরে কিংবা খারাপ আচরণ করে, পুলিশের ব্যাপারে নেতিবাচক প্রভাব তৈরি করে তবে তার বিরুদ্ধে আমাদের বিরুদ্ধে আমাদের অবস্থান সুস্পষ্ট, কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

নগরীর নিরাপত্তায় অনেক স্থানে চেকপোস্ট রয়েছে। সেখানে খারাপ আচরণ ও হয়রানির করার বিষয়ে অভিযোগ আসে। তাদের ব্যবহার পরিবর্তনে কোনো উদ্যোগ রয়েছে কিনা জানতে চাইলে পুলিশের এই ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা বলেন, ‘আগে প্রায় প্রতিদিনই অভিযোগ পেতাম।

আমাদের মটিভেশন আছে বলেই তা কমে আসছে। অনেক পরিবর্তন এসেছে। আমরা প্রজাতন্ত্রের কর্মচারী, জনগণের সেবক। জনগণের ওপর চড়াও হওয়ার কোনো সুযোগ নেই। আমাদের আইন প্রয়োগে হবো কঠোর, কিন্তু আচরণে হবো কোমল। আমাদের আচরণ কেমন হবে ধারাবাহিকভাবে তার প্রশিক্ষণ দেয়া হচ্ছে।

আগামীতেও দেয়া হবে। পুলিশ যাতে পেশাদার আচরণ করে সেজন্য নজরদারি রয়েছে। এরপরেও যদি কেউ খারাপ আচরণ করে তবে তার দায়-দায়িত্ব তার। এর দায় পুলিশ বাহিনী নেবে না।’ সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন ডিএমপির অতিরিক্ত কমিশনার মোসলেহ উদ্দিন, মীর রেজাউল আলম, ডিসি মাসুদুর রহমান প্রমুখ।