মরিনহোর পরিবর্তে ইউনাইটেডের কোচ হচ্ছেন জিদান!

টিবিটি টিবিটি

স্পোর্টস ডেস্ক

প্রকাশিত: ৪:২০ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ৫, ২০১৮ | আপডেট: ৪:২০:অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ৫, ২০১৮

টিবিটি খেলাধুলাঃ ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড মৌসুমের শুরুটা করে লেস্টার সিটির বিপক্ষে ২-১ গোলের জয় দিয়ে। তবে এরপর টানা দুই ম্যাচে হার। হারের বৃত্ত ভেঙে ইউনাইটেড গত রোববার আবার জয়ের ধারায় ফিরেছে বটে। তবে বার্নলির বিপক্ষে ২-০ গোলের জয়ও কোচ হোসে মরিনহোর সম্ভাব্য ছাটাই গুঞ্জন থামাতে পারছে না।

বরং মরিনহোর ছাটাই হওয়ার গুঞ্জন ক্রমেই দানা বাঁধছে। ওল্ড ট্রাফোর্ডে মরিনহোর সম্ভাব্য উত্তরসূরি কে হতে পারেন, সেই গুঞ্জনও তুঙ্গে। গণামাধ্যমের খবর, মরিনহোর পরিবর্তে ইউনাইটেডের কোচ হতে যাচ্ছেন জিনেদিন জিদান!

এমন দাবিও উঠেছে, আসন্ন বড় দিনের আগেই ইউনাইটেডের কোচের পদ থেকে ছাটাই হতে পারেন মরিনহো। আর তার ছাটাইয়ের পরই পল পগবাদের কোচ হবেন জিদান। না, এখনো পর্যন্ত গুঞ্জনের কোনো সারসত্ত্বা মিলেনি। মানে পুরোটাই গুঞ্জন।

তবে যা রটে তার কিছু না কিছু তো ঘটেই। তাছাড়া ওল্ড ট্রাফোর্ডে মরিনহোকে ছাটাইয়ের দাবি যে ক্রমেই জোরালো হচ্ছে, এটাও সত্য। ওল্ড ট্রাফোর্ডে আবার সুদিন ফেরাবেন, হবেন স্যার অ্যালেক্স ফারগুসনের যোগ্য উত্তরসূরি-এমন অনানুষ্ঠানিক মৌখিক চুক্তির মাধ্যমেই ২০১৬ সালে মরিনহোকে কোচ করে ইউনাইটেড। মরিনহোও ক্লাবে হারানো সুদিন ফেরানোর চ্যালেঞ্জটা নিয়েছিলেন। কিন্তু প্রথম দুই মৌসুমে মরিনহো সেই প্রতিশ্রুতি পূরণ করতে পারেননি।

প্রথম মৌসুমেই অবশ্য ইউনাইটেডকে ৩টি শিরোপা উপহার দেন মরিনহো। কিন্তু আসল পরীক্ষা লিগ এবং চ্যাম্পিয়ন্স লিগে প্রত্যাশার ছিটেফোটাও পূর্ণ করতে পারেননি। দ্বিতীয় মৌসুমে তো সব টুর্নামেন্টেই সমান ব্যর্থ।

উল্টো মৌসুমজুড়েই মরিনহো সমালোচনার তীরে বিদ্ধ হয়েছেন অতি-রক্ষণাত্মক কৌশলের কারণে। তারপরও আশা ছিল, মরিনহো এবার দলকে নিয়ে ঘুরে দাঁড়াবেন। কিন্তু এ মৌসুমের শুরুতেই ওল্ড ট্রাফোর্ডে হতাশার ঘনঘটা।

লিগে ৪ ম্যাচে দুই জয়, দুই হার। ৬ পয়েন্ট নিয়ে ইংল্যান্ডের সবচেয়ে সফল ক্লাবটির অবস্থান পয়েন্ট তালিকার ১০ নম্বরে! শিরোপার দাবিদার একটি ক্লাবের সমর্থকেরা শুরুতেই দলের এমন অধঃপতন মেনে নেবেন কেন!

