প্লিজ আমাকে নিষিদ্ধ করবেন না: কোহলি

প্রকাশিত: ৩:৫০ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ৬, ২০১৮ | আপডেট: ৩:৫০:অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ৬, ২০১৮

এখন থেকে ছয় বছর আগে কোহলি ছিলেন এক তরুণ তুর্কি। অপরিণত মানসিকতায় একটি ভুল করেন ভারতের বর্তমান অধিনায়ক বিরাট কোহলি। যার জন্য আজও লজ্জিত ভারত অধিনায়ক। অনুতপ্ত বিরাটের স্পষ্ট স্বীকারোক্তি, তেমনটা না করলেই বোধহয় ভালো হত।

ক্রিকেটের বাইবেল নামে পরিচিত উইজডেন ক্রিকেট মন্থলিকে দেয়া সাক্ষাৎকারে কোহলি তুলে ধরেন ২০১২ সালে সিডনিতে নিজের বিতর্কিত আচরণের প্রসঙ্গ। সেদিন দর্শকদের টিটকারি সহ্য করতে না পেরে বাঁহাতের মধ্যমা দেখিয়ে বসেছিলেন বিরাট। ওই সময় এটা ব্যপক সমালোচনা হয়েছে ক্রিকেট দুনিয়ায়। এমনকি ম্যাচ রেফারির চোখরাঙানিও হজম করতে হয়েছিল বিরাটকে।

ঘটনার পর ম্যাচ রেফারি রঞ্জন মদুগালের কাছে কীভাবে তাকে নির্বাসিত না করার আকুতি করেছিলেন, সেটাও জানাতে কুণ্ঠা বোধ করেননি কোহলি।

কোহলি বলেন, ‘পরের দিন ম্যাচ রেফারি আমাকে তার রুমে ডাকে। আমার ভাবখানা ছিল এমন যে, ভুল কী আবার করলাম? উনি জিজ্ঞাসা করেন, গত কাল বাউন্ডারির কাছে কি ঘটেছিল? আমি জবাব দিই, তেমন কিছুই হয়নি। একটু মজা করছিলাম মাত্র। তখন একটা সংবাদপত্র আমার দিকে ছুঁড়ে দেন উনি, যার প্রথম পাতায় আমার ছবি ছিল। খুশি হওয়ার মতো মোটেও ছিল না ছবিটা। আমার মধ্যমা দেখানোর ছবিটাই ছাপা হয়েছিল সংবাদপত্রে। তখন আমি বলি, আমি অত্যন্ত দুঃখিত। দয়া করে আমাকে নির্বাসিত (নিষিদ্ধ) করবেন না। উনি ভালো মানুষ। বুঝতে পেরেছিলেন আমার বয়স কম। ওই বয়সে এমনটা করে বসা অস্বাভাবিক নয়।’

ক্যারিয়ারের শুরুর দিকে কোহলিকে নিয়ে বেশ কিছু নেগেটিভ হেডলাইন হয়েছে, যে সম্পর্কে জানাতে গিয়ে বিরাট বলেন, ‘কম বয়সে এমন সব কাজ করেছি, যেগুলো মনে করলে এখন আমার হাসি পায়।’