দেবী দুর্গার তুষ্টিতে ৯ বছরের শিশু বলি

টিবিটি টিবিটি

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

প্রকাশিত: ৫:৩৯ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ২১, ২০১৮ | আপডেট: ৫:৩৯:অপরাহ্ণ, অক্টোবর ২১, ২০১৮
কালো জাদু। প্রতিকী ছবি

একবিংশ শতাব্দীতে বিজ্ঞানের আশির্বাদে যখন মানুষ উত্তরোত্তর মানব কল্যাণে নানাবিধ কর্মকান্ডে ক্রমশই উৎকর্ষ সাধনে ব্যস্ত হয়ে পড়েছে; অজ্ঞতার অন্ধকার দূর কেরে বিশ্বময় আলোকশিখা প্রজ্বলিত করতে ব্রতী হয়েছে, ঠিক তখনই কিছু মানুষের মাঝে দেখা যায় একদমই উল্টো চিত্র। বিজ্ঞানের আশির্বাদকে পাশ কাটিয়ে তারা হাঁটছে কুসংস্কারাচ্ছন্ন অন্ধকার জগতের দিকে।

হ্যাঁ। মানবিক উৎকর্ষতা বৃদ্ধির প্রচেষ্টার পরিবর্তে পাশবিক কাজের মধ্যে নিজেদের নিয়োজিত রেখেছে তারা। এরই শিকার ভারতের উড়িষ্যা রাজ্যের এক শিশু। দেবী দুর্গাকে সন্তুষ্ট করে অসীম ক্ষমতা লাভের আশায় ৯ বছরের এক শিশুকে নরবলি দিয়েছে তারই স্বজনরা।

দুর্গাপুজা মানেই আনন্দ, উৎসবমুখর পরিবেশ, সকলের মঙ্গল কামনা করা। অশুভ শক্তির বিনাশ করে শুভ শক্তির প্রতিষ্ঠা করাও এই পুজার উদ্দেশ্য। কিন্তু উড়িষ্যার বোলাঙ্গির জেলার সিন্ধেকেলা গ্রামে দেখা গেলো এর উল্টো চিত্র। সিন্ধেকেলার এক নদীর তীর থেকে ৯ বছরের এক শিশুর মুণ্ডহীন দেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

পুলিশ সুত্রে জানা যায়, মৃতের নাম ঘনশ্যাম রানা। শিশু খুনের কিনারা করতে খুব বেশি সময় লাগেনি। পুলিশ বুঝতে পারে, বলি দেওয়ার উদ্দেশ্যেই খুন করা হয়েছে শিশুটিকে; আর নিজের স্বজনরাই করেছে এই নক্যারজনক কাজ।

এ ঘটনায় মৃতের আত্মীয় কুঞ্জা রানা এবং চাচাতো ভাই সম্ভাবন রানাকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। জেরায় তারা বলি দেওয়ার কথা স্বীকারও করে নিয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

জানা গেছে, অভিযুক্ত দু’জনই কালো জাদুতে (ব্ল্যাক ম্যাজিক) বিশ্বাসী। সেই কুসংস্কার থেকেই দেবী দুর্গাকে তুষ্ট করতে নরবলির আয়োজন করে তারা। একপর্যায়ে ঘনশ্যামকে বলি দিয়ে দেবীর চরণে সমর্পণ করা হয়।