ইউনাইটেড সমর্থকরা মানতে পারছেও না। তারা বরং ধুয়ে দিচ্ছে মরিনহোকে। আর এ কাজে সাধারণ সমর্থকদের চেয়েও বেশি খ্যাপ্পা ইউনাইটেডের সাবেক খেলোয়াড়েরা। খেলার ছাড়ার পর যারা বর্তমানে ‘বিশেষজ্ঞ’ বনে গেছেন।

কেউ কেউ তো নিজের কলামে সরাসরিই লিখছেন, দ্রুতই মরিনহোকে তল্পি-তল্পাসহ বিদায় করে দেওয়া উচিত! কেউ কেউ আবার বেঁধে দিচ্ছেন ছাটাইয়ের সময়ক্ষণ। বলছেন, বড় দিনের আগেই মরিনহোকে বিদায় করে দেওয়াটা হবে ক্লাবের জন্য মঙ্গলজনক!

এতো এতো সমালোচনার সূত্র ধরেই উঠে আসছে মরিনহোর সম্ভাব্য উত্তরসূরির বিষয়টি। আর এই প্রশ্নে ইংলিশ গণমাধ্যমে সবচেয়ে এগিয়ে রিয়াল মাদ্রিদের সাবেক কোচ জিদান। রিয়াল মাদ্রিদের হয়ে অবিশ্বাস্য সাফল্যই জিদানকে ফেভারিট বানিয়ে দিচ্ছে। মাত্র আড়াই বছরেই রিয়ালকে ৯টি বড় শিরোপা উপহার দেন জিদান। যার মধ্যে ৩টিই আবার সবচেয়ে আকর্ষণীয় ও মর্যাদাপূর্ণ উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শিরোপা।

সেই জিদান গত মে মাসে দলকে টানা তৃতীয় বারের মতো চ্যাম্পিয়ন্স লিগ জেতানোর অনন্য কীর্তি গড়ার পরই রিয়ালের কোচের পদ থেকে সরে দাঁড়ান। সেই থেকে তিনি বেকারই আছেন। তবে গুঞ্জন আছে, আগামী অক্টোবরেই ফরাসি মহানায়ক নিজের সাবেক ক্লাব জুভেন্টাসের পরামর্শক হিসেবে যোগ দিতে পারেন।

কিন্তু ওই গুঞ্জন এখন চাপা পড়ে গেছে। চাপা পড়ে গেছে জিদানের ফ্রান্স জাতীয় দলের কোচ হওয়ার গুঞ্জনও। জিদানকে জড়িয়ে এখন বাতাসে একটাই গুঞ্জন-মরিনহোর উত্তরসূরি হিসেবে ইউনাইটেডের কোচ হতে যাচ্ছেন তিনি।

গুঞ্জনটা সত্যি হবে কিনা বলবে সময়। তবে ইউনাইটেডের ফরাসি মিডফিল্ডার পল পগবা কিন্তু জিদানের অধীনে খেলার স্বপ্নে বিভোর। স্বদেশি কিংবদন্তি জিদানকে অনুসরণ করেই বেড়ে উঠেছেন পগবা। জিদানই বিশ্বকাপজয়ী পগবার শৈশবের নায়ক। এখন হোক বা পরে, খেলোয়াড়ী ক্যারিয়ারের কোনো একটা সময়ে অবশ্যই কোচ জিদানের অধীনে খেলতে চান পগবা।

মজার ব্যাপার হলো, পগবার এই স্বপ্নের কথা ক্লাব ইউনাইটেডের পক্ষ থেকেই গণমাধ্যমের কাছে ফাঁস করা হয়েছে। রেড ডেভিলসদের বিশ্বস্ত ওই সূত্র বলেছে, ‘শৈশবের নায়ক জিদানকে দেখে দেখেই বেড়ে উঠেছে পল। সে তার ক্যারিয়ারের কোনো একটা সময়ে খেলতে চায় জিদানের অধীনে।’ সেই কোনো একটা সময় যদি হয় ইউনাইটেডে, এবারই! তাহলে তো কথাই নেই।

কোচ মরিনহোর সঙ্গে পগবার সম্পর্কটা ভালো নয়। তার উপর পগবা জিদানের অধীনে খেলার আকাঙ্খার কথাটা জানালেন এমন একটা সময়, যখন মরিনহোর ছাটাই গুঞ্জন চরমে। এই অবস্থায় পগবার এই আশাবাদ, গুঞ্জনে যে নতুন করে ঘি ঢালবে, তা বলাই বাহুল্য।