বাংলাদেশর বিশ্বকাপ ম্যাচে ফিক্সিংয়ের অভিযোগ

টিবিটি টিবিটি

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ৩:৫০ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ২২, ২০১৮ | আপডেট: ৩:৫০:অপরাহ্ণ, অক্টোবর ২২, ২০১৮
সংগৃহীত

কাতারভিত্তিক সংবাদ মাধ্যমটি কয়েক মাস আগেও গোপন ক্যামেরা অভিযান চালিয়ে একই দাবি তোলে এবং এই নিয়ে তারা ক্রিকেট বিশ্বে তোলপাড় ফেলে দেয়। আল জাজিরা এবার আরও চাঞ্চল্যকর অভিযোগ এনেছে।

নবম উইকেটে মাহমুদউল্লাহ ও শফিউল হকের দুর্দান্ত এক জুটিতে ২০১১ বিশ্বকাপের গ্রুপ পর্বের ম্যাচে ইংলিশদের বিপক্ষে দুই উইকেটের জয় পেয়েছিল বাংলাদেশ। আল জাজিরার এক তথ্যচিত্রে জানানো হয়েছে, ওই ম্যাচে নাকি ফিক্সিং হয়েছিল!

২০১১ থেকে ২০১২ সালের মধ্যে ফিক্সিং হয়েছে নির্দিষ্ট করে এমন ১৫টি আন্তর্জাতিক ক্রিকেট ম্যাচের কথা উল্লেখ করে রোববার আল-জাজিরা জানিয়েছে সে ম্যাচগুলোতে ফিক্সিং হয়েছে। এর মধ্যে আছে ২০১১ সালের বিশ্বকাপে চট্টগ্রামের জহুর আহমদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে বাংলাদেশের দুর্দান্ত জয়ের ম্যাচটিও।

আল-জাজিরা দাবি করেছে ম্যাচ গড়াপেটা-কাণ্ডে জড়িত ব্যক্তির সঙ্গে কথা বলেই এই ম্যাচ গুলির তালিকা প্রস্তুত করা হয়েছে। সেই ব্যক্তিই ফোনে ও গোপন ক্যামেরার সামনে সরাসরি বলে দেন এই ম্যাচ গুলির কথা। ২০১১ বিশ্বকাপে চট্টগ্রামে বাংলাদেশ-ইংল্যান্ড ম্যাচ ছাড়াও সেই তালিকায় আছে ২০১১ সালে ভারতের ইংল্যান্ড সফরে লর্ডসের প্রথম টেস্ট।

সে ম্যাচে ১৯৬ রানে হেরেছিল ভারত। পাশাপাশি ২০১১ সালেই দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে অস্ট্রেলিয়ার ৪৭ রানে গুটিয়ে যাওয়া ম্যাচটিও এই তালিকায় আছে। পাকিস্তান ক্রিকেট দলেরও একাধিক ম্যাচ আছে আল-জাজিরার সন্দেহের তালিকায়।

যে ১৫টি ম্যাচের তালিকা দেওয়া হয়েছে তাতে বেশির ভাগ ম্যাচই ইংল্যান্ড ও অস্ট্রেলিয়ার। প্রায় ১৩টি ম্যাচেই হয় ইংল্যান্ডের নয়তো অস্ট্রেলিয়ার। তালিকার ৫টি ম্যাচ ২০১১ ওয়ানডে বিশ্বকাপের, ৩টি ম্যাচ ২০১২ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের।

আল-জাজিরা কয়েক মাস আগেও যে অভিযোগ তুলেছিল, সেখানেও ইংলিশ ও অস্ট্রেলীয় ক্রিকেটারদেরই সন্দেহের তালিকায় রাখা হয়েছিল। ইংলিশ ও অস্ট্রেলীয় ক্রিকেট বোর্ড অবশ্য কাতারভিত্তিক টেলিভিশন চ্যানেলটির সে অভিযোগ সরাসরি অস্বীকার করেছিল।

আইসিসি জানিয়েছে, আগের মতো এবারও তারা আল জাজিরার ভিডিও নিয়ে তদন্ত করবে, ‘আইসিসি সবসময়ই ফিক্সিংয়ের বিরুদ্ধে লড়াই করছে। এর আগেও আল জাজিরার পক্ষ থেকে কিছু ফিক্সিংয়ের অভিযোগ এসেছিল। সেবারের মতো আমরা নতুন ভিডিও নিয়ে তদন্ত করব। আমরা তাদের কাছে বিস্তারিতও জানতে চেয়েছি।’

আল-জাজিরার সন্দেহের তালিকার ম্যাচগুলি:

১. অস্ট্রেলিয়া-ইংল্যান্ড, ওয়ানডে ২১ জানুয়ারি ২০১১
২.অস্ট্রেলিয়া-জিম্বাবুয়ে, ওয়ানডে (বিশ্বকাপ) ২১ ফেব্রুয়ারি, ২০১১
৩. ইংল্যান্ড-নেদারল্যান্ডস, ওয়ানডে (বিশ্বকাপ) ২২ ফেব্রুয়ারি ২০১০
৪. অস্ট্রেলিয়া-কেনিয়া, ওয়ানডে (বিশ্বকাপ), ১৩ মার্চ ২০১১
৫.ইংল্যান্ড-দক্ষিণ আফ্রিকা, ওয়ানডে (বিশ্বকাপ), ৬ মার্চ, ২০১১
৬.ইংল্যান্ড-বাংলাদেশ, ওয়ানডে (বিশ্বকাপ), ১১ মার্চ ২০১১
৭.ইংল্যান্ড-ভারত, টেস্ট, ২১-২৫ জুলাই ২০১১
৮.অস্ট্রেলিয়া-দক্ষিণ আফ্রিকা, টেস্ট ৯-১১ নভেম্বর ২০১১
৯.অস্ট্রেলিয়া-নিউজিল্যান্ড, টেস্ট, ৯-১২ ডিসেম্বর ২০১১
১০. ইংল্যান্ড-পাকিস্তান, টেস্ট, ১৭-১৯ জানুয়ারি ২০১২
১১. ইংল্যান্ড-পাকিস্তান, টেস্ট, ২৫-২৮ জানুয়ারি ২০১২
১২.ইংল্যান্ড-পাকিস্তান, টেস্ট, ৩-৬ ফেব্রুয়ারি ২০১২
১৩. শ্রীলঙ্কা-জিম্বাবুয়ে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১২
১৪. ইংল্যান্ড-আফগানিস্তান টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ, ২১ সেপ্টেম্বর ২০১২
১৫. দক্ষিণ আফ্রিকা-পাকিস্তান, টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০১২।