বাগেরহাটে লকডাউন না মানায় ৮৬ জনকে জরিমানা ও একজনকে ৭ দিনের কারাদন্ড

প্রকাশিত: ৬:২৯ অপরাহ্ণ, জুলাই ২৭, ২০২১ | আপডেট: ৬:৩০:অপরাহ্ণ, জুলাই ২৭, ২০২১

দেশব্যাপী দ্বিতীয় দফা কঠোর লকডাউনের পঞ্চম দিন মঙ্গলবার বাগেরহাট জেলা ও উপজেলা শহরের হাট-বাজারের অধিকাংশ দোকাপাট-ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বন্ধ রয়েছে।

গুরুত্বপূর্ন পয়েন্টে বসানো হয়েছে চেকপোস্ট। সকাল থেকে শহরে টহর দিচ্ছে সেনাবাহিনী, নৌবাহিনী বিজিবিসহ আইন-শৃংখলারক্ষা বাহিনীর সদস্যরা। তবে, এসবের ফাঁকগলিয়ে সড়ক-মহাসড়কে মহেন্দ্র, ইজিবাইক, ইঞ্চিন চালিত নসিমন-করিমন, রিক্স-ভ্যান চলাচল করতে দেখাগেছে। মোংলায় নিষেধাজ্ঞা উপেক্ষা করে খোলা রয়েছে বন্দরের শিল্প এলাকার কিছু কিছু কলকারখানা। সকালে মোংলার মামার ঘাট দিয়ে খেয়া পার হয়ে সে সকল কারখানায় যেতে দেখা গেছে শ্রমিক-কর্মচারীদের।

জেলা ও ও উপজেলা সদরে লোক ও যাবাহন চলাচল প্রতিদিনই বাড়ছে। এই অবস্থায় লকডাউন প্রতিপালনে জেলাজুড়ে কাজ করছে ভ্রাম্যমাণ আদালতের ১৪ টি টিম। লকডাইন ও করোনা স্বাস্থ্যবিধি না মানায় গত ২৪ ঘন্টায় বাগেরহাটে ভ্রাম্যমান আদালত ৮৬ জনকে ৫৭ হাজার ৫০০ টাকা অর্থদন্ড জরিমানা ও একজনকে ৭ দিনের কারাদন্ড দিয়েছেন।

এদিকে মোংলা বন্দর কর্তৃপক্ষের হারবার মাস্টার কমান্ডার শেখ ফখরউদ্দীন জানান, সরকারের নির্দেশে দেশের আমদানী-রপ্তানী বাণিজ্য সচল রাখতে কঠোর লকডাউনের মধ্যেও মোংলা সমুদ্র বন্দরে বিদেশী বাণিজ্যিক জাহাজের আগমন ও নির্গমন স্বাভাবিক রয়েছে।

সকাল থেকে বন্দরের পশুর চ্যানেল ও জেটিতে অবস্থানরত পণ্যবাহী জাহাজের মালামাল ওঠানামা ও পরিবহণের কাজ চলছে। করোনা মহামারীর মধ্যেও জীবনের ঝুঁকি নিয়ে এ কার্যক্রম পরিচালনায় সর্বাত্মক প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন বন্দরের হারবার বিভাগ।