বিয়ে নয়, প্রেমেই আস্থা শ্রাবন্তীর!

টিবিটি টিবিটি

বিনোদন ডেস্ক

প্রকাশিত: ৮:০৬ অপরাহ্ণ, জুলাই ২৭, ২০২১ | আপডেট: ৮:০৬:অপরাহ্ণ, জুলাই ২৭, ২০২১

শ্রাবন্তীর জীবনে নাকি রোশন সিং এখন ‘ক্লোজড চ্যাপ্টার’। তৃতীয় স্বামীকে ভুলে জীবনপথে অনেকখানি এগিয়ে গিয়েছেন এই অভিনেত্রী। গত কয়েকমাস ধরেই রোশন সিংয়ের সঙ্গে এক ছাদের তলায় থাকেন না শ্রাবন্তী। রোশন সংসার করতে আগ্রহী হলেও কোনওভাবেই এই দাম্পত্য সম্পর্ক টিকিয়ে রাখতে চান না অভিনেত্রী। বিয়ে ভাঙলেও নিজের কাজের ব্যাপারে ভীষণ সিরিয়াস নায়িকা, পেশাদার জীবনে নিজের ব্যক্তিজীবনের প্রভাব পড়তে দেন না তিনি।

এর মাঝেই শ্রাবন্তীর নতুন প্রেমের জল্পনা চরমে। যদিও সেই নিয়ে প্রকাশ্যে মুখ খোলেননি এই টলি নায়িকা। তবে টলিগঞ্জে কান পাতলেই শোনা যাচ্ছে, শ্রাবন্তীর জীবনে ফের বসন্ত এসে গেছে। ব্যবসায়ী অভিরূপ নাগ চৌধুরীর সঙ্গে শ্রাবন্তীর প্রেমের আলোচনা এখন টলিপাড়ায় আলোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে।

নতুন করে বাঁচার রসদ খুঁজছেন শ্রাবন্তী! নায়িকার ব্যক্তিগত জীবন চড়াই-উতরাইতে ভরপুর। রোশনের সঙ্গে মনের দূরত্ব তৈরি হওয়ার পর গত ৯ মাস যাবত সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে একের পর এক ইঙ্গিতবাহী বার্তা পোস্ট করেন এই টলি নায়িকা। এবারও তার ব্যতিক্রম হল না।

মঙ্গলবার সকালে সোশ্যাল মিডিয়ায় শ্রাবন্তীর বার্তা, ‘জীবনে একটা মাত্রই খুশি রয়েছে, তুমি ভালোবাসবে এবং কেউ তোমাকে ভালোবাসবে’। এই বার্তার সঙ্গে একটি নিজস্ব পোস্ট করেন অভিনেত্রী। সেখানে অফ হোয়াইট প্রিন্টেট শার্টে দেখা মিলল এই সুন্দরী নায়িকার। অভিনেত্রীর বাঁকা চোখের চাউনি রীতিমতো ঘায়েল অনুরাগীরা।

শ্রাবন্তীর ভাঙা সম্পর্কের কথা কারুর অজানা নয়। রাজীব বিশ্বাসের সঙ্গে খুব অল্প বয়সেই বিয়ে করেছিলেন, তবে সুখের ছিল সেই সম্পর্ক তেমনটা বলা যাবে না। দীর্ঘদিন আলাদা থাকার পর ২০১৬ সালে আইনি বিচ্ছেদ হয় দুজনের। সেই বছরই মডেল কিষাণ বিরাজকে বিয়ে করেন নায়িকা।

কিন্তু এক বছর পরেই আলাদা হয় এই জুটির পথ। অবশেষে ২০১৯ সালের জানুয়ারি মাসে আইনি বিচ্ছেদ হয় দুজনের। এর মাস কয়েকের মধ্যেই রোশন সিং-কে বিয়ে করেন শ্রাবন্তী। এখন শোনা যাচ্ছে, এই বিয়ে একদম নতুন করে জীবন শুরু করতে চান অভিনেত্রী। সেই পথের সঙ্গী হিসাবে ইতিমধ্যেই অভিরূপ নাগ চৌধুরী বলে এক ব্যবসায়ীকে বেছে নিয়েছেন তিনি, তেমনটাও শোনা যাচ্ছে। রোশন-শ্রাবন্তীর আইনি বিচ্ছেদ হবে কিনা সেই দিকেই নজর সকলের। এই জুটির মামলার পরবর্তী শুনানির দিন ধার্য রয়েছে ২১ অগস্ট। -হিন্দুস্তান টাইমস