বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি দাবির কথা ভুলে গিয়েছিলেন ড. কামাল

টিবিটি টিবিটি

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ৭:৫৬ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ২৪, ২০১৮ | আপডেট: ৭:৫৬:অপরাহ্ণ, অক্টোবর ২৪, ২০১৮

গণফোরামের সভাপতি ও জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের অন্যতম প্রধান নেতা ড. কামাল হোসেন বলেছেন, আমরা ৭ দফা কর্মসূচি দিয়েছি। সিলেটে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের সমাবেশ থেকে দেশের রাজনীতিতে নতুন বার্তা আসছে; এমন একটা আভাস ছিল গত কয়েক দিন থেকে। অবশেষে নির্দিষ্ট কোনো বিশেষ ঘোষণা ছাড়াই শেষ হলো জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের প্রথম সমাবেশ।

সমাবেশ ঘিরে যে ৭ দফা নিয়ে এতো আলোচনা, বক্তব্যে এসে সেই ৭ দফার প্রথম দফাই ভুলে গেলেন গণফোরামের সভাপতি ও ঐক্যফ্রন্টের শীর্ষ নেতা ড. কামাল হোসেন। অবশেষে মঞ্চ থেকে অন্য আরেক নেতা এসে মনে করিয়ে দেয়ার পর তা দাবি আকারে তুলে ধরলেন এ প্রবীণ নেতা।

সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে ড. কামাল হোসেন একে একে বিভিন্ন বিষয়ে বলে যাচ্ছিলেন। এর মধ্যে একেবারে শেষের দিকে এসে দেশের মানুষ যাতে সকল অধিকার ভোগ করতে পারে সে কথা সেজন্য ঐক্যের জয় হোক বলে তিনি যখন সবার কাছ থেকে বিদায় নিচ্ছিলেন। ঠিক তখনই মঞ্চে বসা থেকে উঠে এসে কয়েক সেকেন্ড কানাকানি করে কিছু একটা বললেন গণফোরামের সাধারণ সম্পাদক সুব্রত চৌধুরী। আর সেই কথা শুনে কয়েক সেকেন্ড নীরব থেকে ড. কামাল হোসেন পুনরায় তুলে ধরলেন সেই ৭ দফার প্রথম দফার কথা। বললেন- ‘আমাদের সাত দফার প্রথমেই আছে খালেদা জিয়ার মুক্তির কথা, তাই উনার মুক্তির দাবি জানাচ্ছি।’

এর আগে প্রধান অতিথির বক্তব্যে ড. কামাল বলেন- ঐক্যফ্রন্টের ব্যানারে জনগণ আজ ঐক্যবদ্ধ। ঐক্যফ্রন্ট ঐক্যবদ্ধ হলে বিজয় অনিবার্য।

বুধবার বিকেলে সিলেট সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আরিফুল হক চৌধুরীর সভাপতিত্বে এবং জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আলী ও মহানগর বিএনপির সহ সাধারণ সম্পাদক আজমল বকত সাদেকের যৌথ পরিচালনায় সমাবেশে ড. কামাল হোসেন আরো বলেন, সরকার সবসময় বিলে উন্নয়নের কথা। কিন্তু কার উন্নয়ন? এটা হচ্ছে কতিপয় মানুষের উন্নয়ন। যারা বিদেশে টাকা পাচার করছে, জনগণের ভোটাধিকার কেড়ে নিচ্ছে তাদের উন্নয়ন।

ঐক্যফ্রন্টের ৭ দফার ব্যাপারে তিনি বলেন- আপনারা ৭ দফা মনোযোগ সহকারে দেখেন, ভালো করে পড়েন। গ্রামে গ্রামে যান, উপজেলায় যান, জেলায় যান, মানুষকে এসব দাবির প্রতি সম্পৃক্ত করতে হবে।

তিনি বলেন, সংবিধানে আছে জনগণই দেশের মালিক, কিন্তু জনগণকে তাদের মালিকানা থেকে বঞ্চিত করে রাখা হয়েছে। কোটি কোটি মানুষ জীবন দিয়েছিল দেশের মালিকানার জন্য। কিন্তু দেশের মানুষ দেশের মালিক না হলে আমরা প্রকৃত অর্থে স্বাধীন হতে পারি না। শান্তিপূর্ণ আন্দোলনের মাধ্যমে এ মালিকানা ফিরিয়ে আনতে হবে।

এসময় কামাল বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের কথা টানেন। তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন ছিল, জনগণ ক্ষমতার মালিক। আসুন আমাদেরকে ক্ষমতার মালিক হতে হবে।

সমাবেশে আরো বক্তব্য রাখেন- বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম, জেএসডি সভাপতি আ.স.ম আবদুর রব, বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ, বাবু গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, আবদুল মঈন খান, সাবেক ছাত্রনেতা সুলতান মনসুর, গণফোরামের কার্যকরী সভাপতি সুব্রত চৌধুরী, বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান মোহাম্মদ শাহজাহান, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আমান উল্লাহ আমান, এনামুল হক, খন্দকার আবদুল মুক্তাদির, সহপ্রচার সম্পাদক কৃষিবিদ শামীমুর রহমান, বিএনপি চেয়ারপারসনের গণমাধ্যম শাখার সদস্য শামসুদ্দিন দিদার, শায়রুল কবীর খান প্রমুখ।