ধর্ষণ আড়াল করতে রোনালদোর গোপন চুক্তিপত্র ফাঁস!

টিবিটি টিবিটি

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ৩:৪৮ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ১০, ২০১৮ | আপডেট: ৩:৪৮:অপরাহ্ণ, অক্টোবর ১০, ২০১৮

ধর্ষণের অভিযোগ ওঠার পর থেকে এতদিন কেবল অস্বীকার করেই আসছিলেন সুপারস্টার ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো। তবে এবার তার বিরুদ্ধে এমন এক প্রমাণ হাজির করা হয়েছে যে, এরপর সিআর সেভেনের আদৌ কিছু বলার থাকবে কিনা তাতে সন্দেহ রয়েছে!

যুক্তরাষ্ট্রের সাবেক মডেল ক্যাথরিন মায়োরগাকে ধর্ষণ করার পর মুখ বন্ধ করতে বিপুল অংকের টাকার বিনিময়ে যে গোপন চুক্তিপত্র করেছিলেন রোনালদো; এবার সেটি ফাঁস করে দিল সেই ডার স্পিগেল!

জার্মান এই গণমাধ্যমে দেওয়া এক সাক্ষাতকারেই পর্তুগিজ সুপারস্টারের বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ এনেছিলেন মায়োরগা। সাথে সাথে সারা দুনিয়ায় তোলপাড় শুরু হয়। রোনালদো প্রথমে এসব হেসে উড়িয়ে দিলেও পরবর্তীতে বেশ কয়েকবার টুইট করে অভিযোগ অস্বীকার করেন।

কিন্তু এর আগেই লাস ভেগাস পুলিশ নতুন করে ঘটনাটির তদন্তে নেমেছে। গণমাধ্যমকে পুলিশ জানিয়েছে, তারা ধর্ষণের অভিযোগ নিয়ে জুভেন্তাস তারকাকে জিজ্ঞাসাবাদ করতে চায়। ২০০৯ সালে যুক্তরাষ্ট্রের সাবেক মডেল ক্যাথরিন মায়োরগাকে লাস ভেগাসের একটি হোটেলে আমন্ত্রণ জানান রোনালদো। সেখানে জোরপূর্বক তার সঙ্গে অ্যানাল সেক্স করেন।

কোনোক্রমে হোটেল থেকে বের হয়ে পরের দিন পুলিশের কাছে যান মায়োরগা। অভিযোগ দাখিলের পর রোনালদোর পক্ষ থেকে আপোষের প্রস্তাব আসে। পৌনে ৪ লাখ ডলারের আপোষ হয়। কিন্তু ৯ বছর পর সম্প্রতি ‘মি টু’ আন্দোলনে উদ্বুগ্ধ হয়ে সেই আপোষ এবার ভেঙে ফেলেছেন মায়োরগা।

সেই গোপন আপোষনামার একটি কপি ছিল মায়োরগার কাছে। ডার স্পিগেলের মাধ্যমে সেটি এবার প্রকাশ্যে আনলেন তিনি। ওই চুক্তি পত্রের নিচে মায়োরগা এবং রোনালদোর সাক্ষর আছে।

যদিও এতে পরোনালদোর ছদ্মনাম (টফার) এবং মায়োরগার ছদ্মনাম (মিসেস সি) ব্যবহার করা হয়েছে। চুক্তিপত্র প্রকাশ করে ডার স্পিগেল জানিয়েছে, ‘এই নথির সত্যতা নিয়ে কোনো সন্দেহ নেই। রোনালদোর আইনজীবীর পক্ষ থেকেও কোনো আপত্তি করা হয়নি।’