বিয়ের অনুষ্ঠানের খাবার খেয়ে হাসপাতালে ৯৬ জন, নারীর মৃত্যু

টিবিটি টিবিটি

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ৭:৫১ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১৩, ২০১৯ | আপডেট: ৭:৫১:অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১৩, ২০১৯

সুনামগঞ্জ সদর উপজেলার মোল্লা পাড়া ইউনিয়নের সাদকপুর গ্রামে বিয়ের দাওয়াত খেয়ে অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হওয়া রোগীর সংখ্যা ৫৬ থেকে ৯৬ জনে এসে দাঁড়িয়েছে। এরমধ্যে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে জলি রাণী দেব (৩৫) নামে এক নারীর মৃত্যু হয়েছে।

শুক্রবার বিকেলের দিকে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে মারা যান জলি। তিনি সুনামগঞ্জ শহরের ওয়েজখালী এলাকার সঞ্জু দেবের স্ত্রী।

সুনামগঞ্জ সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শহিদুল ইসলাম হাসপাতালের বরাত দিয়ে মৃত্যুর সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

সুনামগঞ্জের সিভিল সার্জন আশুতোষ দাসের ভাতিজি চন্দনা তালুকদারের বিয়ের রাতে খাওয়া-দাওয়ার পর থেকে সমস্যা শুরু হয়। একে একে ডায়রিয়ায় আক্রান্ত হয়ে বৃহস্পতিবার সকাল থেকে বর ও কনে পক্ষের লোকজন সুনামগঞ্জ সদর হাসপাতালে ভর্তি হতে থাকে। এ সংক্রান্ত সমস্যা নিয়ে সুনামগঞ্জ সদর হাসপাতালে ভর্তি হন মোট ৫৬ জন।

এদিকে একই ঘটনায় বর পক্ষের প্রায় ৪০ জন দিরাই উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি হয়েছেন। তার মধ্যে ৮ জনের অবস্থার অবনতি হলে তাদেরকে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়।

আরো পড়ুন: বিয়ের দাওয়াত খেয়ে অসুস্থ ৫৬ জন

সুনামগঞ্জ সদর হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসক ডা. রফিকুল ইসলাম বলেন, খাবার হজম না হওয়ায় এবং ফুড পয়েজনিং থেকে এই সমস্যা সৃষ্টি হয়েছে। আমরা সার্বক্ষণিক হাসপাতালে আছি। কারো অবস্থার অবনতি দেখলেই তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হচ্ছে। কিছু সময় আগেও দুই জনকে সিলেট পাঠানো হয়েছে।

জানা গেছে, বুধবার রাতে দিরাই উপজেলার তাড়ল ইউনিয়নের ডাইয়ারগাঁও গ্রামের মিহির তালুকদার ও সদর উপজেলার মোল্লাপাড়া ইউনিয়নের শাধদপুর গ্রামের মৃত প্রাণেশ তালুকদারের মেয়ে চন্দনা তালুকদারের বিয়ের অনুষ্ঠানে কনের বাড়িতে খাবার খেয়েই ঘটনার সূত্রপাত।

খাবারের মেনুতে ছিল মাছ, মুরগীর মাংস ও দই। তবে কী কারণে এ ধরনের সমস্যা হল এবং খাবারে বিষাক্ত কিছু ছিল কিনা আক্রান্তদের কেউ তা বলতে পারেনি।