ধর্মপাশায় ৫৭ হাজার ৯৬৬ শিক্ষার্থী পেল নতুন বই

প্রকাশিত: ৮:২৭ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ১, ২০১৯ | আপডেট: ১০:৩৪:পূর্বাহ্ণ, জানুয়ারি ২, ২০১৯

মোঃ ইমাম হোসেন, ধর্মপাশা (সুনামগঞ্জ) প্রতিনিধি: সুনামগঞ্জের ধর্মপাশা উপজেলায় প্রায় ৫৮হাজার শিক্ষার্থী বছরের প্রথম দিনেই নতুন পাঠ্য বই পেয়ে উৎসবে মেতে উঠেছে।

নববর্ষের প্রথম দিনে এ উপজেলার কোমলমতি শিশু-কিশোরদের আগমনে মুখরিত হয়ে ওঠে ধর্মপাশা সদরের জনতা মডেল উচ্চ বিদ্যালয়, ধর্মপাশা বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়, ধর্মপাশা ১নং সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, ধর্মপাশা ২নং সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়সহ ২৯২টি স্কুল ও মাদরাসা। ধর্মপাশা ২নং সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ঢাক ঢোলের আওয়াজ আর শিশুদের হৈ-হুলে­াড়ে এক অন্যরকম পরিবেশের সৃষ্টি হয়।

আজ মঙ্গলবার সকাল ১১টায় ধর্মপাশা ২নং সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে প্রাঙ্গণে এ উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ ওবায়দুর রহমান।

বই বিতরণ পূর্ব আলোচনা সভায় বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি শামীম আহমেদ বিলকিসের সভাপতিত্বে ও প্রধান শিক্ষক নজমুল হায়দারের পরিচালনায় বক্তব্য দেন, উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার আবু তাহের মোঃ কামরুল হাসান,উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা (ভারপ্রাপ্ত) আবদুল আউয়াল মিয়া, সহকারি প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা বিজয় সরকার, সহকারি প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা আহসান উল্লাহ মুকুল, উপজেলা রিসোর্স সেন্টারের ইন্সস্ট্রাকটর চন্দন কুমার বণিক,উপজেলা আওয়ামীলীগ নেতা আজহারুল আলম দিদার পিকে প্রমুখ।

সরেজমিন দেখা গেছে, বিভিন্ন স্কুলের সামনে টেবিলের উপর রাখা রঙিন ফিতায় বাঁধা বইয়ের সেট। বিদ্যালয়গুলোতে বই বিতরণ পূর্বে আলোচনা সভায় অতিথিবৃন্দ শিক্ষাসহ দেশের বিভিন্ন বিভাগে সরকারের সফলতা তুলে ধরে বক্তৃতা করেন।

পরে শিক্ষার্থীদের হাতে নতুন বই তুলে দেওয়া হয়। নতুন বই পেয়ে শিক্ষার্থীরা যেমন আনন্দে উদ্বেলিত তেমনি অভিভাবকরাও বেজায় খুশি। স্ব স্ব প্রতিষ্ঠানে শত শত শিক্ষার্থী সবাই নতুন বই উঁচু করে নাড়াতে থাকে। সৃষ্টি হয় নতুন পরিবেশ।

এই উৎসবে শিশুরা বিদ্যালয়ে এসেছে খালি হাতে, নতুন বই নিয়ে ফিরছে ঘরে। বুকের কাছে আগলে রাখছে নতুন বই, শুকছে ঘ্রাণ। পুরো দৃশ্য দেখে মনে হয়েছে- ‘আহা কী আনন্দ, আকাশে বাতাসে’।

ধর্মপাশা ২নং সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের চতুর্থ শ্রেণির ছাত্র মোঃ মামুন মিয়া ও ধর্মপাশা জনতা মডেল উচ্চ বিদ্যালয়ের ৭ম শ্রেণির ছাত্রী নাভিলা ফারজানা নির্জনা বলে, বছরের প্রথম দিন নতুন ক্লাসের নতুন বই পাওয়ার আনন্দটাই আলাদা।

এ বছর ধর্মপাশা উপজেলার সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ১৯৩টি, এনজিও শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ব্যাক ৪৫টি, এনজিও শিক্ষা প্রতিষ্ঠান কারিতাস ১টি, এনজিও শিক্ষা প্রতিষ্ঠান উপমা ১৫টি, কিন্ডার গার্টেন ৬টি, উচ্চ মাধ্যমিক ১৮টি, দাখিল মাদরাসার ৪টি,সসন্ত্র ইবতেদায়ি মাদরাসার ১০টি। উপজেলার সর্বমোট ৫৭ হাজার ৯৬৬ জন শিক্ষার্থীর মধ্যে ৪ লাখ ৩৯ হাজার ৪২৫ টি বই বিতরণ করা হচ্ছে বলে জানা গেছে।