ফুসফুস ক্যানসার ধূমপান ছাড়া আরও ৪ কারণে হতে পারে!

টিবিটি টিবিটি

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ৯:৪২ পূর্বাহ্ণ, অক্টোবর ৩১, ২০১৮ | আপডেট: ৯:৪২:পূর্বাহ্ণ, অক্টোবর ৩১, ২০১৮
ছবিঃ সংগৃহিত

টিবিটি স্বাস্থ্য-কথাঃ অনেক সময় প্রাথমিক পর্যায়ে ফুসফুস ক্যানসারের লক্ষণগুলো বোঝা যায় না। রোগ অনেকটা বেড়ে যাওয়ার পর লক্ষণগুলো মাথা চাড়া দিয়ে উঠে।

আমাদের ধারণা মূলত ধূমপায়ীদেরই ফুসফুসে ক্যানসার হয়। কারও ফুসফুসে ক্যানসার হলেই আমরা ধরে নিই, তিনি ধূমপায়ী ছিলেন। কিন্তু ধূমপান না করলেও ফুসফুসে ক্যানসার হওয়ার বড় ঝুঁকি থেকেই যায়। ধূমপানের বাইরে যে সব কারণেও ফুসফুস ক্যানসারে হতে পারে চলুন জেনে নেওয়া যাক-





বংশগত কারণ
পরিবারে ক্যানসারের ইতিহাস থাকলে সচেতন হন। বয়স পঞ্চাশ পেরলে নিয়ম করে চেক আপ করান। জেনেটিক মিউটেশনের কারণে কোনও দিন ধূমপান করেননি এমন মানুষও আক্রান্ত হতে পারেন ফুসফুসের ক্যানসারে।

পরোক্ষ ধূমপান
নিজে ধূমপান না করলেও তামাকের ধোঁয়ার চারপাশেই থাকেন আপনি? কাছের কেউ ধূমপায়ী হলে এই সম্ভাবনা খুব বাড়ে। তাই তাকেও ধূমপান থেকে বিরত রাখুন, নিজেও পরোক্ষ ধূমপান থেকে সরে থাকুন। ফুসফুসে তামাকের ধোঁয়া পৌঁছনোর এই উপায়ও ক্যানসারের অন্যতম কারণ। ধূমপানের থেকে দূরে থাকার পাশাপাশি ধূমপায়ীর থেকেও দূরে থাকুন।





দূষণ

আধুনিক জীবনে পরিবেশ দূষণের প্রকোপ অনস্বীকার্য। ক্যানসারের মতো মারণরোগের অন্যতম কারণ এই দূষণ। যানবাহন ও কলকারখানার ধোঁয়ায় থাকা নানা ক্ষতিকারক মৌল- অ্যাসবেসটস, নিকেল, ক্রোমিয়াম, আর্সেনিক এই ধরনের অসুখের জন্য দায়ী।

এ ছাড়া ধোঁয়ার কার্বন মনো অক্সাইড, ওজোন গ্যাস, কার্বন ডাই অক্সাইড ইত্যাদিও শ্বাসের মাধ্যমে ফুসফুসে প্রবেশ করে ক্যানসার ডেকে আনে। যারা দৈনিক রাস্তাঘাটে গাড়ির ধোঁয়ার মধ্যে চলাফেরা করেন, তাদের ক্ষেত্রেই এই ঝুঁকি অনেকটাই বেশি।





পেশাগত কারণ

রাসায়নিক গ্যাস বা ধোঁয়ার মধ্যে কাজ করতে হয় এমন মানুষের ফুসফুসে ক্যানসারের সম্ভাবনা অনেক বেশি। ট্যানারির কিছু বিশেষ বিভাগের কাজ, আকরিকের খনিতে কাজ, ইটভাটা, ড্রাইভিং, কারখানায় কাজ বা দীর্ঘ ক্ষণ চুলোর ধোঁয়ার সামনে দাঁড়িয়ে কাজ করেন এমন মানুষদের এই অসুখে আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা বেশি। এমন পেশার সঙ্গে একান্তই যুক্ত থাকতে হলে নিয়মিত চিকিৎসকের পরামর্শ নিন, চেক আপ করান ও মাস্ক ব্যবহার করুন।

সূত্র: আনন্দবাজার