‘পুরুষকে দোষারোপের অস্ত্র নয় ‘মি টু’’

টিবিটি টিবিটি

বিনোদন ডেস্ক

প্রকাশিত: ৭:৪৩ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ২০, ২০১৮ | আপডেট: ৭:৪৩:অপরাহ্ণ, অক্টোবর ২০, ২০১৮
বলিউড অভিনেত্রী চিত্রাঙ্গদা সিং

ভারতজুড়ে এখন চলছে ‘হ্যাশট্যাগ মি টু আন্দোলন’ এর ঝড়। কিছুদিন আগেই বলিউড অভিনেত্রী চিত্রাঙ্গদা সিং ‘বাবুমশাই বন্দুকবাজ’ ছবির সেটে তাঁর সঙ্গে হওয়া যৌন হেনস্তার কথা প্রকাশ করেছেন। সম্প্রতি চিত্রাঙ্গদা ভারতের সংবাদ সংস্থা আইএএনএস-কে বলেছেন, হ্যাশট্যাগ মি টু আন্দোলন ‘পুরুষের বিরুদ্ধে লড়াইয়ের বিষয়ে নয়’ এবং ‘পুরুষ বনাম নারীর লড়াইও নয়’। এ আন্দোলন পুরুষের জন্যও বলে মনে করেন তিনি।

চিত্রাঙ্গদা সিং বলেন, ‘এটি (#মিটু) আমাদের সমাজকে নিরাপদ করার একটি পন্থা। এটি পুরুষকে দোষারোপ করার অস্ত্র না। এ আন্দোলন পুরুষদের জন্যও।’ চিত্রাঙ্গদার মত, ‘আমি মনে করি না, কোনো আন্দোলন কেবল একটি নির্দিষ্ট লিঙ্গ নিয়ে কাজ করে। যতক্ষণ না অন্য লিঙ্গের মানুষও যোগ দিচ্ছেন এবং আপনার পাশে না দাঁড়াচ্ছেন, ততক্ষণ সে আন্দোলন গতি পায় না।’

২০১৬ সালে পরিচালক কুশন নন্দীর সঙ্গে বিতর্কের পর ‘বাবুমশাই বন্দুকবাজ’ থেকে বেরিয়ে যান চিত্রাঙ্গদা সিং।

কিছুদিন আগে চিত্রাঙ্গদা অভিযোগ করেছিলেন, ‘বাবুমমশাই বন্দুকবাজ’ ছবির সেটে তাঁর সঙ্গে আপত্তিকর আচরণ করা হলেও নওয়াজুদ্দিন সিদ্দিকি তাঁর সহায়তায় এগিয়ে আসেননি।

পরে অবশ্য চিত্রাঙ্গদা বলেছেন, ‘আমি নওয়াজকে পুরোপুরি দোষারোপ করতে চাই না, কারণ সে জানত না, আমার তখন কেমন লাগছিল। আমি নিশ্চিত, তাঁরও কিছু কারণ ছিল। তাই আমি ওঁর দিকে আঙুল তুলতে চাই না।’

আইএএনএস-কে চিত্রাঙ্গদা বলেন, ‘প্রত্যেক পরিবর্তন তখনই শুরু হয়, যখন আমরা তা নিয়ে কথা বলতে শুরু করি এবং সেই আলোচনা শুরু হয়ে গেছে। বাস্তবিক অর্থে, পশ্চিমা সমাজ ও আমাদের মধ্যে বিশাল পার্থক্য আছে। শুধু ইংরেজি শো ও চলচ্চিত্র দেখলেই সেই সমাজ তৈরি করতে পারব না। আমাদের সমাজে ও আমাদের চিন্তার প্রক্রিয়ার মধ্যে একটি পার্থক্য আছে। এবং এ কারণেই আমরা ভারতে #মিটু আন্দোলন করতে পারি না।’

গত মাসে বর্ষীয়ান অভিনেতা নানা পাটেকারের বিরুদ্ধে সাবেক অভিনেত্রী, বঙ্গতনয়া তনুশ্রী দত্ত যৌন হেনস্তার অভিযোগ করেন। এর পরই বলিউডে শুরু মি টু ঝড়। সেই ঝড় আছড়ে পড়ে রাজনীতির অঙ্গন থেকে সংগীতকলা, চিত্রমাধ্যমেও।

দশ বছর আগের ঘটনা ফের প্রকাশ্যে আনায় তনুশ্রীকে অভিনন্দন জানিয়েছেন চিত্রাঙ্গদা সিং। যাহোক, চিত্রাঙ্গদার ‘বাজার’ সিনেমাটি এখন মুক্তির অপেক্ষায়। সূত্র: এনডিটিভি