বিপিএলে দল পেয়ে না শাহরিয়ার নাফিস

টিবিটি টিবিটি

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ১১:১৫ পূর্বাহ্ণ, অক্টোবর ২৯, ২০১৮ | আপডেট: ১১:১৫:পূর্বাহ্ণ, অক্টোবর ২৯, ২০১৮
সংগৃহীত

ড্রাফট থেকে বেশকিছু তরুণ খেলোয়াড় এবার প্রথম দফায় দল পেয়েছেন। আবার দেশ-বিদেশের বেশ কিছু বড় নাম আছে, যারা বিপিএলে খেলার জন্য ড্রাফটে নাম পাঠিয়েছিলেন, কিন্তু তাদের প্রতি কোনো দল আগ্রহ দেখায়নি।

বিপিএলের ষষ্ট আসরের সময় পাকিস্তান, ওয়েস্ট ইন্ডিজের সিরিজ থাকায় এই দুই দেশের খেলোয়াড় কিনতে বেশ চিন্তাভাবনা করেছেন ফ্রাঞ্চাইজির কর্মকর্তারা। অবাক করার বিষয় হল ড্যারেন ব্রাভোর মতো ক্রিকেটার জাতীয় দল থেকে অবসর নেয়ার পরও রোববার তাকে কোনো দল নেয়নি।

দল পাননি জাতীয় দলের এক সময়ের নিয়মিত ওপেনার শাহরিয়ার নাফিস। দল না পেয়ে বেশ অবাক এই ক্রিকেটার। দল না পাওয়া নিয়ে কথা বলেছেন দেশের প্রথম সারির এক গণমাধ্যমের সঙ্গে।

বিপিএলে দল না পাওয়ায় অবাক হয়েছেন?

হ্যাঁ, বেশ অবাক হয়েছি বলতে পারেন।

কেন কোনো দল আপনাকে নিল না বলে মনে হয়?

আমি ঠিক জানি না। জানি না বলেই অবাক হচ্ছি। বিপিএলে আমার আগের পাঁচ টুর্নামেন্টের পরিসংখ্যান দেখুন। রান সংখ্যায় বাংলাদেশি ক্রিকেটারদের মধ্যে আমি সম্ভবত ১১ নম্বরে। ৪৩টির মতো ম্যাচ খেলেছি; রান করেছি সাড়ে নয় শর ওপরে।

আগের ১০ জনের মধ্যে শুধু তামিম ছাড়া বাকি সবাই আমার চেয়ে অনেক বেশি ম্যাচ খেলেছে। এই রেকর্ডের কথা দলগুলো জানে কি না, জানি না। জানলে কোনো দলই আমাকে নেবে না, এটি অবশ্যই আমাকে অবাক করেছে।

গত মৌসুমটা তো ভালো কাটেনি। ৮ ম্যাচে কোনো ফিফটি নেই, করেছেন মোটে ১০৮ রান। এ কারণেই কী…

গত বিপিএল দিয়ে বিচার করাটা বোধহয় ঠিক হবে না। কেননা গেলবার একাদশে পাঁচ বিদেশি ক্রিকেটার খেলানোর সুযোগ ছিল। তাঁদের বেশির ভাগই ব্যাটসম্যান। বেশির ভাগ ম্যাচেই টিম ম্যানেজমেন্ট তাঁদের ব্যাটিংয়ের ওপর ভরসা করেছে।

দেশি ব্যাটসম্যানদের সুযোগ কম ছিল। তাঁদের ব্যাটিং অর্ডারের ঠিকঠিকানাও ছিল না। এক মোহাম্মদ মিঠুনকে বাদ দিলে বাংলাদেশের অন্য প্রায় সব ব্যাটসম্যান গত বিপিএলে ধুঁকেছে। আমিও ব্যতিক্রম নই। সুত্র: বিডি২৪লাইভ