পাকিস্তানের অধিনায়ক সরফরাজই, ডেপুটি বাবর

টিবিটি টিবিটি

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ১:০৫ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১৪, ২০১৯ | আপডেট: ১:০৫:অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১৪, ২০১৯
সংগৃহীত

সর্বশেষ বিশ্বকাপে পাকিস্তানকে সেমিফাইনালে ওঠাতে না পারা সরফরাজকে অধিনায়কের দায়িত্ব থেকে ছেঁটে ফেলার গুঞ্জন উঠেছিল। কিন্তু শেষ পর্যন্ত পাকিস্তানের অধিনায়ক থাকছেন সরফরাজ আহমেদই। তার ডেপুটি করা হয়েছে বাবর আজমকে।

জানা গেছে, সরফরাজের নেতৃত্বেই শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে আসন্ন তিন ম্যাচের ওয়ানডে ও সমান সংখ্যাক টি-টোয়েন্টি সিরিজ খেলবে পাকিস্তান।

ইংল্যান্ড বিশ্বকাপে ব্যর্থতার জন্য হেড কোচ মিকি আর্থার ও সরফরাজকে নিয়ে বেশ কয়েক দফা আলোচনায় বসে পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড (পিসিবি)। শেষ পর্যন্ত কোচ মিকি আর্থারের সঙ্গে চুক্তি না বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নেয় পিসিবি। আর্থারের বিদায়ের পর বোর্ডের পক্ষ থেকে হেড কোচ ও প্রধান নির্বাচকের দায়িত্ব দেওয়া হয় মিসবাহকে।

অপরদিকে নতুন করে দল সাজানোর অংশ হিসেবে সরফরাজ আহমেদকে অধিনায়কের পদ থেকে সরিয়ে দেওয়ার গুঞ্জন উঠে। কিন্তু শেষ পর্যন্ত এই উইকেটরক্ষকের ওপর আস্থা রাখলেন পিসিবি ও মিসবাহ। শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে সিরিজে পাকিস্তানকে নেতৃত্ব দেবেন তিনি।

অধিনায়ক হিসেবে সরফরাজের ব্যাপারে মিসবাহ বলেন, ‘অধিনায়ক হিসেবে সরফরাজের নাম সুপারিশ করাটা ধারাবাহিকতার জন্য। সবচেয়ে বড় কথা হলো, সরফরাজের ভেতর থেকে সেরাটা বের করতে আনা আমার পক্ষে সম্ভব। কারণ বেশিরভাগ ক্রিকেটারের চেয়ে আমি অনেক ভালো জানি তার সম্পর্কে, সে বেশিরভাগ ম্যাচ খেলেছে আর অধিনায়কত্বে।’

মিসবাহর অধীনে কাজ করতে আগ্রহী সরফরাজও। তিনি বলেন, ‘পাকিস্তান ক্রিকেট দলের নেতৃত্ব উপভোগ করছি। মিসবাহ-উল-হকের নতুন সেট-আপের অধীনে আমি আমার নেতৃত্বের জায়গা আরও উন্নতি করতে পারব।

অধিনায়ক হিসেবে মিসবাহর সাফল্য তার রেকর্ডই বলে দেয়। তার অধীনে আমি আমার ক্যারিয়ারের বেশিরভাগ ম্যাচ খেলেছি, তাই দুজনের জানাশোনা খুব ভালো। আমার মনে হয়, আমাদের সমন্বয় ভালো হবে।’