মহাজোট নাকি ঐক্যফ্রন্ট? কোনদিকে যাচ্ছে বিকল্পধারা-ন্যাপ?

টিবিটি টিবিটি

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ৭:৩৬ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ৩০, ২০১৮ | আপডেট: ৭:৩৬:অপরাহ্ণ, অক্টোবর ৩০, ২০১৮

সময় যতো পার হচ্ছে ঘনিয়ে আসছে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন। মঙ্গলবার থেকে শুরু হয়েছে সাধারণ নির্বাচনের সময় গণনা। দেশের রাজনৈতিক অঙ্গনে এখন মাঠ গরম হচ্ছে নির্বাচনকে কেন্দ্র করে। ইতিমধ্যে সরকার বিরোধীদের সঙ্গে সংলাপে বসার কথাও জানিয়েছেন ক্ষমতাসীন দলের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। অনেকেই একে বরফ গলার সঙ্গেও তুলনা করতে চাচ্ছেন।

বসে নেই নির্বাচন কমিশনও। ইতিমধ্যে সংস্থাটি ভোটের আয়োজনে সব প্রস্তুতি প্রায় শেষ করেছে। কেননা, সংবিধানের বাধ্যবাধকতা অনুযায়ী মঙ্গলবার থেকে পরবর্তী নব্বই দিনের মধ্যেই নির্বাচন করতে হবে। এরই মধ্যে রাজনৈতিক দলগুলোর মধ্যে চলছে জোটের হিসাব নিকাশ।

জানা গেছে, বিএনপি নির্বাচনে এলে আওয়ামী লীগের নেতৃত্বাধীন মহাজোটে যাবে অধ্যাপক ডা. এ কিউ এম বদরুদ্দোজা চৌধুরীর (বি. চৌধুরী) নেতৃত্বাধীন বিকল্পধারা বাংলাদেশ এবং জেবেল রহমান গানির নেতৃত্বাধীন বাংলাদেশ ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টি (বাংলাদেশ ন্যাপ)। বিকল্পধারা বাংলাদেশ ও বাংলাদেশ ন্যাপের কয়েকজন শীর্ষ নেতার সঙ্গে কথা বলে এসব তথ্য পাওয়া গেছে। তবে বিএনপি নির্বাচনে না এলে ‘যুক্তফ্রন্টে’র ব্যানারে সমমনা রাজনৈতিক দলগুলোকে নিয়ে আওয়ামীবিরোধী জোট গঠন করে নির্বাচনে অংশ নেবে বিকল্পধারা বাংলাদেশ।

এরই মধ্যে যুক্তফ্রন্টে যোগ দিয়েছে বাংলাদেশ ন্যাপ, এনডিপি এবং বাংলাদেশ লেবার পার্টির একাংশ। অন্যদিকে, বিকল্পধারায় যোগ দিয়েছেন বিএনপির সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান শমসের মবিন চৌধুরী, জাতীয়তাবাদী ছাত্রদলের প্রথম নির্বাচিত সভাপতি সাবেক প্রতিমন্ত্রী গোলাম সারোয়ার মিলন ও সাবেক মন্ত্রী (এরশাদের মন্ত্রিসভা) নাজিম উদ্দীন আল আজাদ।

বিকল্পধারায় যোগ দেওয়া বিএনপি ও জাতীয় পার্টির এসব সাবেক নেতাদের নিয়ে গত রোববার বারিধারার বাসায় বৈঠক করেন বি. চৌধুরী।

সংশ্লিষ্ট সূত্রমতে, এই প্রেসিডিয়াম বৈঠকে নির্বাচনে যাওয়া-না যাওয়ার বিষয়ে দলের শীর্ষ নেতাদের একটা ধারণা দেন বি. চৌধুরী।

দলের নেতাদের বিকল্পধারা প্রেসিডেন্ট বলেন, আগামী এক সপ্তাহের মধ্যে নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা হলে ১৫ দিনের মধ্যেই জানা যাবে বিএনপি ও তাদের মিত্ররা নির্বাচনে যাবে কি না। যদি বিএনপি নির্বাচনে যায়, তাহলে জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান এইচ এম এরশাদের মতো বি. চৌধুরীও আওয়ামী লীগের নেতৃত্বাধীন জোটে যোগ দেবেন।

অন্যদিকে, বিএনপি যদি ভোট বর্জনের ঘোষণা দেয়, তাহলে সরকারের সঙ্গে সমঝোতার ভিত্তিতে সমমনাদের নিয়ে যুক্তফ্রন্টের ব্যানারে নির্বাচনে অংশ নেবে বিকল্পধারা। বিএনপি জোট ছেড়ে আসা বাংলাদেশ ন্যাপ, এনডিপি ও বাংলাদেশ লেবার পার্টিও থাকবে যুক্তফ্রন্টের এই ব্যানারে। বিএনপি জোটে থাকা আরও কয়েকটি নিবন্ধিত দলকে যুক্তফ্রন্টে টানার চেষ্টা করবে বিকল্পধারা।

এ প্রসঙ্গে বিকল্পধারার প্রেসিডিয়াম সদস্য মাহী বি চৌধুরী বলেন, এ ধরনের কোনো সিদ্ধান্ত (মহাজোটে যোগ দেওয়া) এখন পর্যন্ত আমরা নিইনি। তবে নির্বাচনের জন্য পুরো প্রস্তুতি আমাদের রয়েছে। যদিও এর আগে, সম্প্রতি এক প্রশ্নের জবাবে সাংবাদিকদের মাহী বি চৌধুরী বলেছিলেন, ক্ষমতার ভারসাম্য রক্ষার প্রস্তাবে রাজি হলে আওয়ামী লীগের সঙ্গে জোট করতেও বিকল্পধারার আপত্তি নেই।