মধ্য এশিয়ার বৃহত্তম মসজিদ উদ্বোধন করলেন এরদোগান

টিবিটি টিবিটি

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ৭:৩৪ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ৩, ২০১৮ | আপডেট: ৭:৩৪:অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ৩, ২০১৮

টিবিটি সারাবিশ্বঃমধ্য এশিয়ার দেশ কিরগিজিস্তান সফরে গিয়ে দেশটির সবচেয়ে বড় মসজিদ উদ্বোধন করলেন তুর্কি প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়্যেপ এরদোগান। রাজধানী বিশকেকে নির্মিত মসজিদটির নাম ইমাম সেরাহসি মসজিদ। ৭ হাজার বর্গমিটার আয়তনের মসজিদটিতে এক সাথে ৩০ হাজার মুসুল্লি নামাজ আদায় করতে পারবেন।

শুধু কিরগিজিস্তান নয়, মধ্য এশিয়া অঞ্চলের মধ্যেই এটি সবচেয়ে বড় মসজিদ। এক সময় সোভিয়েত ইউনিয়নের অংশ ছিল মধ্য এশিয়ার দেশগুলো। দীর্ঘদিনের কমিউনিস্ট শাসনের ফলে কিরগিজস্তান, কাজাখস্তান, উজবেকিস্তানের মতো মুসলিম প্রধান দেশগুলো থেকে ইসলামী সংস্কৃতির চর্চা অনেকটাই কমে যায়।

সোভিয়েত ইউনিয়ন থেকে মুক্ত হয়ে স্বাধীন দেশ হিসেবে আত্মপ্রকাশ করলেও দেশগুলোর রাজনীতি এখনো বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই সোভিয়েত প্রভাব থেকে বের হতে পারেনি। ফলে ইসলাম চর্চা খুবই কম এই দেশগুলোতে।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে এরদোগান বলেন, ‘দেশ ভিন্ন ভিন্ন হলেও সবকিছুর উর্ধ্বে উঠে আমরা সবাই মুসলিম উম্মাহ’। তিনি সারাবিশ্বের মুসলিমদের ঐক্য, সংহতি ও সহযোগিতার বিষয়ে গুরুত্বারোপ করেন। গত সপ্তাহে তিন দিনের রাষ্ট্রীয় সফরে কিরগিজস্তানে যান তুরস্কের প্রেসিডেন্ট ও ফার্স্ট লেডি।

শুধুতাই নয়, নামাজের জায়গা ছাড়াও মসজিদ কমপ্লেক্সটির ভেতরে রয়েছে ধর্মীয় শিক্ষার ক্লাসরুম, সম্মেলন কক্ষ, ডাইনিং রুম ও বিশাল পার্কিং এরিয়া। চার কোনায় রয়েছে ৪টি মিনার, যার উচ্চতা প্রতিটির ৬৮ মিটার।

মধ্য এশিয়ার অন্যান্য দেশগুলোর তুলনায় কিরগিজিস্তানে ইসলামের আগমন ঘটেছে অনেক দেরিতে এবং সোভিয়েত যুগে এই দেশটির মুসলিমরা অন্যদের চেয়ে বেশি নির্যাতন সহ্য করেছে। সোভিয়েত যুগের পতনের পর ধীরে ধীরে শুরু হয় ধর্মীয় চর্চা। তুর্কি সরকারের অধীনে একটি আর্থিক প্রতিষ্ঠানের সহযোগিতায় নির্মিত হয়েছে বিশাল ও দৃষ্টিনন্দন এই বৃহত্তম মসজিদটি। ২০১২ সালে ৩৫ একর জমির ওপর শুরু হয় মসজিদটির নির্মাণ কাজ।

একাদশ শতকের বিশিষ্ট ইসলামিক চিন্তাবিদ ইমাম সেরাহসির নামে নামকরণ করা হয়েছে সেটি। গত রবিবার মসজিদটি উদ্বোধন করেন সফরত তুর্কি প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়্যেপ এরদোগান। এ সময় উপস্থিত ছিলেন কিরগিজ প্রেসিডেন্ট সোরোনবে জিনাবেকভ সহ দেশটির অন্যান্য কর্মকর্তারা।