বিদ্যুৎ বিভ্রাটে সংসদ অধিবেশন মুলতবি

টিবিটি টিবিটি

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ১০:৩৭ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১১, ২০১৮ | আপডেট: ১০:৩৭:অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১১, ২০১৮

টিবিটি জাতীয়ঃবিদ্যুৎবিভ্রাটের কারণে জাতীয় সংসদ অধিবেশন মুলতবি করা হয়েছে। জাতীয় সংসদের ২২তম অধিবেশনের তৃতীয় কার্যদিবসে অধিবেশন শুরুর মাত্র সোয়া একঘণ্টার মাথায় তা মুলতবি ঘোষণা করা হয়। পাঁচ বছর আগেও একবার বিদ্যুৎ বিভ্রাট দেখা দিয়েছিল জাতীয় সংসদে। সংসদ স্থাপনের পর এটিই বিদ্যুৎ বিভ্রাটের সর্বোচ্চ মাত্রা।

মঙ্গলবার (১১ সেপ্টেম্বর) বিকেল ৫টার দিকে অধিবেশনের কার্যক্রম শুরুর পর সোয়া ৬টার দিকে তা মুলতবি ঘোষণা করেন ডেপুটি স্পিকার ফজলে রাব্বী। এসময় জাতীয় সংসদে বিদ্যুৎ সংযোগ ছিল না এবং ইন্টারনেট সংযোগও কাজ করছিল না। একইসঙ্গে জাতীয় সংসদের সাউন্ড সিস্টেমেও গোলোযোগ দেখা যায়।

কয়েকজন সংসদ সদস্যের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, মঙ্গলবার বিকেল ৫টায় শুরু হয় সংসদ অধিবেশন। এর কিছুক্ষণ পরই শুরু হয় বিদ্যুৎ বিভ্রাট। বেশ কয়েকবার বিদ্যুৎ চলে যায় ও আসে।

এসময় সংসদের অধিবেশন কক্ষে আলোকস্বল্পতা দেখা দেয় এবং সাউন্ড সিস্টেমও সঠিকভাবে কাজ করছিল না। ফলে অধিবেশন চালানোর মতো পরিস্থিতি ছিল না অধিবেশন কক্ষে। এসময় সংসদ নেতা ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবং বিরোধী দলীয় নেতা রওশন এরশাদ অধিবেশন কক্ষে উপস্থিত ছিলেন না।

এদিন, স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে অধিবেশনের কার্যক্রম শুরু হয়। কয়েকজন মন্ত্রীর প্রশ্নোত্তর পর্বের পর তিনি সংসদ ত্যাগ করলে ডেপুটি স্পিকারের নেতৃত্বে সংসদ চলতে থাকে।একপর্যায়ে ভূমিমন্ত্রী শামসুর রহমান শরীফ ডিলু একজন সংসদ সদস্যের সম্পূরক প্রশ্নের উত্তর দেওয়ার পরই ডেপুটি স্পিকার অধিবেশন মুলতবির ঘোষণা দেন। তিনি বলেন, দিনের কর্মসূচি স্থগিত করে আজকের জন্য সংসদ মুলতবি ঘোষণা করা হলো।

সংসদ সদস্যের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, পাঁচ বছর আগেও একবার বিদ্যুৎ বিভ্রাট দেখা দিয়েছিল জাতীয় সংসদে। তবে সেদিন বিদ্যুৎ চলে যাওয়ার মিনিট পাঁচেকের মধ্যেই তা ফিরে আসে এবং স্বাভাবিকভাবে সংসদের কার্যক্রম চলতে থাকে। কিন্তু আজ প্রায় ঘণ্টাখানেকের প্রচেষ্টাতেও বিদ্যুৎ পরিস্থিতি স্বাভাবিক করা যায়নি বলে বাধ্য হয়ে সংসদ অধিবেশন মুলতবি ঘোষণা করতে হয়েছে। সংসদ স্থাপনের পর এটিই বিদ্যুৎ বিভ্রাটের সর্বোচ্চ মাত্রা।

এদিকে, আজ সংসদ অধিবেশনে গুরুত্বপূর্ণ বেশ কয়েকটি বিল উত্থাপন হওয়ার কথা ছিল। অধিবেশন মুলতবি হওয়ায় সেটা সম্ভব হয়নি।

এর আগে, গত রোববার (৯ সেপ্টেম্বর) শুরু হয় দশম জাতীয় সংসদের ২২তম অধিবেশন। ওই দিন সংসদের কার্যউপদেষ্টা কমিটির বৈঠকে সিদ্ধান্ত হয়, আগামী ২০ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত চলবে অধিবেশন। প্রতিদিন বিকেল ৫টায় অধিবেশন শুরু হবে। প্রতি শুক্র ও শনিবার অধিবেশন বন্ধ থাকবে। তবে প্রয়োজনে দিন ও সময় স্পিকার পরিবর্তন করতে পারবেন। একইসঙ্গে আগামী অক্টোবর মাসেও দশম জাতীয় সংসদের আরেকটি অধিবেশন বসবে বলে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে ওই বৈঠকে। তবে সেই অধিবেশনের তারিখ নিয়ে কোনো সিদ্ধান্ত হয়নি।