‘দহন’ সিনেমার গানে অশ্লীলতা মন্ত্রণালয়ে লিখিত অভিযোগ

টিবিটি টিবিটি

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ৪:০৬ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ৩১, ২০১৮ | আপডেট: ৪:০৬:অপরাহ্ণ, অক্টোবর ৩১, ২০১৮
সংগৃহীত

‘দহন’ সিনেমায় সিয়ামের চরিত্রটি এক মাদকাসক্ত যুবকের। ‘হাজির বিরিয়ানি’ গানটির মাধ্যমে দর্শকের সঙ্গে পরিচয় করিয়ে দেয়া হয়েছে এই চরিত্রটিকে। গানটিতে সিয়ামকে দেখানো হয়েছে এক বখে যাওয়া নেশাখোর তরুণ হিসেবেই, পুলিশের ধাওয়া খেয়ে প্রতিনিয়ত ছুটে বেড়ায় যে।

জাজ মাল্টিমিডিয়ার নতুন সিনেমা ‘দহন’ শুরু থেকেই ছিলো আলোচনায়। সিয়াম ও পূজা চেরী অভিনীত সিনেমাটির আরেক নায়িকা কে হচ্ছেন- সেই জটিলতা কেটে উঠতে না উঠতেই নতুন বিতর্কে জড়ালো সিনেমাটি।





‘দহন’-এর সাম্প্রতিক মুক্তিপ্রাপ্ত ‘হাজির বিরিয়ানি’ গানটির কথা অশ্লীল- এমন অভিযোগে মুখর এখন সবাই। তবে এবার গানের বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ করা হবে একাধিক মন্ত্রণালয়ে।

গানে সিয়ামের অভিনয় ও লুক প্রশংসিত হলেও প্রশ্ন উঠেছে এর কথা নিয়ে। প্রিয় চট্টোপাধ্যায় এর কথায় গানটির সুর ও সংগীতায়োজন করেছেন কলকাতার আকাশ সেন।
তবে গানটি নিয়ে তৈরি হওয়া সমালোচনাকে অবান্তর বলেই উড়িয়ে দিলেন সিয়াম। তিনি বলেন, তার মতে গানটির কথাগুলো আপত্তিকর নয়।





গানের কথায় অশ্লীল শব্দ ব্যবহারের বিরুদ্ধে এক হয়েছেন দেশের শীর্ষ সংগীত পরিচালক, গীতিকার ও কণ্ঠশিল্পীরা। এরই মধ্যে এতে স্বাক্ষর করেছেন আলাউদ্দিন আলী, আলম খান, আহমেদ ইমতিয়াজ বুলবুল, সাবিনা ইয়াসমিন, এন্ড্রু কিশোর, ফরিদ আহমেদ, আঁখি আলমগীর, শওকত আলী ইমনসহ শতাধিক তারকা।

সিয়াম বলেন, ‘আমার কাছে গানের কথা আপত্তিকর লাগেনি। কারণ আমি জানি সিনেমাতে আমার চরিত্রটি কী। আমি জেনেশুনেই আমার ক্যারেক্টারটা প্লে করছি। আমার কাছে মনে হয়েছে, এটা ওর জন্য খুবই নরমাল কথা।





তিনি আরও বলেন, ‘ব্যাপারটা তো আসলে গান নিয়ে না, এরপর কী হয়- তা নিয়ে। মাদককে না বলার ব্যাপারটা আপনি কীভাবে দেখাবেন, যদি প্রথমে মাদক না দেখাতে পারেন। আপনি শুধু আপনারা কেবল দাঁড়িয়ে দাঁড়িয়ে বলে গেলেন কেউ মাদক নেবেন না- তাহলে তো সেটা প্রভাব ফেলবে না। দেখাতে হবে, মাদক থেলে কী রেজাল্ট হয়।’

ও আরও অনেক কথাই বলতে পারকো, যেটা আমরা সংগত কারণেই বলতে পারছি না। আপনি যদি একইসঙ্গে আমার কাছ থেকে রিয়ালিস্টিক পার্ফম্যান্স চান, এবং বলেন আপনি এটা করতে পারবেন না, ওটা করতে পারবেন না, মারতে পারবেন না, ধরতে পারবেন না, তাহলে তো এটা পসিবল না। এটা ওর ক্যারেক্টারের গান, সোজা কথা। এটা ছাড়া ওর ক্যারেক্টার এস্টাবলিশ করা যেত না।’