‘বিচার না হলে আমি কোনো রোগী দেখবো না’

টিবিটি টিবিটি

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ৯:৩৭ অপরাহ্ণ, এপ্রিল ১৪, ২০২০ | আপডেট: ৯:৩৭:অপরাহ্ণ, এপ্রিল ১৪, ২০২০

বিচার নাহলে আমি আর কোনো রোগী দেখব না, এদেশে সবচেয়ে বড় পাপ ক্ষমতাশীল না হওয়া।

আমি ৩৯ বিসিএস এ নিয়োগপ্রাপ্ত একজন মেডিকেল অফিসার। উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স দিরাই, সুনামগঞ্জে কর্মরত। আজকে সকালে ইমার্জেন্সিতে ডিউটিতে থাকাকালীন সকাল ৬.২০-৬.৩০ র দিকে রাজিব নামে একজন এসে বলল, তার সাথে বাসায় যেতে হবে উপজেলা চেয়ারম্যান অসুস্থ। সে উপজেলা চেয়ারম্যানের ভাগিনা৷ আমি বললাম, আমি ইমার্জেন্সিতে ডিউটিতে, বাসায় যেতে পারব না৷ ইমারজেন্সি খালি রেখে যাওয়া যাবে না৷ উনাদের UHFPO স্যারের সাথে যোগাযোগ করতে বললাম। যদি না যাবেন তো রাস্তায় নিয়ে পিটাবো।

ইমারজেন্সি চেয়ার লাথি দিয়ে ফেলে দিল একজন। আরেকজন ম’সজিদের দান বাক্স টেবিলে বাড়ি দিয়ে বলল এটা আমার মাথায় মাথায় মারবে পরের বার।

এরকম করে ১৫-২০ মিনিট গালিগালাজ করার পর UHFPO স্যারসহ আমার কলিগরা আসে। এই তিনজন তাদেরকেও গালিগালাজ করে৷ তারপর UHFPO স্যার এদের সাথে একজন ডাক্তারকে বাসায় পাঠিয়ে পরিস্থিতি শান্ত করেন৷

এখন কথা হলো, আমি ইমারজেন্সি ছেড়ে যেতে পারতাম, কিন্তু তখন যদি একজন শ্বাসকষ্টের রোগী আসতেন, তখন ইমারজেন্সিতে কে রোগী দেখত? চেয়ারম্যান সাহেবের ভাই, ছেলে আর ভাগিনা? আমি যাইনি, তাই উনারা হুমকি দিয়েছেন৷

এই মহামারীর সময়ে আমরা একটু ঝুঁকি নিয়ে কাজ করছি, এর মাঝে এই রকম হুমকি,গালাগালি শুনলে আর কাজ করতে ইচ্ছে করে না৷ তখন মনে হয়- এদেশে সবচেয়ে বড় পাপ ক্ষমতাশালী না হওয়া,দ্বিতীয় পাপ ডাক্তার হওয়া৷

তবে এর কোনো বিচার নাহলে, আমি আর কোন রোগী দেখব না৷ It’s loud and clear.